scorecardresearch
 

রেশনের চাল-আটা পাচার করতে গিয়ে মালদায় ধৃত ২, আটক প্রচুর সামগ্রী

পাচারের পথে এক লরি রেশনের চাল, আটা উদ্ধার। গ্রেফতার চালক ও সহকারী সহ দুই। ঘটনাটি ঘটেছে বৈষ্ণবনগর থানার বাজাপ্তি পাড়া এলাকায়। এর পিছনে চক্রটিকে ধরার জন্য জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ।

রেশনের চাল-আটা সহ আটক ট্রাক রেশনের চাল-আটা সহ আটক ট্রাক
হাইলাইটস
  • রেশন পাচারে ধৃত ২
  • বাজেয়াপ্ত চাল-আটা
  • কোথায় কীভাবে পাচার দেখছে পুলিশ

রেশনের চাল আটা পাচারে গ্রেফতার ২

ভিন জেলার গাড়ি ব্যবহার করে  পাচারের পথে এক লরি রেশনের চাল, আটা উদ্ধার। গ্রেফতার চালক ও সহকারী সহ দুই। ঘটনাটি ঘটেছে বৈষ্ণবনগর থানার বাজাপ্তি পাড়া এলাকায়। এর পিছনে চক্রটিকে ধরার জন্য জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ। খোঁজ করা হচ্ছে কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল এবং কোন গুদাম থেকে তা পাচার করা হচ্ছিল।

বিজেপি-তৃণমূল তরজা

আর এই রেশনের জিনিস পাচার নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। বিজেপির দাবি, কেন্দ্রীয় সরকার রেশনের জিনিস সাধারণ মানুষের জন্য পাঠায়। আর সেই জিনিসপত্র রাতের অন্ধকারে পাচার করা হচ্ছে। পাল্টা তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, বিরোধীরা প্রকৃত তথ্য না নিয়ে মানুষকে ভুল বোঝানোর কাজে ময়দানে নেমে পড়ে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বৈষ্ণবনগর থানার পুলিশ।

ছবি

মালদা থেকে কলকাতা যাচ্ছিল গাড়িটি

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতদের নাম ডালু শেখ(২২) ও গাড়ির খলাসি। ধৃতের বাড়ি মালদা কালিয়াচক থানা এলাকায়।বৈষ্ণবনগর থানার পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক এলাকায় অভিযান চালায়। সেই সময় ভিন জেলার নাম্বারের একটি গাড়ি মালদা থেকে কলকাতা দিকে যাচ্ছিল। সন্দেহ হয় গাড়িটিকে আটক করে পুলিশ।

গাড়ি থেকে নথিহীন আটা ও চালের বস্তা বাজেয়াপ্ত

গাড়িতে তল্লাশি চালাতে উদ্ধার হয় গাড়ি ভর্তি সিল করা আটা ও বেশ কয়েক বস্তা চাল উদ্ধার হয়। গ্রেফতার করা হয় দুজনকে। তাদের দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে প্রাথমিক ভাবে অনুমান করা হচ্ছে এই উদ্ধার হওয়া আটা ও চাল রেশনের দোকান থেকে কোথাও পাচার করা হচ্ছিলো। যদিও এই আটা ও চালের সঠিক নথি ধৃতরা দেখাতে পারেনি। 

বিজেপির অভিযোগ

বৈষ্ণবনগর থানার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, দুইজনকে গ্রেপ্তার করে ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে।
জেলা বিজেপির সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল বলেনা,এটাই তো তৃণমূলের সংস্কৃতি। কেন্দ্রীয় সরকার সাধারণ মানুষের জন্য রেশন সামগ্রী পাঠাচ্ছে। আর সেই সামগ্রী রাতের অন্ধকারে পাচার করা হচ্ছে। অবিলম্বে আমরা দোষীদের শাস্তি চাই। ঘটনার তদন্ত চাই। এটা শাসকদলের নেতাদের মদত ছাড়া সম্ভব নয়।  আর যার ফলে এই ধরনের ঘটনা ঘটাতে তারা সাহস পাচ্ছে।

পুলিশের আটক সামগ্রী নিয়ে সন্দেহ তৃণমূলের 

জেলা যুব তৃণমূল নেতা প্রসেনজিৎ দাস বলেন, দেখুন যে আটা বা চাল উদ্ধার করেছে পুলিশ সেইগুলো আদৌ কি রেশনের। যদি রেশনের জিনিস হয়ে থাকে পুলিশ সেই গাড়িটিকে আটক করেছে ঘটনার তদন্ত করবে। আইন অনুযায়ী কাজ করবে। বিরোধীরা এটাকে নিয়ে অযথা রাজনীতি করছে।