scorecardresearch
 

'দিল্লি নয়, কলকাতায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হোক', ED-কে চিঠি রুজিরার

কয়লা পাচারকাণ্ডে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর স্ত্রী রুজিরাকে তলব করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। বুধবার তাঁকে দিল্লির ED অফিসে তলব করা হয়। তবে এদিন তিনি দিল্লি যাননি। এই নিয়ে তদন্তকারীদের চিঠি পাঠালেন রুজিরা।

রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায় রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়
হাইলাইটস
  • কয়লা পাচারকাণ্ডে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরাকে তলব করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট
  • বুধবার তাঁকে দিল্লির ED অফিসে তলব করা হয়
  • তবে এদিন তিনি দিল্লি যাননি

কয়লা পাচারকাণ্ডে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরাকে তলব করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। বুধবার তাঁকে দিল্লির ED অফিসে তলব করা হয়। তবে এদিন তিনি দিল্লি যাননি। এই নিয়ে তদন্তকারীদের চিঠি পাঠালেন রুজিরা। তাঁর আবেদন, তাঁকে যেন কলকাতার বাড়িতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। 

আরও পড়ুন : Bengal Corona Vaccination: করোনার ভ্যাকসিনেশন নিয়ে নয়া নির্দেশিকা রাজ্যের, জানুন

ইডিকে লেখা চিঠি লিখে রুজিরা আবেদন জানান, যাতে কলকাতায় তাঁর বাড়িতে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। করোনা আবহে তিনি দিল্লি যেতে চান না। কলকাতায় ইডির অফিস রয়েছে উল্লেখ করে রুজিরা এই আবেদন করেছেন। 

চিঠিতে কী লিখেছেন রুজিরা ? 

কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে দেওয়া চিঠিতে রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন, 'করোনার মাঝে আমার দুই সন্তানকে নিয়ে দিল্লিতে যাওয়া বিপজ্জনক। এতে আমার ও সন্তানদের ঝুঁকি থেকে যায়। আপনাদের কাছে অনুরোধ, কলকাতায় আমার নিজের বাড়িতে যদি জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়, সেটা আমার পক্ষে সুবিধেজনক। আর আমি যেটুকু জানি, যে ঘটনা নিয়ে আপনারা তদন্ত করছেন তা এই রাজ্যেরই।' 

ED-কে চিঠি রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের
ED-কে চিঠি রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

প্রসঙ্গত, কয়লা পাচারকাণ্ডে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কেও দিল্লিতে তলব করেছে ED। সম্ভবত ৬ তারিখ দিল্লিতে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে অভিষেককে। এর আগেও এই মামলায় রুজিরাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন ED আধিকারিকরা। আবার CBI-এর তরফে রুজিরাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৮ সদস্যের দলও গঠন করা হয়। 

আরও পড়ুন : অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে যেতে পারে বিশ্বভারতী!

রুজিরাকে তদব নিয়ে ইতিমধ্যেই রাজনৈতিক পারদ চড়তে শুরু করেছে। এই নিয়ে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসের ভার্চুয়াল সভা থেকে অমিত শাহের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন,  'আমাকে একটা ED দেখালে আমি বস্তা ভরে তথ্য দেব। রাজনীতি করলে রাজনৈতিক সৌজন্য রেখে করুন। অভিষেকের সঙ্গে মোকাবিলা করতে হলে রাজনৈতিকভাবে করুন।' অমিত শাহকে নিশানা করে মমতা বলেন, 'এত প্রতিহিংসা পরায়ণ রাজনীতি আগে দেখিনি। মনে রাখুন অমিত শাহ এটা চলতে পারে না।'