scorecardresearch
 

ফ্যাক্ট চেক: কাতারের দোহা স্টেডিয়ামের গেট খোলার নয়, ভিডিয়োটি দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত একটি ম্যারাথনের দৃশ্য

বিশ্বকাপ শুরুর পর থেকে শুধুমাত্র ম্যাচ নিয়েই মেতে রয়েছেন ফুটবল প্রেমীরা। সেই আবহেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হতে শুরু করেছে। 

কাতারের দোহা স্টেডিয়ামের গেট খোলার নয়, ভিডিয়োটি দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত একটি ম্যারাথনের দৃশ্য কাতারের দোহা স্টেডিয়ামের গেট খোলার নয়, ভিডিয়োটি দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত একটি ম্যারাথনের দৃশ্য

কাতার বিশ্বকাপ শুরুর আগে একে কেন্দ্র করে যতই বিতর্ক থাকুক না কেন, মাঠে বল গড়ানোর পর থেকে সেই সকল বিতর্ক চলে গিয়েছে পিছনের সারিতে। বিশ্বকাপ শুরুর পর থেকে শুধুমাত্র ম্যাচ নিয়েই মেতে রয়েছেন ফুটবল প্রেমীরা। সেই আবহেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হতে শুরু করেছে। 

ভিডিয়োটিতে একটি রাস্তার উপর দু-ভাগে প্রায় লক্ষাধিক মানুষের সমাবেশ দেখা যাচ্ছে। প্রাথমিকভাবে দু-ধারেই সমাবেশের অগ্রভাগের বন্ধ থাকা গেট খুলে দেওয়ার পর কাতারে-কাতারে ছুটতে দেখা যাচ্ছে। নেটিজেনদের একাংশ ভিডিয়োটি শেয়ার করে দাবি করেছেন যে এটি কাতারের দোহা স্টেডিয়ামের গেট খোলার মুহূর্তের দৃশ্য়। 

"কাতার, দোহা স্টেডিয়ামের গেইট খোলার পর!" এই ক্যাপশন লিখে ১৩ সেকেন্ডের ভিডিয়োটি শেয়ার করা হয়েছে। 

ইন্ডিয়া টুডে অ্যান্টি ফেক নিউজ ওয়ার রুম (আফয়া) অনুসন্ধান করে দেখেছে যে দাবিটি অসত্য। এই ভিডিয়োটি বিশ্বকাপের সঙ্গে সম্পর্কিত তো নয়ই, বরং কাতারেরও নয়। 

আফয়া তদন্ত 

ভাইরাল ভিডিয়োটির প্রথমেই যে গেট দেখা যাচ্ছিল, খুব ভাল করে লক্ষ্য করলে তার উপরেই ইংরাজিতে "দুবাই রান" লেখা দেখা যাচ্ছিল। যার থেকে আন্দাজ করা যায় যে এটি ভিডিয়ো দুবাইয়ের হতে পারে।

এরপর ভিডিয়োটি থেকে স্ক্রিনশট সংগ্রহ করে তার সঙ্গে দুবাই রান-এর কিওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করার পর আমরা হামজা ভ্লগ নামের একটি ইউটিউব চ্য়ানেলে ওই একই ভিডিয়োটি দেখতে পাই। 

পোস্টদাতা দাবি করেন যে এটি ২০২২ সালের দুবাই রান নামক প্রতিযোগিতার অংশ ও প্রায় ১.৯ লক্ষ মানুষ এতে অংশগ্রহণ করেন। 

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম খালিজ টাইমসে এই ম্যারাথন নিয়ে একটি প্রতিবেদনও প্রকাশ পায় যেখানে নিশ্চিত করা হয় যে ১ লক্ষ ৯৩ হাজার মানুষ এতে অংশ নেন। এই প্রতিযোগিতাটি গত ২০ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এই দৌড় প্রতিযোগিতায় কোনও নির্দিষ্ট লক্ষ্য়মাত্রা না থাকলেও এই নিয়ে দুবাইয়ে আমজনতার মধ্যে ব্য়াপক উৎসাহ দেখা যায়। 

গাল্ফ নিউজের পক্ষ থেকে একটি ভিডিয়োও এই নিয়ে প্রকাশ করা হয়। যা থেকে কার্যত পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে যে দুবাইয়ের একটি দৃশ্য়কে কাতারের বলে মিথ্য়েভাবে শেয়ার করা হয়েছে। 


 

ফ্যাক্ট চেক

facebook users

দাবি

ভিডিয়োটি কাতারের দোহার, সেখানে স্টেডিয়ামের দরজা খোলার পর দর্শকদের মধ্যে উৎসাহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

ফলাফল

ভিডিয়োটি কাতারের নয়, বরং দুবাইয়ের। ২০ নভেম্বর দুবাই রান বলে একটি প্রতিযোগিতার সময় তা রেকর্ড করা হয়।

ঝুট বোলে কাউয়া কাটে

যত বেশি কাক তত বেশি মিথ্যে

  • কাক: অর্ধসত্য
  • একাধিক কাক: বেশির ভাগ মিথ্যে
  • অনেক কাক: সম্পূর্ণ মিথ্যে
facebook users
আপনার কী মনে হচ্ছে কোনও ম্যাসেজ ভুয়ো ?
সত্যিটা জানতে আমাদের সংখ্যা 73 7000 7000 উপর পাঠান.
আপনি আমাদের factcheck@intoday.com এ ই-মেইল করুন
 
; ; ;