scorecardresearch
 

রান রেট অঙ্কে ঝুলছে ভারত-আফগানিস্তান-নিউজিল্য়ান্ড, কীভাবে হিসেব হয় NRR

T20 বিশ্বকাপে এখন নেট রান নিয়ে চর্চা তুঙ্গে উঠেছে। লম্বা টুর্নামেন্টে দেখা যায়, অনেক সময় একের বেশি দল একই পয়েন্টে লিগ টেবল শেষ করে। তখন নেট রান রেট গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। কীভাবে হিসেব হয় নেট রান রেট ?

এগিয়ে নিউজিল্যান্ড এগিয়ে নিউজিল্যান্ড
হাইলাইটস
  • রান রেটে আটকে গ্রুপ টু এর ভবিষ্যৎ
  • সেমিফাইনালের দৌড়ে এগিয়ে নিউজিল্যান্ডই
  • দৌড়ে রয়েছে ভারত ও আফগানিস্তানও

ভারতের সেমিফাইনালের অঙ্ক এখন আটকে রয়েছে নিউজিল্যান্ড-আফগানিস্তান ম্যাচের উপরে। যদিও আফগানিস্তান, নিউজিল্য়ান্ডকে হারালেও ভারতকে রান রেটে এগিয়ে থাকতে হবে। তবে ভারতের পক্ষে একটা সুবিধা, আগে নিউজিল্যান্ড-আফগানিস্তান মুখোমুখি হবে। ফলে ওই ম্যাচের ফল দেখে ভারত তাঁদের শেষ ম্যাচে নামিবিয়ার বিপক্ষে নামতে পারবে। নিউজিল্যান্ড জিতে গেলে কোনও অঙ্কই আর কাজে লাগবে না ভারতের। অন্যদিকে আফগানিস্তান জিতে গেলে সেমিফাইনালের দুয়ার খুলে যাবে ভারতের সামনে। গত দুই ম্যাচে ভারত যেমন দাপট দেখিয়েছে, তা বজায় রাখলেই কেল্লা ফতে।

নেট রান রেট

এর মধ্যে নেট রান নিয়ে চর্চা তুঙ্গে উঠেছে। যে কোনও আইসিসি বহুদলীয় টুর্নামেন্টে কিংবা যে কোনও টুর্নামেন্ট, যেমন আইপিএল, বিগ ব্যাশ, যেখানে দুইয়ের বেশি দল খেলে সেখানে নেট রান রেট একটা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়। লম্বা টুর্নামেন্টে দেখা যায়, অনেক সময় একের বেশি দল একই পয়েন্টে লিগ টেবল শেষ করে। তখন নেট রান রেট গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। রান রেটের বিচারেই এক দল আরেক দলকে টপকে এগিয়ে যায়।

কীভাবে হিসেব হয় রান রেট

কিন্তু এই রান রেট ঠিক কীভাবে বিচার করা হয়, তা আমাদের অনেকেরই জানা নেই। আসুন একটু জানার চেষ্টা করি। রান রেট বিচার করতে গেলে একটি ম্যাচে একটি দলের দুটি ইনিংসই বিচার করতে হয়। অর্থাৎ ব্যাটিং ইনিংসে কত রান করছে সেটা যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনই বোলিং ইনিংসও গুরুত্বপূর্ণ। রান করার পাশাপাশি যত কম উইকেট হারাবে তত রানরেট বাড়বে। আবার বল করে যত দ্রুত বিপক্ষ ইনিংস গুটিয়ে দিতে পারবে, আবার ব্যাট করে যত দ্রুত জয়ের রান সংগ্রহ করতে পারবে, তত চড়চড় করে বাড়বে রান রেট।

রান রেট অঙ্ক

মোট রান / মোট ব্যাট করা ওভার  - মোট দেওয়া রান / মোট কত ওভারে রান দেওয়া হয়েছে = নেট রান রেট

যেমন উদাহরণ স্বরূপ বলা যায়, কোনও দল প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ১২০ রান করেছে। তবে রান রেট হল ৬। এবার যদি বোলিং এর সময় ১৫ ওভারে সব রান দিয়ে দেয়, তাহলে প্রদত্ত রান রেট হবে ৮। তাহলে ওই দলের নেট রান রেট হল -২.০০। আবার যদি বোলিংয়ের সময় ওই দল ১০ ওভারে ১০০ রানে বিপক্ষকে অল আউট করে দেয়, তাহলে দেওয়া রান রেট হল ১০। তাহলে তাদের পক্ষে রান রেট হল +৪.০০।

দুটি দলের পয়েন্ট এক হয়ে গেলে যখন নেট রান রেটের তুল্যমূল্য বিচার হবে, তখন দুজনের মধ্যে হেড টু হেড খেলার হিসেব বিচার করা হবে। হেরে যাওয়া দলের রান রেটকে জিতে যাওয়া দলের রান রেট থেকে বিয়োগ করতে হবে। ওই ম্যাচে জয়ী দলের রান রেট +১.০০ হলে হেরে যাওয়া দলের রান রেট -১.০০ হবে। তবে ব্যবধান দাঁড়ালো ২.০০ রান রেটের।

উইকেট হিসেব হয় না

নেট রান রেটের ক্ষেত্রে উইকেট পড়ার হিসেব করা হয় না। কোনও দল যদি পুরো ওভার না খেলতে পারে, তাহলে ওই দল যে কটি ওভার খেলেছে, তার হিসেব করা হয়। 

যদি কোনও দল প্রথমে ব্য়াট করে ২০ ওভার খেলে নির্দিষ্ট রান করে, তাহলে বিপক্ষ দল পরে ব্য়াট করে যদি কম ওভারে অল আউট হয়ে যায়, তাহলে ওই দল পুরো ওভার খেলার বেনিফিট পেতে পারে। নেট রান রেট বিচারের ক্ষেত্রে তাদের মোট রানকে নির্ধারিত ওভার থেকে বিয়োগ করতে হবে। গোটা টুর্নামেন্টের নেট রান রেট প্রতি ম্যাচে বদলে যায়।

এই মুহূর্তে গ্রুপ-টু

এই মুহূর্তে টি২০ বিশ্বকাপে ভারতের গ্রুপে দারুণ আকর্ষণীয় পর্যায়ে রয়েছে। ভারত এই মুহূর্তে গ্রুপ টেবলে ৩ নম্বরে থাকলেও নেট রান রেটের বিচারে সবার আগে রয়েছে। পাকিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে হারলেও বাকি দুটি ম্যাচে স্কটল্যান্ড ও আফগানিস্তানকে বড় ব্যবধানে হারানোয় তাঁরা অনেকটা এগিয়ে গিয়েছে। এই মুহূর্তে ভারত, নিউজিল্য়ান্ড ও আফগানিস্তান তিন দলের পক্ষেই সেমিফাইনালে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।