scorecardresearch
 
উত্তরবঙ্গ

দুয়ারে সরকার নয়, দুয়ারে ঘুরছে মানুষই, সৌজন্যে স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের নাম বিভ্রাট

নাম বিভ্রাটে নাজেহাল
  • 1/8

বিভিন্ন সরকারি পরিচয় পত্রে নাম বিভ্রাটের জেরে ভুক্তভোগী সাধারণ মানুষ। সরকারি আধার কার্ড থেকে শুরু করে, ভোটার কার্ড, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের কার্ড, সবেতেই নাম বিভ্রাট। আর সে কারণেই শিক্ষা থেকে স্বাস্থ্য পরিষেবা, সবক্ষেত্রেই হয়রানির শিকার সাধারণ মানুষ।
 

নাম বিভ্রাটে নাজেহাল
  • 2/8

স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের কার্ড তৈরি হলেও কার্ডে উপভোক্তার নাম না থাকায় নার্সিংহোমে ভাঙা পায়ের চিকিৎসা করাতে পারছেন না এক শ্রমিক । স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের  কার্ডে নাম তুলতে জেলার প্রশাসনিক ভবন ডুয়ার্স কন্যায়  হন্যে হয়ে ঘুরছেন এক ওই দরিদ্র দম্পতি। 

নাম বিভ্রাটে নাজেহাল
  • 3/8

সোমবার স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড নিয়ে নার্সিংহোমে ভর্তি  হতে না  পেরে রোগীকে আ্যম্বুলেন্সে চাপিয়ে সোজা জেলার প্রশাসনিক ভবন ডুয়ার্স কন্যায় হাজির রোগীর পরিবারের সদস্যরা।দিনভর প্রশাসনিক ডুয়ার্স কন্যার বিভিন্ন দপ্তরে ঘুরে চরম হয়রানির পর হতাশ রোগীর পরিবারের সদস্যরা।

নাম বিভ্রাটে নাজেহাল
  • 4/8

সোমবার সকাল থেকে স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে রোগীর নাম ওঠাতেই গলদঘর্ম হতে হলো রোগীর পরিবারকে। যখন রোগীর পরিবার ডুয়ার্স কন্যায় স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে রোগীর নাম নথিভুক্ত করতে ব্যস্ত। তখন চড়া রোদে,গরমের মধ্যে ভাঙ্গা পা নিয়ে অ্যাম্বুল্যান্সে বসে রয়েছে আলিপুরদুয়ার দুই নম্বর ব্লকের নোনাইয়ের পাল পাড়ার বাসিন্দা রামচন্দ্র রায়।

নাম বিভ্রাটে নাজেহাল
  • 5/8

পেশায় ঠিকা শ্রমিক রামচন্দ্র রায় শনিবার দুপুরে বাড়ির কলপাড়ে স্নান করতে গিয়ে পা হড়কে পড়ে যায়। কলের পাড়ে পড়ে গিয়েই রামচন্দ্র রায়ের পা ভেঙে যায়। বাড়িতে সে সময় কেউ না থাকায় দীর্ঘ সময় তিনি কলের পাড়েই পড়ে থাকেন। দীর্ঘক্ষণ পরে তার স্ত্রী ভারতী রায় বাড়িতে এসে রামচন্দ্রবাবুকে এসে কলের পাড় থেকে উদ্ধার করে।

নাম বিভ্রাটে নাজেহাল
  • 6/8

রামচন্দ্র রায়ের স্ত্রী ভারতী রায় বলেন ওনাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তার বলেন ওনার পায়ের হাঁড় ভেঙে গিয়েছে। ওঁকে আলিপুরদুয়ার নার্সিংহোমে নিয়ে গিয়ে অপারেশন করতে হবে।

নাম বিভ্রাটে নাজেহাল
  • 7/8

রবিবার স্বাস্থ্য সাথীর কার্ড নিয়ে ওনাকে নার্সিংহোম নিয়ে গিয়ে ছিলাম।কিন্তু রবিবার ওই নার্সিংহোম থেকে আমাদের ফিরিয়ে দেয়।নার্সিংহোম থেকে আমাদের সাফ জানিয়ে দেয় কার্ডে উপভোক্তার নাম নেই। তাই ওনার অপারেশন করা সম্ভব নয়।ভারতী দেবী বলেন আজ সোমবার ফের আমার স্বামীকে নিয়ে অন্য একটি নার্সিংহোমে নিয়ে গিয়েছিলাম। সেখান থেকেও একই কথা জানিয়ে দিয়েছে।

 

নাম বিভ্রাটে নাজেহাল
  • 8/8

তাই আমার স্বামীকে নিয়ে সোজা চলে এসেছি ডুয়ার্স কন্যায়। কিন্তু বিভিন্ন দপ্তর ঘুরেও কোন কাজ হলো না। কি করে নাম তুলব বুঝতে পারছি না।আমার স্বামীর চিকিৎসা করানোর মতো আর্থিক ক্ষমতা আমার নেই। এখন আমি জেলা শাসকের সাথে দেখা করে গোটা বিষয়টি জানাতে চাই।
যদিও এই বিষয়ে জেলার স্বাস্থ্য সাথী দপ্তরের কোন আধিকারিক মন্তব্য করতে চাননি।