scorecardresearch
 

Parag Agrawal becomes Twitter CEO: বম্বে আইআইটির প্রাক্তনী, মাত্র ১০ বছরেই ট্যুইটারের CEO পরাগ

Twitter-এর নতুন CEO পদের দায়িত্বে এখন পরাগ আগরওয়ালের হাতে। Jac Dorsey সিইও পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর পরাগকেই সেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। পরাগ আগরওয়াল বর্তমানে কোম্পানিতে CTO হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

ট্যুইটারের নতুন সিইও পদের দায়িত্ব এখন পরাগ আগরওয়ালের হাতে ট্যুইটারের নতুন সিইও পদের দায়িত্ব এখন পরাগ আগরওয়ালের হাতে
হাইলাইটস
  • ট্যুইটারের নতুন সিইও পদের দায়িত্ব এখন পরাগ আগরওয়ালের হাতে
  • আগরওয়াল আইআইটি বম্বে থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করেছেন
  • তাঁর সম্পর্কে নানা অজানা কথা থাকল

Twitter-এর নতুন CEO  পদের দায়িত্বে এখন পরাগ আগরওয়ালের হাতে। Jac Dorsey সিইও পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর পরাগকেই সেই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। পরাগ আগরওয়াল বর্তমানে কোম্পানিতে CTO হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

পরাগ আগরওয়াল আইআইটি বোম্বে থেকে পড়াশোনা করেছেন। রিপোর্ট অনুযায়ী, ট্যুইটার বোর্ডও তাঁর সিইও হওয়ার বিষয়টিতে অনুমোদন দিয়েছে। AT&T, Yahoo এবং Microsoft-এ কাজ করার পর পরাগ ২০১১ সালে টুইটারে যোগ দেন।

তথ্য অনুযায়ী, ৪৫ বছরের আগরওয়াল আইআইটি বম্বে থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনা করেছেন। এরপর তিনি স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডক্টরেট করেন। তাঁর  স্কুলিং Atomic Energy Central School থেকে।

 

 

পরাগ ২০১১ সালে ট্যুইটারে যোগ দেন। এর আগে তিনি মাইক্রোসফ্ট, এটিএন্ডটি এবং ইয়াহুতে কাজ করছিলেন। তিনটি কোম্পানিতেই তার কাজ ছিল গবেষণামুখী। তিনি ট্যুইইটারে অ্যাড রিলেটেড প্রডাক্টসের ওপর কাজ শুরু করেছিলেন। কিন্তু, পরে তিনি অর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স নিয়ে কাজ শুরু করেন।

Deep gratitude for @jack and our entire team, and so much excitement for the future. Here’s the note I sent to the company. Thank you all for your trust and support 💙 https://t.co/eNatG1dqH6 pic.twitter.com/liJmTbpYs1

 

২০১৮  সালে, তাকে কোম্পানির CTO করা হয়। এটা মনে  করা হয় যে তার ইঞ্জিনিয়ারিং এক্সপার্টিজ অর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্স এবং বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্কে। দুটি বিষয়ই কোম্পানির জন্য  খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জ্যাক ডরসিও তার কাজ খুব পছন্দ করেন। এই জিনিসটিও তাকে কোম্পানির শীর্ষ পদে পৌঁছাতে সাহায্য করেছে।

ডরসি ২০১১ সালে তাকে নিয়োগ করেন। তিনি আগরওয়ালকে কতটা পছন্দ করেন তাও কর্মীদের পাঠানো মেইলে লিখেছেন। সিটিও হিসেবে পরাগ মেশিন লার্নিং নিয়ে অনেক কাজ করেছেন।

এখন যখন তিনি লিডারশিপের অবস্থানে আছেন। পরাগ আগরওয়ালও এই পদ পাওয়ার পর ডরসির প্রতি অনেক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

তিনি তার টুইটার হ্যান্ডেল থেকে লিখেছেন যে, যখন এই কোম্পানিতে যোগ দেন, তখন ১০০০  জনেরও কম কর্মী ছিল। এই সময়ে, অনেক উত্থান-পতন এবং চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতেহয়েছিল। তবে  তিনি ক্রমাগত এর প্রভাব লক্ষ্য করছিলেন।

তিনি আরও লিখেছেন যে বিশ্ব এখন আমাদের দেখছে। এই বিষয়ে বিভিন্ন মানুষের বিভিন্ন মতামতও থাকবে। কারণ তিনি ট্যুইটার এবং এর ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তা করেন।  আগেই উল্লেখ করা হয়েছে, পরাগ আগরওয়াল কোম্পানিতে সিটিও (প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এখন তিনি কোম্পানির সিইও পদের দায়িত্ব নেবেন।