scorecardresearch
 
উত্তরবঙ্গ

২০২৩ এর মধ্যেই শিলিগুড়ি থেকে নাথুলা পৌঁছবে ট্রেন, জানালেন রেল প্রতিমন্ত্রী

সেবক-রংপো
  • 1/10

চিন সীমান্ত রক্ষায় নাথুলা পাসকে রেলপথে জুড়তে চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করছে রেল। ২০২৩ সালের মধ্যে সার্ভের কাজ শেষ করার লক্ষমাত্রা নিয়েছে রেলমন্ত্রক।  সোমবার সেবক- রংপো রেল প্রকল্পের কাজ পরিদর্শনে এসে এমনটাই জানালেন রেল প্রতিমন্ত্রী রাওসাহেব পাতিল দানভে। পাশাপাশি সেবক থেকে রংপো পর্যন্ত ৪৫ কিলোমিটার রেল প্রকল্পের কাজ শেষ হবে ২০২৩ সালের মধ্যে।

সেবক-রংপো
  • 2/10

প্রতিবেশী রাজ্য সিকিমকে রেলপথের জুড়তে তৎকালীন রেলমন্ত্রী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেবক থেকে রংপো পর্যন্ত রেল প্রকল্পের উদ্যোগ নেন। এরপর ওই ২০০৯ সালে ৩০ অক্টোবর মাসে এই প্রকল্পের শিল্যানাস করেন তৎকালীন রেলমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সেবক-রংপো
  • 3/10

তবে ৪৫ কিলোমিটার এই রেলপথের বেশকিছুটা অংশ অরণ্যে এলাকায় পড়ে যাওয়ায় জমি জটে বেশ কয়েক বছর প্রকল্পের কাজ থমকে যায়। অবশেষে জমি জট কাটিয়ে ২০১৮ সালে শুরু হয় প্রকল্পের কাজ।

সেবক-রংপো
  • 4/10

এই রেল প্রকল্পের ৪৫ কিলোমিটার পথে ৪১ কিলোমিটার রয়েছে পশ্চিমবঙ্গে ও বাকি প্রায় ৪ কিলোমিটার রয়েছে সিকিম রাজ্যে। এই পথের অধিকাংশটাই টানেল রয়েছে। সেবক থেকে রংপো পর্যন্ত মোট ১৪ টি টানেল রয়েছে।

সেবক-রংপো
  • 5/10

যার মধ্যে ১০ নং টানেলটি সবচেয়ে বড়। জানা গিয়েছে এর দৈর্ঘ্য প্রায় ৫.৩ কিলোমিটার। পাশাপাশি এই যাত্রা পথে রয়েছে মোট ৫ টি স্টেশন । এই প্রকল্পের প্রধান লক্ষ ভবিষ্যতে সিকিম রাজ্যের গ্যাংটক থেকে নাথুলা পাসের ভারত চিন সীমান্তকে রেলপথে জুড়ে দেওয়া। তবে সোমবার এই প্রকল্পের কাজ খতিয়ে দেখতে এলেন রেলের প্রতিমন্ত্রী রাওসাহেব পাতিল দানভে।

সেবক-রংপো
  • 6/10

এদিন তিনি প্রকল্পের সমস্ত কাজ খতিয়ে দেখে কথা বলেন রেলদপ্তর ও নির্মাণ সংস্থার কর্তাদের সাথে। খতিয়ে দেখেন প্রকল্পের বিস্তারিত এবং কাজের বর্তমান পরিস্থিতি এবং অগ্রগতির বিষয়ে। সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে রেল প্রতিমন্ত্রী  বলেন, এদিন তিনি এই প্রকল্পের কাজ দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

সেবক-রংপো
  • 7/10

তিনি বলেন, এই রেল প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন হলে প্রতিবেশী রাজ্য সিকিমের বাসিন্দাদের অনেকটাই সুবিধা হবে। তারা রেলপথকে ব্যবহার করে সহজেই পণ্য সামগ্রী আদান-প্রদান করতে পারবে। শুধু তাই নয় এই প্রকল্পের ফলে সেনাবাহিনীর যথেষ্ট সহায়ক হবে।

সেবক-রংপো
  • 8/10

অন্যদিকে তিনি এদিন আরও বলেন, এই প্রকল্পের পাশাপাশি গ্যাংটক থেকে নাথুলা পাস পর্যন্ত রেলপথ পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের।
 

সেবক-রংপো
  • 9/10

এই প্রকল্পের সার্ভের কাজ ২০২৩ সালের মধ্যেই শেষ হবে। একই সাথে তিনি বলেন নাথুলা পাস পর্যন্ত রেললাইন পৌঁছে দেওয়ার চ্যালেঞ্জকে নিয়েই কাজ করছে রেল এবং কেন্দ্রীয় সরকার। তবে আমাদের দেশের মানুষের জন্যই এই চ্যালেঞ্জ নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। 

 

 

সেবক-রংপো
  • 10/10

প্রসঙ্গত ভারত-চিন সীমান্ত নাথুলা এলাকায় বর্তমানে সেনাবাহিনী মোতায়ন এবং সেনাবাহিনীর রসদ ও সরঞ্জাম পৌঁছানোর একমাত্র পথ সিকিমের ১০ নং জাতীয় সড়ক। ফলে বর্ষার সময়ে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে মাঝে মধ্যে রাস্তায় নেমে যাওয়ায় এই পথ বন্ধ হয়ে গেলে সমস্যায় পড়তে হয় সেনাবাহিনীকে। স্বাভাবিকভাবেই এই রেলপথ হলে সেনাবাহিনী মোতায়ন এবং তাদের সামগ্রী সীমান্তে পৌঁছে দিতে অনেকটাই সহায়ক হবে।

 
; ; ;