scorecardresearch
 

Arun Goyal Appointment: ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কীভাবে নির্বাচন কমিশনার অরুণ? ফের প্রশ্ন সুপ্রিম কোর্টের

নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court) আবারও শুনানি হয়। কেন্দ্রীয় সরকার সাংবিধানিক বেঞ্চে নির্বাচন কমিশনার পদে অরুণ গোয়েলকে নিয়োগের (Arun Goyal Appointment) প্রক্রিয়া সম্পর্কিত ফাইল জমা দিয়েছে।

নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন সুপ্রিম কোর্টের নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন সুপ্রিম কোর্টের
হাইলাইটস
  • ১৯ নভেম্বর নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিযুক্ত হন অরুণ গোয়েল
  • কোর্টের দ্বারস্থ হন বিশিষ্ট আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ


নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court) আবারও শুনানি হয়। কেন্দ্রীয় সরকার সাংবিধানিক বেঞ্চে নির্বাচন কমিশনার পদে অরুণ গোয়েলকে নিয়োগের (Arun Goyal Appointment) প্রক্রিয়া সম্পর্কিত ফাইল জমা দিয়েছে। সরকার জানিয়েছে, নিয়োগের মূল ফাইলের কপি পাঁচ বিচারপতিকে দেওয়া হয়েছে। ১৯ নভেম্বর নির্বাচন কমিশনার (Election Commissioner Arun Goyal) হিসেবে নিযুক্ত হন অরুণ গোয়েল। এই নিযুক্তি নিয়ে কোর্টের দ্বারস্থ হন বিশিষ্ট আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ (Prashant Bhushan)। 

শুনানির সময় বেঞ্চ নিয়োগ পদ্ধতি নিয়ে প্রশ্ন তোলে। বিচারপতি অজয় ​​রাস্তোগি ফাইল এবং নিয়োগের দ্রুত অগ্রগতি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। তিনি বলেন, '২৪ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত কীভাবে হল? যে পদটি ১৫ মে খালি হয়েছিল। আপনি কি বলতে পারেন কেন সরকার এই নিয়োগের জন্য তাড়াহুড়ো করেছিল? একই দিনে ক্লিয়ারেন্স, একই দিনের বিজ্ঞপ্তি, একই দিনে গ্রহণ। ফাইল নড়তে ২৪ ঘণ্টাও সময় লাগছে না। এটি আলোর গতিতে চলছে।'

আরও পড়ুন:Visva-Varati University: ১২ ঘণ্টা পর মুক্ত উপাচার্য বিদ্যুত্‍ চক্রবর্তী, আরও নিরাপত্তা বিশ্বভারতীতে

এ বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল আর ভেঙ্কটারমানি (R. Venkataramani) বলেন, তিনি সবকিছুর জবাব দেবেন, তবে আদালতের উচিত অন্তত তাঁকে কথা বলার সুযোগ দেওয়া। আদালতকে ভেঙ্কটারমানি জানান যে আইন ও বিচার মন্ত্রক নিজেই সম্ভাব্য প্রার্থীদের একটি তালিকা তৈরি করে, তারপর তাঁদের মধ্যে সবচেয়ে উপযুক্ত প্রার্থীকে বেছে নেওয়া হয়। এতে প্রধানমন্ত্রীরও ভূমিকা রয়েছে।

শুনানি শুরুর তিনদিনের মধ্যে নিয়োগ

অরুণ গোয়ালের নিয়োগ সংক্রান্ত মূল ফাইল আদালতে জমা দিতে কেন্দ্রকে নির্দেশ দিয়েছিল বিচারপতি কে এম জোসেফের নেতৃতাধীন পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ। আদালত বলেছিল যে এই নিয়োগে কোনও ধোঁয়াশা ছিল না কি না তা আদালত জানতে চায়। গত শুনানিতে আদালত মন্তব্য করেছিল যে শুনানি শুরুর মাত্র তিনদিনের মধ্যে অরুণ গোয়েলকে নিয়োগ করা হয়। নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আপত্তি জানিয়ে আবেদন জমা দেওয়ার পরেই এই নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। বেঞ্চ বলেছে, আমরা শুধু জানতে চাই নিয়োগের জন্য কী পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়েছিল? এই নিয়োগ যদি আইনত সঠিক হয়, তাহলে আতঙ্কিত হওয়ার কী দরকার?