scorecardresearch
 

USA Hospital : অপারেশনের সময় হাসপাতালে কেঁদেছিলেন, বিলে অ্যাড হল তার চার্জ!

USA Hospital: ওই মহিলা বিলের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন। আর তা দেখে সবাই তাজ্জব বনে গিয়েছেন। কেউ এমন করতে পারে, ভাবতে পারছেন না কেউ।

কান্নার জন্য খরচ ধরা হয়েছে হাসপাতালের বিলে কান্নার জন্য খরচ ধরা হয়েছে হাসপাতালের বিলে
হাইলাইটস
  • সোশাল মিডিয়ায় একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে
  • সেখানে এক মার্কিন মহিলা বেশ আজব দাবি করেছেন
  • তখন কোনও এক সময় তিনি কেঁদে ফেলেন

সোশাল মিডিয়ায় একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। সেখানে এক মার্কিন মহিলা বেশ আজব দাবি করেছেন। এক হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। সেখানে তাঁর অপারেশন হয়। তখন কোনও এক সময় তিনি কেঁদে ফেলেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সে জন্য টাকা ধরেছে বিলে!

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি
ওই মহিলা বিলের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন। আর তা দেখে সবাই তাজ্জব বনে গিয়েছেন। কেউ এমন করতে পারে, ভাবতে পারছেন না কেউ। তুমুল সমালোচনা করেছেন নেট-নাগরিকেরা।

শরীরের তিল সরানোর জন্য...
তিনি সেখানে গিয়েছিলেন শরীর থেকে তিল সরানোর জন্য। তাঁর নাম মিজ। অপারেশন করারনোর পর বিল হাতে নিয়ে তিনি তো বেশ চমকে যান। বিলের একটা ছবি নিয়ে হইহই পড়ে যায়।

ওই বিলে কোন খাতে কত খরচ হয়েছে, তা বলা ছিল। তবে আরও একচটি বিষয় ছিল সেখানে। আরব তা হল কান্নার জন্য টাকা। হ্যাঁ, এটাই ঠিক। কান্নার দাম মেটাতে হেছে তাঁকে। ১১ ডলার মানে ভারতীয় মুদ্রায় ৮১৫ টাকা। তার ওফর আবার ছাড়ও দেওয়া হয়েছে!

হাসপাতালের সমালোচনা
তাঁর ওই বিলের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল সাড়া ফেলে দেয়। প্রবল সমালোচনার মুখে পড়ে হাসপাতাল। কান্নার জন্য টাকা কাটায় তীব্র আক্রমণ করা হয়। এক মহিলা লিখেছেন, তিল সরানোর জন্য ১৬ হাজার ৫৩৪ টাকা খরচ করতে হল। আর তার ওপর কান্নার জন্য অতিরিক্ত টাকা দেওয়ার মানে বোঝা গেল না।

মহিলার রসিকতা
ওই মহিলা বিল শেয়ার করার পর রসিকতা করেছেন। তিনি লিখেছেন, আমি সামান্য কোনও স্টিকারও পাইনি। যা আমি হাসপাতালে পাঠাব। তাঁৎ এই পোস্ট ২ লক্ষ মানুষ লাইক করেছেন। এবং চমকে দেওয়ার মতো অনেক কমেন্ট সেখানে করা হয়েছে।

নেট-নাগরিকদের অভিজ্ঞতা
এক টুইট ব্যবহারকারী লিখেছেন, এটা আমেরিকার স্বাস্থ্য পরিষেবা। একবার আমি মনোবিদের সঙ্গে নিজের একটা ঘটনা উল্লেখ করায় তিনি বিল পাঠিয়ে দিয়েছিলেন।