scorecardresearch
 

How To Get Back Taste During Fever : জ্বরে জিভের স্বাদ চলে গেছে? ৩ উপায়ে মুখে আসবে রুচি

জ্বর হলে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। যার জেরে শরীরে হতে থাকে তীব্র অস্বস্তি। জ্বর হলে শরীর দুর্বল তো হয়ই, তাছাড়াও আরও অনেক রকমের সমস্যা দেখা দেয়। যার মধ্যে অন্যতম মুখের স্বাদ চলে যাওয়া। অর্থাৎ জ্বরে আক্রান্ত হলে কোনও খাবারেরই স্বাদ পাওয়া যায় না। সবকিছুই তেঁতো লাগে। তাই খাবার খাওয়ার ইচ্ছাও থাকে না। অনেক সময় চিকিৎসকের পরামর্শ মতো ওষুধ খেয়ে সেই স্বাদবোধ ফেরাতে হয়। তবে কিছু ঘরোয়া উপায়েও মুখের স্বাদ ফিরিয়ে আনা যেতে পারে।

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • জ্বরে আক্রান্ত হলে মুখের স্বাদ চলে যায়
  • কিছু খেতে ইচ্ছা করে না
  • এভাবে ফিরিয়ে আনুন রুচি

জ্বর যে কোন ঋতুতে আসতে পারে। কিন্তু পরিবর্তনশীল ঋতুতে জরের আক্রমণ অনেকাংশে বেড়ে যায়। যেমন এই যে শীতের শুরুতে অনেকেই জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন। জ্বর হলে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। যার জেরে শরীরে হতে থাকে তীব্র অস্বস্তি। জ্বর হলে শরীর দুর্বল তো হয়ই, তাছাড়াও আরও অনেক রকমের সমস্যা দেখা দেয়। যার মধ্যে অন্যতম মুখের স্বাদ চলে যাওয়া। অর্থাৎ জ্বরে আক্রান্ত হলে কোনও খাবারেরই স্বাদ পাওয়া যায় না। সবকিছুই তেঁতো লাগে। তাই খাবার খাওয়ার ইচ্ছাও থাকে না। অনেক সময় চিকিৎসকের পরামর্শ মতো ওষুধ খেয়ে সেই স্বাদবোধ ফেরাতে হয়। তবে কিছু ঘরোয়া উপায়েও মুখের স্বাদ ফিরিয়ে আনা যেতে পারে। আর সেই সব উপায়ের অন্যান্য উপকারিতাও আছে। এই প্রতিবেদনে সেই উপায়গুলি নিয়েই আলোচনা করা হবে। 

টমেটো স্যুপ
টমেটোর স্যুপ খেতে খুবই সুস্বাদু। তাছাড়া এটি ভিটামিনে সমৃদ্ধ হওয়ায় স্বাস্থ্যের জন্যও সমান উপকারী বলে মনে করা হয়। জ্বরে এই সবজির স্যুপ পান করলে মুখে তেঁতোভাব চলে যায়। এছাড়াও এই স্যুপ জ্বর সারাতেও সাহায্য করে। এক্ষেত্রে জ্বরে আক্রান্ত হলে দিনে এক বা দুই কাপ, টমেটোর স্যুপ খেতে পারেন। তাতে ভীষণ উপকার পাবেন।

নুন জলে গার্গেল
জ্বর এলে মুখের স্বাদ খুব খারাপ হয়ে যায়। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে নুন জল দিয়ে গার্গল করতে পারেন। হালকা গরম জলে নুন দিয়ে গার্গেল করুন। এভাবে দিনে ২ থেকে ৩ বার করলে নুনের অ্যান্টিসেপটিক গুণের কারণে মুখের ব্যাকটেরিয়া মারা যাবে এবং ভাল ফল মিলবে। তাছাড়া এতে গলা ব্যথারও উপশম হবে।

অ্যালোভেরার রস
অ্যালোভেরা সাধারণত ত্বকের সৌন্দর্যের জন্য ব্যবহার করা হয়। তবে শরীরে জ্বর থাকলেও এটি ব্যবহার করা যেতে পারে। অ্যালোভেরার রসে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল গুণাবলী সহজেই মুখের তেঁতোভাব দূর করতে সাহায্য করে। তাই ট্রাই করে দেখতে পারেন।

আরও পড়ুন - SBI-তে বিনা পরীক্ষায় চাকরির সুযোগ, বেতন ১৯.৫০ লক্ষ টাকা

 

 
; ; ;