scorecardresearch
 

আজবকাণ্ড, টানা ১২ দিন মহিলাদের ঘর থেকে চুরি গেল অন্তর্বাস

মহিলাদের অন্তর্বাস চুরি করত এক যুবক। এক আধজন নয়, অনেক মহিলার অন্তর্বাস চুরি করেছিল ১৯ বছরের সেই যুবক। আর তা চুরি করতে রীতিমতো মহিলাদের ঘরে ঢুকে যেত সে।

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • মহিলাদের অন্তর্বাস চুরি করত এক যুবক
  • এক আধজন নয়, অনেক  মহিলার অন্তর্বাস চুরি করেছিল ১৯ বছরের সেই যুবক

মহিলাদের অন্তর্বাস চুরি করত এক যুবক। এক আধজন নয়, অনেক  মহিলার অন্তর্বাস চুরি করেছিল ১৯ বছরের সেই যুবক। আর তা চুরি করতে রীতিমতো মহিলাদের ঘরে ঢুকে যেত সে। 

এভাবেই চলছিল। তবে অবশেষে ধরা পড়ল সে। এক মহিলার বাড়ি থেকে তাঁর অন্তর্বাস চুরি করে বেরোনোর সময় হাতেনাতে ধরা পড়ে যায় সেই যুবক। ঘটনা ব্রিটেনের ম্যাঞ্চেস্টারের। ওই যুবকের নাম টেম। 

পুলিশ জানিয়েছে, ২০ জানুয়ারি থেকে ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিভিন্ন মহিলার বাড়ি থেকে তাদের অন্তর্বাস চুরি করেছিল ওই যুবক। সেই সময় সে ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটির ছাত্র ছিলেন। 

আরও পড়ুন : বাড়ছে ভুঁড়ি-জমেছে মেদ? ঘরোয়া উপায়ে লিভার রাখুন পরিষ্কার

টেমকে গ্রেফতারও করে পুলিশ। তাকে কোর্টে তোলা হয়।  আদালত তাকে ৬ মাসের কারাবাসের নির্দেশ দেয়। যদিও বিচারক জানান, টেম হংকং থেকে এসেছিল। ও একাই থাকত। পছন্দ মতো সঙ্গী বেছে নিতে পারেনি। একাকীত্বের জেরে সে বারবার এই ঘটনা ঘটিয়েছে। যা একটা অপরাধ। 

কীভাবে ধরা পড়ল টেম। পুলিশ সূত্রে খবর, একজন যুবতী একদিন তাঁর বাড়ি থেকে টেমকে বেরিয়ে যেতে দেখেন। এরপর তিনি ঘরে ঢুকে দেখেন, তাঁর বেশ কয়েকটি অন্তর্বাস চুরি হয়ে গেছে। এবার তিনি ফোন করেন তাঁর এক বান্ধবীকে। তাঁর সেই বান্ধবীও জানান, তাঁরও অন্তর্বাস চুরি যাচ্ছে কয়েকদিন ধরেই। 

তখন সেই মেয়েদের সন্দেহে বিশ্বাসে পরিণত হয়। তাঁদের বুঝতে বাকি থাকে না যে, অন্তর্বাস চুরি হওয়ার পেছনে টেমের হাত রয়েছে। 

এরপরই তারা পুলিশকে খবর দেয়। এরপর টেমকে গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সে তার অপরাধ স্বীকার করে ক্ষমাও চায়। আদালতে মামলার শুনানি হয়েছিল, যেখানে টেমকে একাধিক চুরির অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।