scorecardresearch
 

Tilapia Fish Harmful Or Beneficial: উপকারী না ক্ষতিকারক তেলাপিয়া? কীভাবে রাঁধলে গুণ বাড়বে, জেনে রাখুন

Tilapia Fish: মাছের প্রতি বাঙালির ভালোবাসার কথা প্রায় সকলের জানা। ইলিশ, রুই, কাতলা, ভেটকি, পাবদা, পারশে, চিতল, কই, বাটা, মৌরলা ইত্যাধি ছোট- বড় টাটকা মাছ বাজার থেকে কেনার জন্য ভিড় জমে সকাল - সন্ধ্যে।

Advertisement
তেলাপিয়া মাছ তেলাপিয়া মাছ

কথায় বলে 'মাছে-ভাতে বাঙালি'। মাছের প্রতি বাঙালির ভালোবাসার কথা প্রায় সকলের জানা। ইলিশ, রুই, কাতলা, ভেটকি, পাবদা, পারশে, চিতল, কই, বাটা, মৌরলা ইত্যাধি ছোট- বড় টাটকা মাছ বাজার থেকে কেনার জন্য ভিড় জমে সকাল - সন্ধ্যে। বিশেষত উৎসবের আগের দিনগুলিতে মাছের দোকানে ভিড় থাকে চোখে পড়ার মতো। এরকমই এক জনপ্রিয় মাছের নাম তেলাপিয়া। 

অনেকে মনে করেন, এই মাছে কোনও গুণ নেই। তবে কারও কারও আবার ভিন্ন মতও আছে। দামে সস্তা, রান্নাও সহজ আর এতে কাঁটাও বেশ কম। তাই তেলাপিয়া মাছ অনেকেই খান। জানুন মাছ কতটা উপকারী। 

তেলাপিয়া মাছের গুণাগুণ  

* তেলাপিয়া পুষ্টিতে ভরপুর। এতে প্রোটিন, ফসফরাস, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ভিটামিন ইত্যাদি পুষ্টিগুণ রয়েছে। যা, হাড়কে শক্তিশালী রাখার পাশাপাশি হাড়ের ঘনত্ব বজায় রাখতে সাহায্য করে।

* এই মাছ সেলেনিয়াম ভিটামিন সি ও ভিটামিন ই-কে উদ্দীপিত করে। যা, ত্বকের গুণগত মান উন্নত করে ও ত্বকের বলিরেখা দূর করে।

* তেলাপিয়া কম চর্বিযুক্ত এবং খনিজ ও ভিটামিন সমৃদ্ধ। এজন্যে এটি স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। নানা রোগের আটকাতে পারে সহজে।

* এই মাছ সেলেনিয়াম শ্বেত রক্তকণিকার সংখ্যা বৃদ্ধি করে। জীবাণুর ও টক্সিনের কার্যকারিতা নষ্ট করে। ফলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি হয়। সেলেনিয়াম থাইরয়েডের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে। এছাড়া সেলেনিয়ামে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকে যা, ক্যান্সার কোষকে ধ্বংস করতে পারে।

* তেলাপিয়া খেলে হাড়ের গঠন ভাল হয়। এই মাছে এমন অনেক পুষ্টি উপাদান রয়েছে, যা হাড়ের জন্য উপকারী হতে পারে। 

* মেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড তেলাপিয়া মাছে পাওয়া যায়, যা মস্তিষ্কের জন্য উপকারী। ওমেগা -৩ ফ্যাটি অ্যাসিডে নিউরোপ্রোটেক্টিভ বৈশিষ্ট্য রয়েছে। যা, আলজেইমারস এবং পারকিনসন্স জাতীয় রোগ আটকাতে ভাল। 

Advertisement

তেলাপিয়া কি ক্ষতিকারক?

বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রাকৃতিক উপায়ে পুকুরে জন্মানো তেলাপিয়া মাছ খুবই উপকারী এবং এতে নানা গুণ থাকে। তবে বর্তমানে বাজারে যে তেলাপিয়া পাওয়া যায়, তার অধিকাংশই ভেরিতে চাষ হওয়া। সেখানে খাবার হিসাবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেওয়া হয়, হাঁস-মুরগির বিষ্ঠা। এই খাবার খেয়ে রোগজীবাণু শরীরে বয়ে বেড়ায় তেলাপিয়া। ফলে এই ধরনের মাছ খেলে নানা শারীরিক সমস্যা হতে পারে অনেকের। 

কীভাবে এই মাছ খেলে ক্ষতি হবে না? 

এই মাছ এমন ভাবে খেতে হবে যাতে কোনও শারীরিক সমস্যা না হয়। তাই বিশ্বস্ত এবং চেনা জায়গা ছাড়া এই মাছ কেনা উচিত নয়। তেলাপিয়া মাছ কেনার পরে প্রথমে গরম জল দিয়ে ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে। মাছের পেট, কানকো ভাল করে পরিষ্কার করতে হবে। এরপর নুন ও হলুদ দিয়ে ম্যারিনেট করতে হবে। নুন ও হলুদ মাছের রোগ-জীবাণু দূর হবে। মাছ ভাজা, প্যান ফ্রায়েড বা বেক করা যায়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, খাওয়ার আগে তেলাপিয়া ভাল করে রান্না করতে হয়। 
 

Advertisement