scorecardresearch
 

প্রয়াত নেতৃত্বের পাশে জীবিত 'ডালু'-র ছবি, মালদা কংগ্রেসে চাঞ্চল্য

প্রয়াত নেতাদের ছবির সারিতে রাখা হয়েছে জেলার বর্ষীয়ান রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব তথা মালদা দক্ষিণ লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী(ডালু)-র ছবি। অথচ তিনি দিব্যি জীবিত। ভুল না ঠিক তা নিয়েই দ্বন্দ্ব দুই গোষ্ঠীর মধ্যে। বিতর্ক চরমে।

এই ছবি নিয়েই বিতর্ক এই ছবি নিয়েই বিতর্ক
হাইলাইটস
  • প্রয়াত নেতাদের সারিতে জীবিত ডালু
  • মালদা কংগ্রেস কার্যালয়ে ছবি লাগানো নিয়ে বিতর্ক
  • কংগ্রেস নেতাদের মধ্য়েই দ্বিমত তৈরি হয়েছে

মালদা জেলা কংগ্রেসের কার্যালয়ে প্রয়াত কংগ্রেস নেতাদের ফটোফ্রেম দেওয়ালে টাঙানো রয়েছে। আচমকা দেখা গেল, সেই প্রয়াত নেতাদের ছবির সারিতে রাখা হয়েছে জেলার বর্ষীয়ান রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব তথা মালদা দক্ষিণ লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী(ডালু)-র ছবি। অথচ তিনি দিব্যি জীবিত। তাহলে!

চাপানউতর শুরু

তা নিয়েই এখন বিতর্ক, চাপানউতর শুরু হয়েছে জেলা জুড়ে। মালদা দক্ষিণ লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ তথা জেলা কংগ্রেসের সভাপতি আবু হাসেম খান চৌধুরী এখনও জীবিত। দলীয় কাজকর্ম করছেন চুটিয়ে। দল ছেড়ে গিয়েছেন, তাও নয়। তাহলে কীভাবে এত বড় ভুল হলো? তাঁর ছবি প্রয়াত কংগ্রেস নেতাদের সারিতে কীভাবে এল তার জবাব নেই।

আবু হাসেম খানের ছেলে কী বলছেন!

জেলা কংগ্রেস নেতৃত্ব বিষয়টি ’ছোট মিসটেক’বলে এড়িয়ে গেছেন বটে। তবে তা নিয়ে বেশ অস্বস্তিতে পড়েছেন তাঁরা। মালদা দক্ষিণ লোকসভার সাংসদ তথা জেলা কংগ্রেসের সভাপতি আবু হাসেম খান চৌধুরীর ছেলে ঈশা খান চৌধুরী অবশ্য বিষয়টি লঘু করার চেষ্টা করেন। তিনি বলেন, বাবা সুস্থ আছেন। ভালো আছেন। ভুল করে এমনটা করে ফেলছে কর্মীরা।

ডালু

কংগ্রেস নেতাদের মধ্যে দ্বিমত

পুরাতন মালদার প্রাক্তন বিধায়ক তথা জেলা কংগ্রেসের সম্পাদক ভূপেন্দ্রনাথ হালদার বলেন, এমনটা হয়েছে তা তিনি লক্ষ্য করেননি। তবে জেলা কংগ্রেসের অভিভাবক আবু হাসেম খান চৌধুরী। তাঁর ছবি দলীয় কার্যালয়ে অন্যান্য বিশিষ্ট প্রয়াত কংগ্রেস নেতা ও মনীষীদের পাশে থাকতে পারে। তাতে বিতর্কের কিছুই নেই বলে দাবি তাঁর। জেলা কংগ্রেসের আরও এক প্রাক্তন বিধায়ক তথা সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আলমও বলেন, এমন হয়েছে তা লক্ষ্যই করেন নি। ভুল হয়েছে। জেলা বিজেপির মালদা দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক অম্লান ভাদুড়ি বিষয়টি নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করে কংগ্রেসের দুরবস্থার বিষয়টি সামনে এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন।

হায়াত ভবনে নতুন কক্ষ

উল্লেখ্য মালদা জেলা কংগ্রেসের প্রধান কার্যালয় ‘হায়াত ভবনে’ নতুন কক্ষ তৈরি করা হয়েছে। সেই কক্ষের দেওয়ালে দেশের মনীষীদের ছবির পাশাপাশি প্রয়াত কংগ্রেস নেতাদের ছবি রয়েছে। ইন্দিরা গান্ধী থেকে রাজীব গান্ধী। জেলা কংগ্রেসের প্রয়াত নেতা এবিএ গণি খানচৌধুরী থেকে রুবি নূরের ছবি। আর সেই ছবির সারিতেই রয়েছে আবু হাসেম খান চৌধুরীর ছবিও।