scorecardresearch
 
 

অচলাবস্থা ইস্টবেঙ্গলে! ১ মাসের বেতন দেওয়ার ঘোষণা মদনের

ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সমর্থকদের বিক্ষোভে এদিন উত্তাল থাকে গোটা ময়দান। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লাঠি চালাতে হয় পুলিশকে। বিষয়টি নিয়ে এদিন ফেসবুক লাইভ করেন তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্র। সেখানে তিনি জানান, ইস্টবেঙ্গল ক্লাবকে গুজরাতের কোম্পানির হাতে তুলে দেওয়া যাবে না!

মদন মিত্র মদন মিত্র
হাইলাইটস
  • ইস্টবেঙ্গলে জারি অচলাবস্থা
  • ১ মাসের বেতন দেওয়ার ঘোষণা মদনের
  • এদিন ঘোষণা করেন মদন

ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সমর্থকদের বিক্ষোভে এদিন উত্তাল থাকে গোটা ময়দান। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লাঠি চালাতে হয় পুলিশকে। বিষয়টি নিয়ে এদিন ফেসবুক লাইভ করেন তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্র। সেখানে তিনি জানান, ইস্টবেঙ্গল ক্লাবকে গুজরাতের কোম্পানির হাতে তুলে দেওয়া যাবে না! পাশাপাশি নিজের একমাসের বেতন দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন তিনি। ঘুরপথে এদিন বহিরাগত ইস্যুটিও তোলেন মদন মিত্র

মদন বলেন, "আমার বাড়ির নিচে ২ হাজার ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সমর্থক দাঁড়ানো। তারা সবাই বলছে, দাদা তুমি লড়াই করো। আমরা সাথে আছি। ওই ২ হাজারের মধ্যে ৫০০-৭০০ মহিলাও আছেন। অন্য কোনও নেতা হলে এতোক্ষণে পুলিশ ডেকে ফেলত। তাদের একটাই দাবি, পশ্চিমবঙ্গের কোনও ক্লাব কোনও কোম্পানিকে বিক্রি করতে দেব না। অভাব আছে। ঠিক আছে কয়েকটা ট্রফি পায়নি। ট্রফি পায়নি বলেই ক্লাব বিক্রি করে দেওয়া হবে। মানে এরপর বিশ্বভারতীর রেজাল্ট খারাপ হলে সেখানে রবীন্দ্রনাথে মূর্তি উড়ে যাবে? আমি কিন্তু তৃণমূল নেতা হিসাবে বলছি না। আমি কিন্তু প্রাক্তন ক্রীড়ামন্ত্রী ছিলাম।"

মদন বলেন, "এই বিক্ষোভ সরকারের বিরুদ্ধে নয়।  আমি কিছু শুনতে চাই না। ইস্টবেঙ্গল ক্লাবকে বিক্রি করতে দেওয়া যাবে না। এই দাবিতে  আমি সমর্থকদের সঙ্গে একমত। আমি তাদের জানাচ্ছি, প্রয়োজন হলে আমি সমর্থকদের পাশে এসে দাঁড়াব। বহিরাগতদের বাংলায় থাকতে দেব না। বহিরাগত বলতে প্লেনে করে যারা এসেছিল, তাদের কথা বলছি। আমি তীব্র প্রতিবাদ করছি। ইস্টবেঙ্গল, মোহনবাগান এবং মহামেডান আমাদের অঙ্গ। আমরা লড়াই করব। কিন্তু ক্লাবকে বিক্রি হতে দেব না। আমি বিধায়ক হিসাবে ঘোষণা করছি, যে আমি একমাসের বেতন ইস্টবেঙ্গলকে দিয়ে দেব। ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের এই অবস্থানকে আমি পুরো সমর্থন করছি। ক্লাব বিক্রি করা যাবে না। কোনও কোম্পানির নামে থাকবে না। আমাদের পশ্চিমবঙ্গের ক্লাব গুজরাতের  কোম্পানি কিনে নেবে তা হয় নাকি?"