scorecardresearch
 

'একদিন ভাঙড়েই ফিরিয়ে আনব,' এবার পুলিশকে হুঁশিয়ারি MLA নওসদের

ভাঙড় থানার পুলিশ কর্মীদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসাচ্ছে। এই অভিযোগ তুলে নাম না করে ভাঙড় থানার ওসিকে হুঁশিয়ারি দিলেন নওসাদ সিদ্দিকি। বললেন, ট্রান্সফার নিয়ে যেখানেই চলে যাননা কেন। একদিন ভাঙড়েই আসতে হবে। ভাবছ অন্য থানায় চলে যাবে। আমার নাম নওসাদ সিদ্দিকি। এখানেই ট্রান্সফার করিয়ে নিয়ে আসব। তখন ট্রাফিকের কাজ করতে হবে।

nosad nosad
হাইলাইটস
  • ভাঙড় থানার পুলিশ কর্মীদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসাচ্ছে।
  • এই অভিযোগ তুলে নাম না করে ভাঙড় থানার ওসিকে হুঁশিয়ারি দিলেন নওসাদ সিদ্দিকি।

ভাঙড় থানার পুলিশ কর্মীদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসাচ্ছে। এই অভিযোগ তুলে নাম না করে ভাঙড় থানার ওসিকে হুঁশিয়ারি দিলেন নওসাদ সিদ্দিকি। বললেন, ট্রান্সফার নিয়ে যেখানেই চলে যাননা কেন, একদিন ভাঙড়েই আসতে হবে। ভাবছ অন্য থানায় চলে যাবে। আমার নাম নওসাদ সিদ্দিকি। এখানেই ট্রান্সফার করিয়ে নিয়ে আসব। তখন ট্রাফিকের কাজ করতে হবে। 

পঞ্চায়েত ভোটের ( Panchayet Poll ) দামামা বেজে গিয়েছে। তারই মধ্যে পুলিশের বিরুদ্ধে অতি সক্রিয়তার অভিযোগ তুললেন ভাঙড়ের বিধায়ক নওসাদ সিদ্দিকি (Naoshad Siddique )। ভাঙড়ের এক কর্মিসভা থেকে পুলিশকে হুঁশিয়ারি দিয়ে নওসাদের অভিযোগ, আমাদের কর্মীদের নামে মিথ্যে মামলা দিচ্ছে। যাচাই করা হচ্ছে না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে যদি কেউ অভিযোগ করেন, তাহলে তিনি ভেরিফাই করবেন না, সেইরকম আমাদের কর্মীদের নামে কেউ অভিযোগ করলেও ভেরিফাই করা উচিত। 
উল্লেখ্য, দিন তিনেক আগে উত্তপ্ত পরিস্থিতি ছিল ভাঙড়ে। আইএসএফ ও তৃণমূলের সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার ব্যাপক গন্ডগোল ছড়ায়। 

জানা যায়, আইএসএফ-এর একটি সভার জন্য তোরণ তৈরি করাকে কেন্দ্র করে ওই গন্ডগোলের সূত্রপাত হয়েছিল। আয়নাল মোল্লা নামে এক স্থানীয় তৃণমূল নেতা আহত হন। ঘটনার জেরে এক আইএসএফ কর্মীকে আটক করে ভাঙড় থানার পুলিশ। পাল্টা পুলিশের জিপ আটকানোর অভিযোগ ওঠে আইএসএফ কর্মীদের উপর। আইএসএস কর্মীরা অভিযোগ করে, পুলিশ তৃণমূলের হয়ে কাজ করছে। কর্মীদের বিনা কারণে থানায় আটকে রাখছে। 

আরও পড়ুন: সব্যসাচীকে নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়ালে আইনি ব্যবস্থা, হুঁশিয়ারি বন্ধু সৌরভের

 

 
; ; ;