scorecardresearch
 

৪৫ লক্ষ টাকার ব্যাঙ্ক জালিয়াতি, লালবাজারের হাতে ‘কুখ্যাত’ শেখ বিনোদ

ফের কলকাতা পুলিশের জালে ধরা পড়ল শহরের অন্যতম কুখ্যাত দুষ্কৃতীর শেখ বিনোদ। এবার ৪৫ লক্ষ টাকা ব্যাঙ্ক জালিয়াতির অভিযোগে এই কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ। ব্যাঙ্ক জালিয়াতির অভিযোগে এই ঘটনায় এর আগেই ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছিল কলকাতা পুলিশের অ্যান্টি ব্যাঙ্ক ফ্রড বিভাগ।

পুলিশের জালে ধরা পড়ল শহরের অন্যতম কুখ্যাত দুষ্কৃতীর শেখ বিনোদ।—প্রতীকী ছবি। পুলিশের জালে ধরা পড়ল শহরের অন্যতম কুখ্যাত দুষ্কৃতীর শেখ বিনোদ।—প্রতীকী ছবি।
হাইলাইটস
  • কলকাতা পুলিশের জালে ধরা পড়ল শহরের অন্যতম কুখ্যাত দুষ্কৃতীর শেখ বিনোদ।
  • এবার ৪৫ লক্ষ টাকা ব্যাঙ্ক জালিয়াতির অভিযোগে এই কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ।
  • ব্যাঙ্ক জালিয়াতির অভিযোগে এই ঘটনায় এর আগেই ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছিল কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইম থানা।

ফের কলকাতা পুলিশের জালে ধরা পড়ল শহরের অন্যতম কুখ্যাত দুষ্কৃতীর শেখ বিনোদ। এবার ৪৫ লক্ষ টাকা ব্যাঙ্ক জালিয়াতির অভিযোগে এই কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ। ব্যাঙ্ক জালিয়াতির অভিযোগে এই ঘটনায় এর আগেই ৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছিল কলকাতা পুলিশের অ্যান্টি ব্যাঙ্ক ফ্রড বিভাগ। তাদেরকে জেরা করে জানা যায়, ওই জালিয়াতি চক্রের ‘মাস্টারমাইন্ড’ শেখ বিনোদ। এর পরেই শেখ বিনোদের সন্ধানে তল্লাশি অভিযান শুরু করে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ। অবশেষে বৃহস্পতিবার খড়গপুরে পুলিশের জালে ধরা পড়ে শেখ বিনোদ। 

গত ১১ নভেম্বর পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের সিআইটি রোড শাখার একজন গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও হয়ে যায় ৪৫ লক্ষ টাকা। পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের অ্যান্টি ব্যাঙ্ক ফ্রড বিভাগ। তদন্তে নেমে জানা যায়, ওই ওই শাখার এক উচ্চপদস্থ আধিকারিকের এম্প্লয়ি আইডি এবং পাসওয়ার্ড চুরি করে ব্যাঙ্কের সার্ভার থেকে লগইন করা হয়েছিল। এরপর এক গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে ঢুকে তার রেজিস্টারড মোবাইল নাম্বার বদলে ফেলা হয়। তার পরেই বিভিন্ন পদ্ধতিতে তার অ্যাকাউন্ট থেকে সরানো হয় টাকা। আগেই মোবাইল নাম্বার বদলে ফেলায় টাকা ট্রান্সফারের কোন অ্যালার্ট মেসেজই পাননি ওই গ্রাহক।

দিল্লি পুলিশ কমিশনারের নিয়োগ মামলায় কেন্দ্র, আস্থানার জবাব চাইল সুপ্রিম কোর্ট

এই ঘটনার তদন্তে নেমে আইপি এড্রেস থেকে লোকেশন ট্র্যাক করে পরপর ৭ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেন অ্যান্টি ব্যাঙ্ক ফ্রড বিভাগের গোয়েন্দারা। তাদেরকে আদালতে তোলা হলে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। অভিযুক্তদের হেফাজতে নিয়ে লাগাতার জেরা করে জানা যায়, এই জালিয়াতি চক্রের মূল পান্ডা পুলিশের খাতায় পুরনো অপরাধীদের তালিকায় শীর্ষে থাকা শেখ বিনোদ। অতীতেও একাধিকবার সাইবার এবং ব্যাঙ্ক জালিয়াতির অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছে এই দুষ্কৃতী। বিগত দশকে রীতিমতো কলকাতার ত্রাস হয়ে উঠেছিল শেখ বিনোদ। অবশেষে এই কুখ্যাত দুষ্কৃতীকে ফের গ্রেফতার করল কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ।