scorecardresearch
 

Visva-Bharatai University Vice-Chancellor Bidyut Chakraborty : 'যদি বলি সবাই চোর, সমালোচনা করতে পারবে?' ফের 'বিদ্যুৎ'-ঝলক

Visva-Bharatai University Vice-Chancellor Bidyut Chakraborty: তিনি (Visva-Bharatai University Vice-Chancellor Bidyut Chakraborty) বলেন, সিকিউরিটি কার ছেলে তোমরা জানো। কোনও ভাবেই কমপ্লেন করতে পারছি না।

বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় এবং উপাচার্য অধ্যাপক বিদ্যুৎ চক্রবর্তী বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় এবং উপাচার্য অধ্যাপক বিদ্যুৎ চক্রবর্তী
হাইলাইটস
  • আবারও বিতর্কে বিশ্বভারতীর উপাচার্য অধ্যাপক বিদ্যুৎ চক্রবর্তী
  • বিশ্বভারতীর বিভিন্ন ভবনে চুরি প্রসঙ্গ নিয়ে বিস্ফোরক উপাচা
  • নাম না করে বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডলকে বাহুবলী বলেছেন তিনি

Visva-Bharatai University Vice-Chancellor Bidyut Chakraborty: আবারও বিতর্কে বিশ্বভারতীর উপাচার্য অধ্যাপক বিদ্যুৎ চক্রবর্তী (Visva-Bharatai University Vice-Chancellor Bidyut Chakraborty)। বিশ্বভারতীর বিভিন্ন ভবনে চুরি প্রসঙ্গ নিয়ে বিস্ফোরক উপাচার্য। নাম না করে বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডলকে বাহুবলী বলেছেন তিনি।

থানায় অভিযোগ নেই
আর সেই বাহুবলীর নাকি থানায় অভিযোগ জানাতে পারছে না বিশ্বভারতী, দাবি তাঁর। বাহুবলীর দাপটে নিষ্ক্রিয় বিশ্বভারতীর নিজস্ব নিরাপত্তা ব্যবস্থা। কারণ বিশ্বভারতীর নিজস্ব নিরাপত্তা কর্মীরা থানায় অভিযোগ করতে পারছেন না। 

অনুব্রতর ভয়
অনুব্রতর কাছে তাদের নাম চলে গেলে টিকতে দেবে না এলাকায় দাবি বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী (Visva-Bharatai University Vice-Chancellor Bidyut Chakraborty)-র। বিশ্বভারতীর ভবনগুলিতে চুরি আটকানোর দায়িত্ব নিতে হবে শিক্ষক-পড়ুয়াদের। 

বৃহস্পতিবার বিশ্বভারতীর সমস্ত ভবনের অধ্যক্ষ, বিভাগীয় প্রধান ও আধিকারিকদের নিয়ে ভার্চুয়াল মিটিং করেন উপাচার্য, সেই ভার্চুয়াল মিটিংয়ে এই ধরনের বিস্ফোরক কথা বলেন উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। এ সংক্রান্ত কয়েকটি ভিডিও হাতে এসেছে। আজতক বাংলা সেই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করে দেখেনি

তাঁর জন্য চাকরি
বিস্ফোরক মন্তব্য বিশ্বভারতীর উপাচার্যর। বিশ্বভারতীর অধ্যাপকরা চোর। সঙ্গীত ভবনে বিখ্যাত কীর্তনীয়া সুমন ভট্টাচার্যর চাকরি হয়েছে আমার জন্য। দাবি বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী (Visva-Bharatai University Vice-Chancellor Bidyut Chakraborty)-র। বিশ্বভারতীর সঙ্গীত ভবনে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র চুরি প্রসঙ্গ নিয়ে ভার্চুয়াল বক্তব্য রাখার সময় একথা বলেন উপাচার্য।

চুরি নিয়ে বার্তা
তিনি বলেন, অনেক বিভাগে তোমরা জানো, আমরা তা পারিনি। কড়া নিয়ম করলাম। অনেক বিভাগে ক্ষোভ হয়েছে। কয়েক দিন আগে ১০টি কল চুরি হয়েছে। এসির কপার অয়্যার চুরি হয়েছে। রসায়ন, চিনা বিভাগে চুরি হয়েছে।

তিনি (Visva-Bharatai University Vice-Chancellor Bidyut Chakraborty) বলেন, সিকিউরিটি কার ছেলে তোমরা জানো। কোনও ভাবেই কমপ্লেন করতে পারছি না। এখানে দায়িত্ব না নিলে, নিরাপত্তারক্ষীদের ওপর নির্ভর করে আমরা চুরি ঠেকাতে পারব না। দায়িত্ব বিভাগের। চৌকিদার কাজ করছে না। চৌকিদারকে কাজ করাতে পারছি না।

তিন আরও বলেন, তারা বাহুবলীর কাছে চলে যাচ্ছে। বাহুবলী বলছে উপাচার্য পাগল। আমি পারছি না কাজ করাতে। মার খাওয়ার পর পুলিশকে রিপর্ট করি। পুলিশকে বলি। তখন তারা না করে। বলে নাম জানাজানি হয়ে গেলে টিকতে পারবে না।

প্রশ্নপত্র চুরির অভিযোগ
বৈঠকে তিনি বলেন, কেউ তোমরা বলবে না, এটা তোমাদের স্টাইল। চিত্রলেখা মাইতি পিএইচডির জন্য আমার পাশে পাশে ঘুরে বেরাচ্ছে। তারপর আর যোগাযোগ নেই। সুমন কতবার বলেছে, স্যর আপনার জন্য চাকরি পেলাম। এই তো আমাদের চরিত্র ভাই। সঙ্গীত ভবনের প্রশ্ন চুরি হয়ে যায়। কাউকে কিছু বলা যাবে না। কিছু বলা যাবে না কাউকে।

অভিমানী উপাচার্য বলেন, তোমরা যা খুশি করে যাও। চোর তো তোমাদের মধ্যেই আছে। আমি যদি বলি তোমরা সবাই চোর। এটাকে সমালোচনা করতে পারো? ভিসি-কে লোকে যে যা খুশি করুক। গলিয়ে মেরে ফেলুক। তা-ও আমরা যাব না। এদিকে, এই ভিডিও প্রসঙ্গে বিশ্বভারতীর মুখপাত্র অনির্বাণ সরকার কোনও মন্তব্য করতে চাননি।