scorecardresearch
 

দেশের হয়ে আরও গোল করতে চাই, বলছেন জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক সুনীল ছেত্রী

“ক্যাপ্টেন, লিডার এবং লেজেন্ড” সমর্থকরা এই নামেই তাকে বেশিরভাগ সময় সম্বোধন করে থাকেন। তিনি হলেন ভারতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক (Indian Football Team Captain) সুনীল ছেত্রী (Sunil Chhetri)। জেদ একটুও কমেনি, গলায় আত্মবিশ্বাসের সুর নিয়েই বলছেন ‘দেশের হয়ে আরও গোল করতে চাই’। 

সুনীল ছেত্রী। সুনীল ছেত্রী।
হাইলাইটস
  • “ক্যাপ্টেন, লিডার এবং লেজেন্ড” সমর্থকরা এই নামেই তাকে বেশিরভাগ সময় সম্বোধন করে থাকেন।
  • তিনি হলেন ভারতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক (Indian Football Team Captain) সুনীল ছেত্রী (Sunil Chhetri)।

“ক্যাপ্টেন, লিডার এবং লেজেন্ড” সমর্থকরা এই নামেই তাকে বেশিরভাগ সময় সম্বোধন করে থাকেন। তিনি হলেন ভারতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক (Indian Football Team Captain) সুনীল ছেত্রী (Sunil Chhetri)। জেদ একটুও কমেনি, গলায় আত্মবিশ্বাসের সুর নিয়েই বলছেন ‘দেশের হয়ে আরও গোল করতে চাই’। 

চলতি ফিফা উইন্ডোতে (FIFA Window), ইম্ফলের খুমান লাম্পাক স্টেডিয়ামে (Khuman Lampak Stadium) শুরু হয়েছে ত্রিদেশিয় ফুটবল টুর্নামেন্ট (Tri-Nation Football Tournament)। ভারত ছাড়াও অংশগ্রহণ করছে মায়ানমার (Myanmar National Football Team) এবং কিরঘিজস্তান (Kyrgyzstan National Football Team)। প্রথম ম্যাচেই মায়ানমারকে ১-০ গোলে হারিয়েছে ভারত। এই ম্যাচ ছাড়াও সদ্য আইএসএলে (ISL) বেশ ভালো খেলেছেন ব্লু টাইগার্সদের (Blue Tigers) নেতা। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে তার আত্মবিশ্বাস যে চূড়ায় থাকবে, সেটাই স্বাভাবিক। 

দেশের জার্সি গায়ে ৮৪টি গোল করে ফেলেছেন সুনীল। গত ম্যাচেও গোলের জন্য সর্বাত্মক ঝাঁপিয়েছিলেন। অধিনায়ক হিসেবে দলকে তাতিয়ে, আরও ভালো খেলার জন্য বরাবর উদ্বুদ্ধ করতে থাকেন তিনি। দলীয় সংহতি থেকে শুরু করে পারফেক্ট ফুটবল। সবক্ষেত্রেই সেনাপতির ভূমিকায় সুনীল ছেত্রী। সুনীল বলছেন, ‘গোলের খিদে আমার সবসময়, পরের ম্যাচেও গোল করতে চাই। পেনাল্টি বা গোল বাতিল, ম্যাচেরই অঙ্গ। কিন্তু পুরনো বিষয় নিয়ে ভাবতে চাইনা, সামনের ম্যাচে ফোকাস করতে চাই।‘ 

আরও পড়ুন-IPL 2023: নিজে হাতে স্টেডিয়াম রং করলেন ধোনি! VIDEO VIRAL

 

মায়ানমার ম্যাচে গোটা স্টেডিয়াম যেভাবে দলকে সমর্থন করেছিল, তার প্রশংসা করেছেন তিনি। সুনীল বলছেন, ‘দ্বিতীয়বার আমি ইম্ফলে এলাম এবং প্রথম এই মাঠে নামলাম। বুঝলাম যে কেন এখানকার মানুষ ফুটবল নিয়ে এত মেতে থাকেন। আশা করছি আমরা সেরা ফুটবলটাই উপহার দিতে পারব কিরঘিজস্তান ম্যাচে। বাচ্চা মেয়েরা মায়েদের সঙ্গে মাঠে ফুটবল খেলা দেখতে এসেছে। দারুণ এক অনুভূতি হচ্ছিল।‘ তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘আমাদের দলের তরুণ ফুটবলাররা আমাদের সম্পদ। সুরেশ (Suresh Singh Wangjam), জিকসন সিং (Jeakson Singh) এবং ইয়াসিরের (Mohammed Yasir) মতো ফুটবলারদের দেখে অনেকেই উৎসাহিত হবে। যা ভারতীয় ফুটবলকে সাহায্য করবে।‘ 

কিরঘিজস্তান ফুটবল দলকে সমীহ করছেন ভারতীয় অধিনায়ক। ছেত্রীর মতে, ‘ওদের ফুটবলারদের গতি অনেক বেশি। ভালো দল, তাই আমাদের আরও অনেক বেশি ফোকাস করতে হবে।‘ তিনি আরও জানিয়েছেন, ফাইনাল খেলেই পরেরদিন ক্যাম্পে (National Football Team Camp) যোগ দেওয়া যথেষ্ট কঠিন ছিল তাদের সকলের। বিশেষত অতদিন পরিশ্রমের পর ফাইনালে হার মেনে নেওয়া কঠিন ছিল, স্বীকার করলেন সুনীল। কিন্তু প্রত্যেকেই পেশাদার ফুটবলার। তাই দলের স্বার্থে প্রত্যকেই যে নিজের সেরাটা উজাড় করে দেবেন, সেটি পরিস্কার। তবে তিনি জাতীয় দলের ক্যাম্প আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন ফেডারেশনকে। একইসঙ্গে টেবিল শীর্ষে (League topper) থেকেই শেষ করতে চান তারা, পরিষ্কার জানিয়েছেন ক্যাপ্টেন সুনীল।