scorecardresearch
 
 

মমতাকে দিলীপের টার্গেট! 'উনি নিজেও জানেন হেরেছেন'

Dilip Ghosh| দিলীপ ঘোষের প্রতিক্রিয়া, উনি নিজেও জানেন হেরে গিয়েছেন। সেই কারণেই অন্য আসন থেকে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে ন্যায় চাইতে আদালতের দ্বারস্থ যে কেউ হতে পারেন। বিজেপি-ও সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে।

দিলীপ ঘোষ ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিলীপ ঘোষ ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
হাইলাইটস
  • বিজেপি-ও সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে
  • ইলেকশন পিটিশনের বিষয়টি আমাদের আইনজীবীরা দেখছেন
  • বিরোধীদের গালি দিয়ে মানুষকে বোকা বানানোর চেষ্টা করছে

নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর জয়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই প্রসঙ্গে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের প্রতিক্রিয়া, উনি নিজেও জানেন হেরে গিয়েছেন। সেই কারণেই অন্য আসন থেকে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে ন্যায় চাইতে আদালতের দ্বারস্থ যে কেউ হতে পারেন। বিজেপি-ও সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে।

আরও পড়ুন: নন্দীগ্রামে শুভেন্দুর জয়কে হাইকোর্টে চ্যালেঞ্জ মমতার 

আজ অর্থাত্‍ শুক্রবার দিলীপ ঘোষ বলেন, 'আমরাও আদালতে যাচ্ছি বিভিন্ন বিষয় নিয়ে। অনেক জায়গায় গণ্ডগোল হয়েছে। অনেক জায়গায় আমাদের কাউন্টিং এজেন্টদের জোর করে বের করে দেওয়া হয়েছে। ন্যায় চাইতে উনি যেতেই পারেন আদালতে, সকলের অধিকার আছে। কিন্তু উনি হেরেছেন এটা ঠিক এবং অন্য জায়গায় দাঁড়াবেন, সেটাও ঠিক করে নিয়েছেন। কারণ উনি জানেন, যা হয়েছে, তা ঠিকই আছে।'

বিজেপি কি পুনর্গণনার জন্য আবেদন করছে?

দিলীপের বক্তব্য, এর আগে করেনি। সময়ের মধ্যেই করার কথা। ইলেকশন পিটিশনের বিষয়টি আমাদের আইনজীবীরা দেখছেন। মমতা সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, 'যাদের ঝড়ে ঘরবাড়ি ভেঙে গিয়েছে, তাঁরা এখনও রাস্তায় বসে আছেন বৃষ্টির মধ্যে। ত্রিপল পর্যন্ত দিতে পারে না। ভ্যাকসিন আসছে, দু লাখ তিন লাখ পড়ে আছে, সাধারণ মানুষ হাহাকার করছে, ভ্যাকসিন দিতে পারে না। রাজনৈতিক হিংসা সমানে চলছে, তারও কোনও সমাধান করতে পারছেন না। খালি রাজ্যপালকে ইস্যু করে আর বিরোধীদের গালি দিয়ে মানুষকে বোকা বানানোর চেষ্টা করছে।' 

নন্দীগ্রামের ভোটের ফলাফলকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ মামলার শুনানি। বেলা ১১টায় বিচারপতি কৌশিক চন্দের বেঞ্চে মামলার শুনানি হওয়ার কথা। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই ফের একবার সরগরম রাজ্য রাজনীতি। যার আঁচ ইতিমধ্যেই পড়তে শুরু করেছে কেন্দ্রীয় রাজনীতিতেও। 

এবারের বিধানসভা নির্বাচনে কার্যত 'এপিসেন্টার' হয়ে উঠেছিল পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম (Nandigram)। কারণ ওই কেন্দ্র থেকেই লড়াই করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত ১৮ জানুয়ারি নন্দীগ্রামে সভা করতে গিয়ে হঠাৎই সেখান থেকে ভোটে লড়ার কথা ঘোষণা করেন মমতা।