scorecardresearch
 

অনুন্নয়নই আশীর্বাদ বাংলাদেশের! গঙ্গার দূষণে ইলিশ ছুটছে দূষণমুক্ত পদ্মায়

তাঁদের মতে, ডিম সংরক্ষিত রাখার জন্য ইলিশের মিষ্টি জলের প্রয়োজন হয়। সে জন্যই তারা গঙ্গায় আসে। কিন্তু দূষণের ফলে গঙ্গায় লবণের মাত্রা অত্যাধিক বেড়ে যাওয়ার কারণেই ইলিশ এখন গঙ্গার মোহনায় এসেও ফিরে যাচ্ছে।

মোহনায় এসেও ফিরে যাচ্ছে ইলিশ মোহনায় এসেও ফিরে যাচ্ছে ইলিশ
হাইলাইটস
  • গঙ্গায় দূষণ, ইলিশ পালাচ্ছে
  • ইলিশ ছুটছে মায়ানমার, বাংলাদেশে
  • গঙ্গার জলে লবণের পরিমাণ বাড়ছে

গঙ্গায় দূষণ কেড়ে নিচ্ছে ইলিশ। গবেষণায় একথাই বলছে। লাগাতার দূষণে স্বচ্ছ জলের অভাব ইলিশের বর্ষাকালীন অভিসারের এলাকা বদলে ঠেলে দিচ্ছে মায়ানমারের দিকে। কিছুটা পৌঁছচ্ছে পদ্মার উপকূলে। হতাশ ভারতীয় মৎস্যজীবীরা। বিশেষ করে বাঙালি ইলিশপ্রেমীরা।

অনুন্নয়নই আশীর্বাদ বাংলাদেশের!

পশ্চিমবঙ্গ বরবারই ব্রিটিশ আমল থেকে উন্নয়নের কাণ্ডারি। আগে তো রাজধানীই ছিল দেশের। ফলে লাগাতার উন্নয়নের মূল্য চোকাতে গিয়ে গঙ্গার দূষণ বাড়ছে। আর সেই দূষণ এড়াতে ইলিশ ছুটছে দূষণমুক্ত পদ্মায়। পদ্মার পারে এখনও সেভাবে ব্যাপক হারে উন্নয়নের জোয়ার বয়নি। এমন দাবি তাদের দেশের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমেই। ফলে তাঁরা এখন ইলিশের সুফল ভোগ করছে।

দূষণই কাল, বিমুখ ইলিশ

গঙ্গা মোহনায় কিছুতেই মিলছে না ইলিশের দেখা। হা-হুতাশ করছেন পশ্চিমবঙ্গের মৎস্যজীবীরা। বিশেষজ্ঞদের মতে, গঙ্গায় দূষণের মাত্রা এতটাই বেড়ে গেছে যে, মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে মাছের রাজা ইলিশ। ফলে ঝাঁকে ঝাঁকে রূপালি মাছের অভিমুখ এখন বাংলাদেশের মায়ানমার-বাংলাদেশ বলে জানা গিয়েছে।

আগামীতে আরও খারাপ হবে অবস্থা

সম্প্রতি এই বিষয়ে একটি প্রতিবেদন পেশ করেছে সাউথ এশিয়া নেটওয়ার্ট অফ ড্যাম রিভার অ্যান্ড পিপলস। যেখানে গঙ্গায় ইলিশের দেখা না পাওয়ার কারণ হিসেবে দূষণকেই বেশি মাত্রায় দায়ী করা হয়েছে। ওই প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, গঙ্গা থেকে অচিরেই উধাও হয়ে হতে চলেছে মাছের রাজা ইলিশ।

লাগাতার দূষণও সমস্যা বাড়াচ্ছে

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পশ্চিমবঙ্গে নদীর পাড় বরাবর গড়ে ওঠা বিভিন্ন সংস্থা, শহর, জনপদের ময়লা, আবর্জনা ও কল-কারখানার বর্জ্যে গঙ্গায় দূষণ মাত্রা ছাড়িয়েছে। ফলে সমস্যা আরও বাড়বে।

মিষ্টি জল ছাড়া ইলিশের ডিম পাড়া না পসন্দ

বিশেষজ্ঞদের মতে, ডিম পাড়ার জন্য ইলিশের মিষ্টি জল খোঁজে সেজন্যই তারা গঙ্গায় আসে। কিন্তু দূষণের ফলে গঙ্গায় লবণের মাত্রা অত্যাধিক বেড়ে যাওয়ার কারণেই ইলিশ এখন গঙ্গার মোহনায় এসেও লবণের মাত্রা দেখে ফিরে যাচ্ছে।

গড়ে ১৯ শতাংশ ইলিশ বেশি ধরা পড়েছে বাংলাদেশে

অন্যদিকে গঙ্গা থেকে মুখ ঘুরিয়ে নিয়ে ইলিশের অভিমুখ এখন মূলত মায়ানমার ও বাংলাদেশ দিকে বলেই উল্লেখ করছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো। পদ্মা পাড়ে এখন জাল ফেললেই ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ। বাংলাদেশের মৎস্য বিভাগের এক পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, গত ২ বছরের তুলনায় বাংলাদেশে ১৯ শতাংশ ইলিশ বেশি ধরা পড়েছে। শুধু পদ্মাই নয়, মায়ানমার উপকূলেও এখন দেখা মিলছে প্রচুর ইলিশের।

 

 
; ; ;