scorecardresearch
 
 

Primary Teacher Recruitment : পুজোর আগে বড় ঘোষণা! ৭ হাজারের বেশি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের পথে রাজ্য

Primary Teacher Recruitment: মন্ত্রিসভার বৈঠকে ঠিক হয়েছে, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে স্কুল শিক্ষা দফতরে উত্তর ২৪ পরগনা ও মালদা জোনের জন্য ৩,১৭৯টি পদ তৈরি করা হল। পাশাপাশি ৩,৯২৫ শূন্যপদ পূরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

রাজ্যে ৭ হাজারের বেশি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের পথে সরকার (প্রতীকী ছবি) রাজ্যে ৭ হাজারের বেশি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের পথে সরকার (প্রতীকী ছবি)
হাইলাইটস
  • পুজোর আগে ভাল খবর
  • আরও প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকার
  • সেইসঙ্গে শিক্ষকের শূন্যপদেও নিয়োদ করা হবে

Primary Teacher Recruitment: পুজোর আগে ভাল খবর। আরও প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকার। সেইসঙ্গে শিক্ষকের শূন্যপদেও নিয়োদ করা হবে। সোমবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে।

শিক্ষক নিয়োগ
এদিন মন্ত্রিসভার বৈঠকে ঠিক হয়েছে, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে স্কুল শিক্ষা দফতরে উত্তর ২৪ পরগনা ও মালদা জোনের জন্য ৩,১৭৯টি পদ তৈরি করা হল। পাশাপাশি ৩,৯২৫ শূন্যপদ পূরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

মাঝারি শিল্পে আরও জোর
রাজ্যে মাঝারি শিল্প আনার ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ২০১৪ সালে প্রাইভেট ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরির ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিলো। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটা প্রস্তাব এসেছে। কলকাতা এবং কেএমডিএ, দুই ২৪ পরগনা ও হাওড়ায়।

প্রাইভেট ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরির ক্ষেত্রে জমির পরিমাণ ধার্য করা ছিল ২০ একর। আরও বেশি বেসরকারি সংস্থাকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরির ক্ষেত্রে উৎসাহ দিতে এই ন্যূনতম ২০ একর জমির পরিমাণ কমিয়ে ৫ একর করা হলো। অয়্যারহাউসিং ও লজিস্টিক হাব এই স্কিমের অন্তর্ভুক্ত করা হল। যা আগে ছিল না।

এই মুহুর্তে রাজ্যে যে সব বেসরকারি শিল্প পার্ক রয়েছে তারা যদি নিজেদের জায়গা বাড়াতে চায়, তা করতে পারবে। উত্তর, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া ও কেএমডিএ এলাকাতে সর্বাধিক ২ একর ও অন্যান্য জেলাগুলিতে সর্বাধিক ৫ একর বাড়ানো যেতে পারে। 

চলতি বাজেটে রাজ্যে ১০০টি শিল্পপার্ক তৈরির ঘোষণা করা হয়েছিল। বেসরকারি ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরির ক্ষেত্রে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে যে ইন্সেন্টিভ দেওয়া হতো সেটা আগে কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার পর একবারে দেওয়া হতো।

এদিনের মন্ত্রিসভার বৈঠকে ঠিক হয়েছে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে নতুন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরীর ক্ষেত্রে কাজের নিরিখে কুড়ি শতাংশ, ৩০ শতাংশ, ৫০ শতাংশ কাজ হলে ধাপে ধাপে ইনসেন্টিভ দেওয়া হবে।

ডিমের চাহিদা মেটাতে
ডিমের চাহিদা মেটাতে পোলট্রি ফার্মের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যাতে তিন বছরের মধ্যে রাজ্যের চাহিদা রাজ্যেই মেটানো যায়, সেই লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।

ডিম বাইরে থেকে আনা হয়। মিড ডে মিল-সহ বিভিন্ন প্রকল্পের জন্য ডিম লাগে। ব্যবধান আছে, তা তিন বছরের মধ্যে মিটিয়ে নিতে হবে। আর তাই শিল্প পার্কে কোল্ড স্টোরেজ, পোলট্রি করা যেতে পারে। 

মাছ আমদানি করা হয়। উৎপাদন বেড়েছে। তারপরও আনতে হয. এই শিল্প পার্কে করা যাবে। শিল্প পার্কে মাছ চাষেও অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

পর্যটনে জোর
পর্যটন ক্ষেত্রে সার্ভিস প্রোভাইডার লাগবে। বিভিন্ন ধরনের ট্যুর অপারেটরদের স্কিল ডেভেলপমেন্টের জন্য একটা কোর্সের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দিয়ে সার্টিফিকেটের ব্যবস্থা করা হবে। 

ইট ভাটা নিয়ে সিদ্ধান্ত
ইট ভাটাকে খনি শিল্পের অন্তর্গত ধরা হয়। ফলে ভাটা তৈরি করতে গেলে পরিবেশ দফতরের ছাড়পত্র প্রয়োজন হয়। সোমবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল ১.৫ মিটার পর্যন্ত মাটি খুঁড়লে সেটা খনি শিল্পের মধ্যে পড়বে না। 

রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি সরলীকরণের জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর ফলে অনেক নথিভুক্ত ইটভাটা নথিভুক্তকরণের সুযোগ পাবে ফলে সেইসব ইটভাটা গুলির আইনি স্বীকৃতি জুটবে। এই কাজের জন্য একটি মন্ত্রিগোষ্ঠী তৈরি করা হয়েছে। রাজ্যে ৫,৬৩৫ রেজিস্টার্ড ইট ভাটা আছে।