scorecardresearch
 

Durga Puja 2021 : কৃষ্ণকলি আর চম্পাকলি, পুজোয় কে সি দাশের 'মিষ্টি' উপহার

Durga Puja 2021: দু'টি মিষ্টিই বেশ বড়সড় আকারের। দেখলেই কামড় বসাতে ইচ্ছা করবে! পুজো (Durga Puja)-য় এটা কে সি দাশ (K C Das)-এর 'মিষ্টি' উপহার।

কৃষ্ণকলি এবং চম্পাকলি। ছবি সৌজন্য: ধীমান দাশ কৃষ্ণকলি এবং চম্পাকলি। ছবি সৌজন্য: ধীমান দাশ
হাইলাইটস
  • দুর্গাপুজোর সময় বিভিন্ন রকম মিষ্টি আসে বাজারে
  • বলা যেতে পারে, সে সময় নতুন নতুন মিষ্টি আনার জন্য দীর্ঘ সময় ধরে প্রস্তুতি নেন বিক্রেতারা
  • এবার পুজোয় কে সি দাশ তেমনই উপহার নিয়ে হাজির রয়েছে

Durga Puja 2021: দুর্গাপুজো (Durga Puja)-র সময় বিভিন্ন রকম মিষ্টি আসে বাজারে। বলা যেতে পারে, সে সময় নতুন নতুন মিষ্টি আনার জন্য দীর্ঘ সময় ধরে প্রস্তুতি নেন মিষ্টি বিক্রেতারা। এবার পুজো (Durga Puja)-য় কে সি দাশ (K C Das) তেমনই উপহার নিয়ে হাজির রয়েছে।

কৃষ্ণকলি এবং চম্পাকলি
কলকাতার বিখ্যাত মিষ্টি ব্যবসার প্রতিষ্ঠান কে সি দাশ (K C Das) এনেছে দু'টি মিষ্টি। একটির নাম চম্পাকলি, অন্যটি কৃষ্ণকলি। পুজো (Durga Puja) উপলক্ষে তাদের এই আয়োজন।

আরও পড়ুন: জাতীয় পতাকায় পরিবর্তন চেয়েছিলেন সত্যজিৎ, কারণ জানেন?

কোনটি কেমন?
চম্পাকলি রসের মিষ্টি। ছানার তৈরি। মাঝখান সন্দেশের পুর দেওয়া রয়েছে। এটি তাঁদের বেঙ্গালুরর দোকানে মেলে। এবার কলকাতাও তার স্বাদ পাবে। দাম ৩০ টাকার মতো।

Durga_Puja_2021_Champakali_and_Krishnakali_gift_from_K_C_Das_abk_five

আর দ্বিতীয়টি মানে কৃষ্ণকলিকে বলা যেতে পারে চম্পাকলির আরও একটা ধরন। এটি ভাজা মিষ্টি। পান্তুয়া ধরনের। এটিতেও ভেতরে ফিলিং একই। জানাচ্ছিলেন কে সি দাশ (K C Das)-এর কর্ণধার ধীমান দাস।

দু'টি মিষ্টিই বেশ বড়সড় আকারের। দেখলেই কামড় বসাতে ইচ্ছা করবে! পুজো (Durga Puja)-য় এটা কে সি দাশ (K C Das)-এর 'মিষ্টি' উপহার। 

সাহেবের রসগোল্লা!
দিন কয়েক আগে ভারতে ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্য়ালেক্স এলিস। এসেছিলেন কলকাতার কে সি দাশের রসগোল্লা খেতে। রসগোল্লা খাওয়ার পর নিজের অভিজ্ঞতা লিখেছেন টুইটারে। তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করেছেন। আরও চমক আছে। তিনি বাংলায় টুইট করেছেন। কলকাতার মিষ্টিকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন।

Durga_Puja_2021_Champakali_and_Krishnakali_gift_from_K_C_Das_abk_nine

এরপর রসমালাই
কে সি দাসের কর্ণধার ধীমান দাশকে বলেন, "অসাধারণ।" এরপর জানতে চান অসাধারণের বাইরে আর কী থাকতে পারে। তখন তাঁকে দেওয়া হয় রসমালাই। এবং সেই রসমালাই খেয়ে তিনি প্রশংসা করার শব্দ খুঁজে পাচ্ছিলেন না।

পুজোয় মিষ্টি
এ কথা বলা অপেক্ষা রাখে না, মিষ্টি ছাড়া দুর্গাপুজো (Durga Puja) অসম্পুর্ণ। ছোট হোক বা বড়, সবার ক্ষেত্রেই এই কথা সমান ভাবে প্রযোজ্য। মিষ্টিমুখ ছাড়া উৎসব হয়! তাই প্রবীণদের কথা ভেবে অনেক দোকানে পুজোর সময় (Durga Puja) মিষ্টি তৈরি করা হয় চিনি ছাড়া।

তা সে রসগোল্লা হোক বা সন্দেশ। স্বাদও নেওয়া যাবে, আবার স্বাস্থ্য নিয়েও চিন্তা করতে হবে না। এবারও তার আলাদা নয়। ক্রেতাদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন মিষ্টির দোকানে মিলছে চিনি ছাড়া বিভিন্ন রকমের মিষ্টি।