scorecardresearch
 

Shaheen Shah Afridi: আবারও বিতর্কে পাকিস্তান ক্রিকেট দল, দলের কোচের সঙ্গেই দুর্ব্যবহার এই তারকা ক্রিকেটারের

পাকিস্তানি মিডিয়া সামা নিউজের একটি প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে যে গত মাসে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সময় শাহিন এই লজ্জাজনক কাজ করেছিলেন। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) কাছে এ নিয়ে অভিযোগ করেছেন কোচ গ্যারি কার্স্টেন ও আজহার মাহমুদ।

Advertisement
আবারও বিতর্কে পাকিস্তান ক্রিকেট দল, দলের কোচের সঙ্গেই দুর্ব্যবহার এই তারকা ক্রিকেটারের আবারও বিতর্কে পাকিস্তান ক্রিকেট দল, দলের কোচের সঙ্গেই দুর্ব্যবহার এই তারকা ক্রিকেটারের
হাইলাইটস
  • পাকিস্তান ক্রিকেট দলে বিতর্ক থামার কোনও লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না
  • শাহিন শাহ আফ্রিদির বিরুদ্ধে কোচিং স্টাফের সঙ্গে খারাপ আচরণের অভিযোগ

পাকিস্তান ক্রিকেট দলে বিতর্ক থামার কোনও লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। কখনও বাজে পারফরম্যান্সের কারণে আবার কখনও খেলোয়াড়দের মধ্যে বিভেদের কারণে শিরোনামে এসেছে পাকিস্তান দল। এবার দলে যোগ দিয়েছে নতুন বিতর্ক। পাকিস্তানি ফাস্ট বোলার শাহিন শাহ আফ্রিদির বিরুদ্ধে কোচিং স্টাফের সঙ্গে খারাপ আচরণের অভিযোগ উঠেছে। পাকিস্তানি মিডিয়া সামা নিউজের একটি প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে যে গত মাসে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সময় শাহিন এই লজ্জাজনক কাজ করেছিলেন। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) কাছে এ নিয়ে অভিযোগ করেছেন কোচ গ্যারি কার্স্টেন ও আজহার মাহমুদ। 

গ্যারি ও মাহমুদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার

দলের সিনিয়র ম্যানেজার ওয়াহাব রিয়াজ ও ম্যানেজার মনসুর রানাও তাঁকে সমর্থন করেছেন বলে দাবি করা হয়েছে। তার মানে দুজনেই অভিযোগ করেও এ বিষয়ে কিছু বলেননি। এ কারণেই ওয়াহাব ও মনসুরকে সাসপেন্ড করেছে পিসিবি। প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, ২০২৪ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গ্যারি কার্স্টেন এবং সহকারি কোচ আজহার মাহমুদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছিলেন শাহিন। অন্যদিকে, ওহাব ও মনসুরও তাঁকে ভুল পথে পরিচালিত করেছিলেন। গ্যারি এবং আজহার পিসিবিতে তাঁদের অভিযোগে, খেলোয়াড়দের একে অপরের বিরুদ্ধে লবিং করার কথাও বলেছেন।

পাকিস্তানি বোর্ডের ওপরও ক্ষুব্ধ শাহিন আফ্রিদি

গত বছর ভারতে আয়োজিত ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর থেকেই পাকিস্তান দলের লজ্জাজনক পারফরম্যান্স চলছে। ওয়ানডে বিশ্বকাপেও গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে পড়ে পাকিস্তান দল। এরপর শাহিনকে টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক করে পিসিবি। তা সত্ত্বেও দলের পারফরম্যান্স খারাপই ছিল। এমনকি নিউজিল্যান্ড সফরে শাহিনের অধিনায়কত্বে পাকিস্তান দল বাজেভাবে পরাজিত হয়েছিল। এমতাবস্থায় পিসিবি আবারও ব্যবস্থা নেয় এবং শাহিনের কাছ থেকে অধিনায়কত্ব ছিনিয়ে নিয়ে আবার বাবরের হাতে দায়িত্ব তুলে দেয়। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, পিসিবির এই সিদ্ধান্তে দারুণ ক্ষুব্ধ হন শাহিন। গ্যারি বলেছিলেন, 'পাকিস্তানি দলে ঐক্য নেই, এ কারণেই খেলোয়াড়দের মধ্যে বিরোধ।' গ্যারি কার্স্টেন ইতিমধ্যেই পাকিস্তান দলে বিভাজন এবং খেলোয়াড়দের লবিং নিয়ে কথা বলেছেন। ২০২৪ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্ব থেকে ছিটকে যাওয়ার পরেই একথা বলেছিলেন গ্যারি। ২০১১ সালে ওডিআই বিশ্বকাপে ভারতকে চ্যাম্পিয়ন করা গ্যারি পাকিস্তানি দলের সমালোচনা করতে কোনও কসরত রাখেননি।

Advertisement

পাকিস্তানের 'জং' পত্রিকার ওয়েবসাইট কার্স্টেনকে উদ্ধৃত করে বলেছে, 'পাকিস্তান দলে কোনও ঐক্য নেই। তারা এটিকে একটি দল বলে, তবে এটি একটি দল নয়। খেলোয়াড়রা একে অপরকে সমর্থন করছে না। প্রত্যেকেই আলাদা। আমি অনেক দলের সঙ্গে কাজ করেছি, কিন্তু এমন দল দেখিনি।' 

Advertisement