scorecardresearch
 
 

পুরুষদের এই ৫টি শারীরিক সমস্যা কখনওই এড়িয়ে যাওয়া উচিৎ নয়, তাহলেই বিপদ

পরিসংখ্যান বলছে মহিলাদের তুলনায় পুরুষরা অনেকটাই কম চিকিৎসকের কাছে যান। কিন্তু অনেক সময় এই ধরনের সামান্য সমস্যাগুলিই বড় আকার ধারণ করে এবং প্রাণঘাতী হয়ে ওঠে। এক্ষেত্রে চিকিৎসকরা বলছেন, কিছু কিছু লক্ষণ একেবারেই অবহেলা করা উচিত নয় পুরুষদের। 

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • পুরুষদের প্রস্রাবে সমস্যা হলে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া উচিৎ
  • গোপনাঙ্গে গাঁট হলে অবহেলা নয়
  • ব্যক্তিত্বে পরিবর্তন এলে গুরুত্ব দিন

সাধারণত শরীরে ছোটখাটো কোনও সমস্যা হলে বিশেষ গুরুত্ব দেন না পুরুষরা। পরিসংখ্যান বলছে মহিলাদের তুলনায় পুরুষরা অনেকটাই কম চিকিৎসকের কাছে যান। কিন্তু অনেক সময় এই ধরনের সামান্য সমস্যাগুলিই বড় আকার ধারণ করে এবং প্রাণঘাতী হয়ে ওঠে। এক্ষেত্রে চিকিৎসকরা বলছেন, কিছু কিছু লক্ষণ একেবারেই অবহেলা করা উচিত নয় পুরুষদের। 

প্রস্রাবে সমস্যা - প্রস্রাবের সময় সমস্যা বা ব্যাথা অনুভব হলে তা প্রোস্টেট ক্যান্সারের সংকেত হতে পারে। যেহেতু প্রোস্টেট ক্যান্সারের সূচনা অত্যন্ত ধীরে ধীরে হয় তাই এটি কোনওভাবেই অবহেলা করা উচিত নয়। প্রোস্টেট বড় হয়ে গেলে প্রস্রাবে সমস্যা দেখা দেয়। ৫০-র বেশি বয়সি পুরুষদের দেহে এই সমস্যা বেশি করে দেখা দেয়। তাই যদি আপনার প্রস্রাবে সমস্যা হয় এবং বারংবার বাথরুমে যেতে হয় তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 

শরীরে তিলের পরিবর্তন - তিল থেকে চর্ম ক্যান্সার হতে পারে। বেশিরভাগ মানুষই এই পরিবর্তনটা বুঝতে পারেন না। যদি তিলের আকার ও রং পরিবর্তিত হতে থাকে তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করা দরকার। বিশ্বে মহিলাদের তুলনায় পুরুষরাই চর্ম ক্যানসারের শিকার বেশি পরিমানে হন। এর নেপথ্যে বেশকিছু কারণও রয়েছে, যার অন্যতম পুরুষরা অনেক বেশি সময় রোদের মধ্যে কাজ করেন এবং তাঁদের মধ্যে সানস্ক্রিন ব্যবহারের পরিমানও কম। 

গোপনাঙ্গে গাঁট - যদি আপনার গোপনাঙ্গে কোনওরকম গাঁট তৈরি হয় তাহলে তা একেবারেই অবহেলা করবেন না। এটিও এক ধরনের ক্যান্সারের লক্ষণ হতে পারে। সাধারণত ১৫ থেকে ৪৯ বছরের মধ্যে যুবকদের মধ্যেই টেস্টিক্যুলার ক্যান্সারের লক্ষণ দেখা যায়। চলতি বছরেই এই ধরনের নতুন ২,৩০০টি কেস সামনে এসেছে। এই ধরনের ক্যান্সারে অন্ডকোষে ব্যাথা হতেও পারে, নাও পারে। তাই এর আকারে কোনও পরিবর্তন আসছে কি না সেটি অবশ্যই দেখা দরকার। 

বুকে ব্যাথা - পেশিতে ব্যাথা বা হজমে সমস্যা হলে বুকে ব্যাথা হতে পারে। তবে এমনটা যদি প্রায়শই হয় এবং সঙ্গে বুকে জ্বালা অনুভব করেন তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলুন। এটি পেট বা গলায় ক্যান্সার কিংবা হার্ট সংক্রান্ত রোগের সংকেত হতে পারে। মহিলাদের তুলনায় পুরুষদের মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পরিমান বেশি। তাই বুকে কী ধরনের ব্যাথা হচ্ছে সেটি লক্ষ্য করুন এবং চিকিৎসকে জানান। 

মেজাজ ও ব্যক্তিত্বে পরিবর্তন - মেজাজে পরিবর্তন মানসিক অবসাদের লক্ষণ হতে পারে। বিশ্বে ৪৫ বছরের কম পুরুষদের মধ্যে মানসিক অবসাদের জেরে আত্মহত্যার পরিমান সবচেয়ে বেশি। তবে সবসময়ই যে মানসিক অবসাদের কারণেই মেজাজের পরিবর্তন হয় এমনটা নয়। সেক্ষেত্রে ব্যক্তিত্বে যদি কোনও পরিবর্তন লক্ষ্য করেন তবে বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখুন।