scorecardresearch
 

ময়নাগুড়ির ট্রেন দুর্ঘটনা নাশকতা? রেলমন্ত্রী বললেন...

ময়নাগুড়ির রেল দুর্ঘটনায় নাশকতার তত্ত্ব পুরোপুরি উড়িয়ে দিচ্ছে না রেল। এদিন ঘটনাস্থলে আসেন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। তিনি জানান, রেল লাইনে কোনও সমস্যা ছিল না। তবে সব দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে সম্পূর্ণ ঘটনার তদন্ত না হলে বিষয়টি বলা সম্ভব নয়।

দুর্ঘটনাস্থলে রেলমন্ত্রী। দুর্ঘটনাস্থলে রেলমন্ত্রী।
হাইলাইটস
  • ময়নাগুড়ির ট্রেন দুর্ঘটনা নাশকতা?
  • রেলমন্ত্রী যা বললেন
  • জানুন বিস্তারিত তথ্য

ময়নাগুড়ির রেল দুর্ঘটনায় নাশকতার তত্ত্ব পুরোপুরি উড়িয়ে দিচ্ছে না রেল। এদিন ঘটনাস্থলে আসেন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। তিনি জানান, রেল লাইনে কোনও সমস্যা ছিল না। তবে সব দিক খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে সম্পূর্ণ ঘটনার তদন্ত না হলে বিষয়টি বলা সম্ভব নয়। শুক্রবার শিলিগুড়ি উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে রেল দুর্ঘটনায় আহতদের দেখতে এসে এমনটাই বলেন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব। ঘটনার তদন্তে আসছে রেলের সেফটি কমিশনার,সমস্ত ঘটনা তদন্ত হলে বিষয়টি পরিষ্কার হবে। 

জলপাইগুড়ি জেলার দোহমনির কাছে গৌহাটি বিকানির এক্সপ্রেস ট্রেন দুর্ঘটনাতে বেশ কয়েকজনে মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি আহত হয়েছে বেশ কয়েকজন। এরমধ্যে সাতজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল ভর্তি রয়েছে। ঘটনার খবর পেয়ে শুক্রবার সকালে ময়নাগুড়িতে দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন এলেন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব।

এদিন তিনি জলপাইগুড়ি, ময়নাগুড়ি সহ আহতদের দেখতে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যালে এসে পৌঁছান। এখানে তিনি আহতদের সঙ্গে দেখা করেন। তাঁদের পরিবারের সঙ্গে  কথা বলেন পাশাপাশি তাদের চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন। 

প্রসঙ্গত, কেএলও-র মত নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন বরাবরই উত্তরবঙ্গে প্রভাব বিস্তার করেছে। পূর্বে বেশকিছু রেল দুর্ঘটনা পিছনে এই জঙ্গি সংগঠনের নাশকতার এবং যোগসাজশ পেয়েছিল গোয়েন্দারা। ঘটনা প্রসঙ্গে বলা যায় এর আগে বেলাকোবা কাছে দার্জিলিং মেলে ট্রেনে একটি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছিল যদিও এতে পরে কেএলও জঙ্গি সংগঠনের যোগসাজশ পাওয়া গিয়েছিল। বিশেষজ্ঞদের মতে এই ধরনের জঙ্গী সংগঠন গুলির বাড়াবাড়ির টার্গেট থাকে রেলস্টেশন কিংবা ট্রেন। তাই শনিবার ধমনীর এই ঘটনায় আবারও জঙ্গি সংগঠনের কোন নাশকতা ছিল কিনা তা এখনই উড়িয়ে দিচ্ছে না রেল। 

সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে রেলমন্ত্রী বলেন, ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যে রেল তদন্ত শুরু করেছে। তবে নিরাপত্তায় কোন খামতি ছিলনা। পাশাপাশি তাঁকে এই ঘটনায় কেএলও জঙ্গি সংগঠনের কোনো যোগসাজশ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন , এর পেছনে জঙ্গী নাশকতার কোন যোগসাজশ রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে বিষয়টি যতক্ষণ না পর্যন্ত পূর্ণ তদন্ত হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত বলা সম্ভব নয়।

তিনি আরও বলেন , "ইতিমধ্যে রেলের ইন্টালিজেন্স এখন থেকেই আরো বেশি সক্রিয় করা হচ্ছে । তবে আমাদের এই মুহূর্তে সবচেয়ে বড় কাজ হল দুর্ঘটনা কবলিত এলাকা থেকে সমস্ত কিছু পরিষ্কার করে রেল পরিষেবা কে স্বাভাবিক করা।" সেই সঙ্গে তিনি বলেন, "রেল লাইনে কোনও সমস্যা ছিল না। এটা আমি নিজে এসে ব্যক্তিগত ভাবে দেখেছি।"

রেল দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন রেলমন্ত্রী ঘটনাস্থল সহ আহতদের সাথে দেখা করে সমস্ত তথ্য তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে জানাবেন। পাশাপাশি জানা গিয়েছে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল থেকেই রেলমন্ত্রী এদিন দিল্লি তে ফিরে যান।