scorecardresearch
 

High Cholesterol: এই খাবারগুলি বাড়ায় কোলেস্টেরল, এখনই না ছাড়লে পরে বিপদ

High Cholesterol: স্নায়ু কোষকে রক্ষা করতে, ভিটামিন তৈরি করতে এবং হরমোন তৈরি করতে কাজ করে। অনেক খাবার রয়েছে যেগুলি খেলে শরীর কোলেস্টেরল পায়, যেমন মাংস এবং দুগ্ধজাত খাবার। আমাদের শরীরে প্রধানত দুই ধরনের কোলেস্টেরল পাওয়া যায় - উচ্চ ঘনত্বের লিপোপ্রোটিন (HDL) এবং নিম্ন ঘনত্বের লাইপোপ্রোটিন (LDL) কোলেস্টেরল।

কোলেস্টেরল বৃদ্ধি করে। প্রতীকী ছবি কোলেস্টেরল বৃদ্ধি করে। প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • এই খাবারগুলি বাড়ায় কোলেস্টেরল
  • এখনই না ছাড়লে পরে বিপদ
  • জানুন বিস্তারিত তথ্য

High Cholesterol Worst Foods: সুস্থ শরীরের জন্য প্রচুর কোলেস্টেরল প্রয়োজন। কোলেস্টেরল কোষ গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এটি স্নায়ু কোষকে রক্ষা করতে, ভিটামিন তৈরি করতে এবং হরমোন তৈরি করতে কাজ করে। অনেক খাবার রয়েছে যেগুলি খেলে শরীর কোলেস্টেরল পায়, যেমন মাংস এবং দুগ্ধজাত খাবার। আমাদের শরীরে প্রধানত দুই ধরনের কোলেস্টেরল পাওয়া যায় - উচ্চ ঘনত্বের লিপোপ্রোটিন (HDL) এবং নিম্ন ঘনত্বের লাইপোপ্রোটিন (LDL) কোলেস্টেরল।

এলডিএল কোলেস্টেরল অর্থাৎ নিম্ন ঘনত্বের লাইপোপ্রোটিনকে খারাপ কোলেস্টেরলও বলা হয়। উচ্চ মাত্রায় এলডিএল কোলেস্টেরল থাকলে হৃদরোগ বা স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ে। অন্যদিকে, এইচডিএল কোলেস্টেরল ভালো কোলেস্টেরল নামে পরিচিত। এটি আপনার রক্ত ​​থেকে লিভারে খারাপ কোলেস্টেরল সরিয়ে দেয়। এছাড়াও HDL কোলেস্টেরল আপনার শরীরকে বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যা থেকে রক্ষা করে।

LDL কোলেস্টেরল খারাপ কেন?

এলডিএল কোলেস্টেরল বৃদ্ধির ফলে রক্তনালীতে কোলেস্টেরল জমে যায়। যার কারণে এর প্রভাব পড়ে হার্টে রক্ত ​​বহনকারী রক্তনালীতে। রক্তনালিতে অত্যধিক কোলেস্টেরল জমার কারণে রক্তের প্রবাহ অনেক কমে যায়, যার কারণে আপনাকে হৃদরোগ বা স্ট্রোকের মতো নানা ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। শরীরে এলডিএল কোলেস্টেরল বৃদ্ধির প্রধান কারণ ধূমপান, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস এবং উচ্চ চর্বিযুক্ত খাবার। ট্রাইগ্লিসারাইড নামক চর্বি আমাদের শরীরে পাওয়া যায়। যখন ট্রাইগ্লিসারাইড এবং এলডিএল কোলেস্টেরলের মাত্রা বেশি থাকে এবং এইচডিএল কোলেস্টেরল কম থাকে, তখন রক্তনালীতে প্লাক তৈরি হয়।

এছাড়াও, উচ্চ চর্বিযুক্ত খাবারে রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়াতে পারে। এই খাবারগুলি রক্তে এলডিএল কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়াতে কাজ করে। রক্তে এলডিএল কোলেস্টেরলের উচ্চ মাত্রা রক্তনালীতে বাধা সৃষ্টি করে, যা হৃদরোগ এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ায়। এই জন্য কিছু খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলুন।

চকোলেট - চকোলেটৈ স্প্রেডে প্রচুর পরিমাণে চিনি এবং স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকে।দুধ এবং সাদা চকোলেটেও উচ্চ মাত্রার স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকে, যা আপনার কোলেস্টেরলের জন্য খারাপ বলে মনে করা হয়। মিষ্টি খেতে ভালো লাগলে ডার্ক চকলেট খেতে পারেন।

পনির - পনিরে স্যাচুরেটেড ফ্যাটের পরিমাণ খুব বেশি। বিশেষ করে পনির ফুল ফ্যাট মিল থেকে তৈরি হয়। যদিও অল্প পরিমাণে পনির খাওয়া আপনার জন্য বিপজ্জনক নয়, তবে এটি খুব বেশি খাওয়া কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়।

ফ্রাইড ফাস্ট ফুড- ফ্রেঞ্চ ফ্রাই বা ফ্রাইড চিকেনের মতো গভীর ভাজা ফাস্ট ফুডে স্যাচুরেটেড ফ্যাট, লবণ এবং উচ্চ ক্যালোরি থাকে। এগুলি আপনার কোলেস্টেরলের মাত্রার জন্য খারাপ বলে মনে করা হয়। নিয়মিত ভাজা ফাস্ট ফুড খাওয়ার ফলে এইচডিএল কোলেস্টেরলের মাত্রা কমতে শুরু করে এবং এলডিএল কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়তে থাকে। শরীরে স্বাস্থ্যকর কোলেস্টেরলের মাত্রা বজায় রাখতে, সীমিত পরিমাণে ফাস্ট ফুড খান।

মাখন - মাখনে উচ্চ পরিমাণে স্যাচুরেটেড ফ্যাট পাওয়া যায়, যা আপনার শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। খাবারে মাখনের পরিবর্তে অলিভ অয়েল ব্যবহার করতে পারেন।

ক্রিম- ফুল ফ্যাট দুধ দিয়ে তৈরি ভারী ক্রিমে স্যাচুরেটেড ফ্যাটের পরিমাণ খুব বেশি থাকে। বাজারে পাওয়া হুইপড ক্রিমও আপনার জন্য ক্ষতিকর প্রমাণিত হতে পারে। ক্যালরি বাড়ানোর পাশাপাশি এটি কোলেস্টেরলের মাত্রাও বাড়ায়।

প্যাকেটজাত খাবার- প্যাকেটজাত স্ন্যাকস এবং চিপস, ডোনাট, কেক, বিস্কুট এবং কুকির মতো মিষ্টিতে স্যাচুরেটেড ফ্যাট এবং ক্যালোরি বেশি থাকে। আপনি যদি এই জিনিসগুলির যে কোনও একটি নিয়মিত খান, তাহলে কোলেস্টেরলের মাত্রা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেতে পারে। বিষদে এই বিষয়ে জানতে আপনি চিকিৎসকের সাহায্য নিন।