scorecardresearch
 
 

ন্যক্কারজনক, আলিপুরদুয়ারে নগ্ন করে গ্রাম ঘোরানো হল মহিলাকে!

মধ্যযুগীয় বর্বরতার সাক্ষী থাকল আলিপুরদুয়ারের কুমারগ্রাম ব্লকের এক আদিবাসী গ্রাম। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগে সেখানে এক গৃহবধূকে নগ্ন করে গোটা গ্রাম ঘোরাল মাতব্বররা।

কুমারগ্রাম থানা কুমারগ্রাম থানা
হাইলাইটস
  • ন্যক্কারজনক ঘটনার সাক্ষী থাকল আলিপুরদুয়ারের কুমারগ্রাম
  • সেখানে গৃহবধূকে নগ্ন করে গোটা গ্রাম ঘোরান হল

মধ্যযুগীয় বর্বরতার সাক্ষী থাকল আলিপুরদুয়ারের কুমারগ্রাম ব্লকের এক আদিবাসী গ্রাম। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগে সেখানে এক গৃহবধূকে নগ্ন করে গোটা গ্রাম ঘোরাল মাতব্বররা। ঘটনাটি বৃহস্পতিবার রাতের। তবে আজ দুপুরে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। আর তারপর থেকে রীতিকমতো নিন্দার ঝড় উঠেছে। ঘটনার খবর পেয়ে আজ সেই নির্যাতিতাকে হাসপাতালে ভর্তি করে কুমারগ্রাম থানার পুলিশ। তাদের তরফে জানানো হয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। 
 
পুলিশ সূত্রে খবর, ওই মহিলা বিবাহিত। কিন্তু, অন্য একজনের সঙ্গে সম্পর্কের জেরে মাস ছয়েক আগে স্বামীর ঘর ছেড়ে তিনি চলে যান। কিন্তু, প্রেমিকের সঙ্গে থাকতে শুরু করেন। কিন্তু, সম্পর্ক খারাপ হওয়ায় সম্প্রতি স্বামীর কাছে ফিরে আসেন। তিনি স্ত্রী'কে সানন্দে গ্রহণও করেন।  

আরও পড়ুন : রাজ্যে করোনায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা নামল ৪ হাজারের নীচে

কিন্তু, গ্রামের মাতব্বররা তা মেনে নিতে পারেননি। তাঁদের তরফে বৃহস্পতিবার রাতে গ্রামে সালিশি সভা বসানো হয়। নিদান দেওয়া হয়, মহিলার ও তাঁর স্বামীর উপর অত্যাচারের। এরপরই দু'জনের উপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার শুরু হয়। গৃহবধূকে ঝড়-বৃষ্টির রাতে নগ্ন করে গোটা গ্রাম ঘোরানো হয়। শুধু তাই নয়, সমাজচ্যুত করা হয় স্বামী-স্ত্রী'কে। 

সেই রাতের ভিডিও তুলে রাখে স্থানীয় কিছু যুবক। আজ দুপুরে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাড়া হয়। যা ভাইরাল হয় ঝড়ের গতিতে। দেখেশুনে তার তীব্র নিন্দা করেন জেলার সর্বস্তরের মানুষজন। 

কুমারগ্রামের ব্লক তৃণমূলের সভাপতি ধীরেশ চন্দ্র রায়  বলেন, 'ওই ঘটনায় নিন্দার কোনও ভাষা নেই। দলমত বিচার না করে অপরাধীদের পুলিশ যাতে দ্রুত গ্রেপ্তার করে সেই দাবি জানাচ্ছি।'

জেলা পুলিশ সুপার ভোলানাথ পান্ডে জানিয়েছেন, এক আদিবাসী মহিলা নারকীয় অত্যাচারের শিকার হয়েছেন সেই খবর তাঁরা পেয়েছেন। ঘটনার তদন্তও শুরু হয়েছে। দোষীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।