scorecardresearch
 

খোলা আকাশে ভাসছেন মহাকাশচারী, NASA-র হাড় হিম করা VIDEO

খোলা আকাশে ভাসছেন মহাকাশচারী। কোনওরকম সাপোর্ট নেই, মহাকাশ যানের সঙ্গে দড়ি বা তার কিছুই নেই। NASA-র হাড় হিম করা ছবি প্রকাশ্যে এসেছে।

ছবিতে দেখা এই দৃশ্যই হাড় হিম করে দিয়েছে ছবিতে দেখা এই দৃশ্যই হাড় হিম করে দিয়েছে
হাইলাইটস
  • সাপোর্ট ছাড়াই অন্তরীক্ষে ভাসছেন মহাকাশযাত্রী
  • NASA-র সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ছবি প্রকাশ্যে,
  • ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও

ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে যাওয়া এই ছবি মহাকাশে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ছবি বলে বর্ণনা করা হচ্ছে। এই ছবি দেখে প্রত্যেকেই শুধু হয়রান হয়েছেন তা নয়, সঙ্গে সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছেন। এই ছবি প্রায় চার দশক পুরনো। নাসা ফেব্রুয়ারি ১৯৮৪ সালে এ ছবি নিয়েছিল।

এই ভিডিওতে সাদা রঙের স্পেস স্যুট পড়ে এক অন্তরীক্ষ যাত্রীকে অন্তরীক্ষ যান থেকে দূরে স্পেসে সাঁতার কাটতে দেখা যাচ্ছে। পায়ের নীচে নীল পৃথিবী দেখা যাচ্ছে। এ রকম পদক্ষেপ যে কোনও অন্তরীক্ষ যাত্রীর জন্য অত্যন্ত মুশকিল। নাসা এই ছবির টাইটেল ফ্রি ফ্লোটিং দিয়েছে। নাসার বক্তব্য যে এই সমস্ত ফ্লোটিং লাগানোর জেটপ্যাক এর কারণে সম্ভব হতে পেরেছে। যাকে ম্যানড ম্যানিউভারিং ইউনিট বলা হয়।

ছবি

ম্যাককন্ডেলেস স্পেসের কাছে ১৩৪ পাউন্ডের এমএমইউ টেস্ট করেন। এরপর তিনি স্পেস শাটল থেকে ৩২০ দূর পর্যন্ত খোলা অন্তরীক্ষে সাঁতার কাটেন। এরপর তিনি অন্তরীক্ষে কোনও তার, বা দড়ির সাহায্য ছাড়াই সাঁতার কেটেছেন। যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সেটি নীচে দেখুন।

এমএমইউ-এর রূপে নাইট্রোজেন দিয়ে চলা জেটপ্যাক এবং যেটি অন্তরীক্ষ যাত্রীদের অন্তরীক্ষে স্বচ্ছন্দে ঘোরাফেরা এবং মুভমেন্ট-এ সাহায্য করে।

২১ ডিসেম্বর ২০১৭তে ৮০ বছর বয়সে ব্রুস ম্যাকক্যান্ডেলেন্স এর মৃত্যু হয়ে যায়।