scorecardresearch
 

'কেন রুল জারি হবে না?' মুখ্য-অর্থসচিবকে হলফনামা জমার নির্দেশ

এদিন ডিএ-র আদালত অবমাননার মামলার শুনানিও ছিল। তবে নথিতে ভুল থাকায় সেই মামবার শুনানি এদিন হয়নি। ৪ নভেম্বরে সেই মামলার শুনানি হবে।

ফাইল ছবি ফাইল ছবি
হাইলাইটস
  • ডিএ (Dearness Allowance) মামলায় নয়া মোড়
  • এবার রাজ্যের মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী এবং অর্থসচিব মনোজ পন্থকে হলফনামা দিতে বলল কলকাতা হাইকোর্ট
  • মাননীয় বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন ও বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তের ডিভিশন বেঞ্চ এই নির্দেশ দিয়েছে

ডিএ (Dearness Allowance) মামলায় নয়া মোড়। এবার রাজ্যের মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী এবং অর্থসচিব মনোজ পন্থকে হলফনামা দিতে বলল কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta High Court)। মাননীয় বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন ও বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তের ডিভিশন বেঞ্চ এই নির্দেশ দিয়েছে। আগামী ৪ নভেম্বরের মধ্যে এই হলফনামা জমার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে মাননীয় বিচারপতিদের তরফে। 

এদিন ডিএ-র আদালত অবমাননার মামলার শুনানিও ছিল। তবে নথিতে ভুল থাকায় সেই মামবার শুনানি এদিন হয়নি। ৪ নভেম্বরে সেই মামলার শুনানি হবে। 

আরও পড়ুন : Bengal Da Calcutta High Court : হাইকোর্টে ধাক্কা তো খেল রাজ্য সরকার, তবে কর্মীরা কবে পাবেন DA ?

প্রসঙ্গত, DA মামলায় রাজ্য়ের রিভিউ পিটিশনের আর্জি খারিজ করে রাজ্যের সর্বোচ্চ আদালত। এর আগে ২০ মে আদালত নির্দেশ দিয়েছিল, ৩ মাসের মধ্যেই ডিএ মেটাতে হবে। সেই নির্দেশই পুরর্বিবেচনার আর্জি জানায় রাজ্য সরকার। তবে এদিন বিচারকরা জানিয়ে দেন, আগের রায়ই বহাল থাকবে। 

আজ আদালতের তরফে স্পষ্ট জানানো হয়,'রাজ্য সরকার যে আবেদন জানিয়েছে, তার কোনও কোনও মেরিট নেই। রাজ্যের দাবি মতো ডিএ সংক্রান্ত স্ক্রুটিনিরও আর প্রয়োজন নেই।'  হাইকোর্ট আগে জানিয়েছিল, মহার্ঘ ভাতা সরকারি কর্মীদের প্রাপ্য। এটা তাদের অধিকার। তা থেকে তাঁদের বঞ্ছিত করা যাবে না। আজও একই কথা বলেন মাননীয় বিচারপতিরা। 

আরও পড়ুন : পুজোয় বাইরের খাবার খেয়েও কীভাবে ওজন কম রাখবেন, ফিট থাকবেন?

তবে হাইকোর্টের এই রায়ের বিরোধিতা করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হতে পারে রাজ্য সরকার। সেই বিষয়ে কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজের সাধারণ সম্পাদক মলয় মুখোপাধ্যায় বলেন,'রাজ্য সরকার সুপ্রিম কোর্টে যেতেই পারে। সেটা তাদের সাংবাবিধানিক অধিকার। তবে আমরাও তৈরি। ৩ বার রাজ্য সরকারের রায় পুর্নবিবেচনার আর্জি খারিজ করল আদালত। এরপরও তারা যদি দেশের সর্বোচ্চ আদালতে যায় তাহলে যাক। তবে সেখানেও লাভ হবে না বলে আমাদের বিশ্বাস।'