scorecardresearch
 

Wheat Export: গম নিয়ে ভারতের সিদ্ধান্তে গভীর সংকটে বিশ্ব, কেন জানেন?

Wheat Export: রফতানি বন্ধ করল ভারত, গম সংকট আরও ঘনীভূত বিশ্বে। এ নিয়ে গোটা বিশ্বে তোলপাড় শুরু হয়ে গিয়েছে।

গম রফতানি বন্ধ করল ভারত গম রফতানি বন্ধ করল ভারত
হাইলাইটস
  • রফতানি বন্ধ করল ভারত,
  • গম সংকট আরও ঘনীভূত বিশ্বে
  • গোটা বিশ্বে আলোড়ন

ভারত সরকার গম এক্সপোর্ট তৎকাল বন্ধকতা লাগিয়ে দিয়েছে। গোটা পৃথিবীতে গমের দাম বেড়ে যাওয়ায় এছাড়া রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে গোটা পৃথিবীতে গম উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে। এরই মধ্যে গমের এক্সপোর্ট বন্ধ করে দেওয়ার ভারত সরকারের এই সিদ্ধান্ত জি-সেভেন দেশের মধ্যে হইচই ফেলে দিয়েছে। তারা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছেন।

জার্মানির কৃষিমন্ত্রী ক্যাম অজডেমির জানিয়েছেন যে, ভারতের এই পদক্ষেপ গোটা পৃথিবীর মধ্যে খাদ্য সংকট বাড়িয়ে দেবে। আমরা ভারতের কাছ থেকে জি-২০ সদস্যরূপে নিজেদের দায়িত্ব পালনের আহবান করছি। জানিয়ে দেওয়া যাক যে ইউক্রেন রাশিয়া যুদ্ধের কারণে গমের এক্সপোর্টের বড় সমস্যা তৈরি হয়েছে এবং বাধা তৈরি হয়। ইউক্রেন এবং রাশিয়ার লড়াইয়ে গমের সরবরাহ প্রভাবিত হওয়ার পরে ভারতের গমের চাহিদা বেড়ে গিয়েছিল। যদিও ইউক্রেনের বক্তব্য যে তারা ২০ মিলিয়ন টন তাদের কাছে রয়েছে। কিন্তু তাদের ব্যবসাযুদ্ধের কারণে সম্পূর্ণভাবে শেষ হয়ে গিয়েছে।

G-7 সম্মেলনে ওঠানো হবে এই ইস্যু

ক্যাম বলেছেন যে এই ইস্যুতে আগামী মাসে জার্মানিতে g7 সম্মেলনে আলোচনা হবে। যখন ভারতের প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী সম্মেলনে অংশ নেবেন। তিনি জানিয়েছেন এক্সপোর্ট এর উপর প্রতিবন্ধকতা বাংলাদেশ এবং নেপালের মতো দেশকে প্রভাবিত করতে পারে। যাদের তৎকাল প্রয়োজন। আমরা এই অনুসারে আশা করছি যে এই সমস্যা g7 বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে। ভারতকে আমন্ত্রিত করা হবে।

সেখানে ভারত সরকার জানিয়েছে যে, তারা ঐ সমস্ত দেশের এক্সপোর্ট এর অনুমতি দেবে, যেখানে নিজেদের খাদ্য সুরক্ষা প্রয়োজন পড়ার জন্য ইমপোর্ট করতে অনুরোধ করেছেন। কারণ রিপোর্টের দাবি, ভারতের দাম কিছু বাজারে রেকর্ড উচ্চতা ছুঁয়েছে। বেড়ে চলা জ্বালানি এবং পরিবহণের খরচ ভারতে মূল্যবৃদ্ধি করেছে।

ভারত মার্চে ৭০ লক্ষ টন গম রফতানি করেছে

জানিয়ে দেওয়া যাচ্ছে ভারত মার্চে গত অর্থ বছরের ৭০ লক্ষ টন গম এক্সপোর্ট করেছিল। গত বছরের চেয়ে যা আড়াইশো গুণ বেশি। এপ্রিলে ১৪ লক্ষ টন এক্সপোর্ট করা হয়। এখন ভারতের এক্সপোর্টের ওপর প্রতিবন্ধকতার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় সঙ্গেই তা বন্ধ হয়েছে।

রাজ্যকে দেওয়া গমের পরিমাণে কাটছাঁট

এদিকে গমের এক্সপোর্ট বন্ধ করা হয়েছে, অন্যদিকে গোটা দেশের সব রাজ্যে গমের বরাতে ন্যূনতম আটটি রাজ্যের সরবরাহে আগামী মাস থেকে পরিমাণ কমিয়ে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। পরিস্থিতি গম্ভীর।

কেন হয়েছে এরকম পরিস্থিতি?

বুঝতে হবে জরুরি হলো যে শেষ পর্যন্ত ফ্রিতে আনাজের যোজনা থেকে গম চলে যাওয়ার সমস্যা কেন চলে এসেছে। হতে পারে যে সরকার কৃষকদের গম কিনে তাদের ফ্রিতে আনাজ দেওয়ার যোজনা জনতা পর্যন্ত পৌঁছয়। এবার এমন হয়েছে যে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যে বৈশ্বিক বাজারে গমের দাম বেড়ে গিয়েছে। এটা এমন কারণে হয়েছে যাতে রাশিয়া-ইউক্রেন দুজনেরই বড় প্রডিউসার। এ পর্যন্ত হিসাব অনুযায়ী সরকারের গুদামে পাঁচ বছর সবচেয়ে নীচু জায়গায় পৌঁছে গিয়েছে গমের স্টক। অনুমান করা হচ্ছে গত বছরের তুলনায় ৩০ শতাংশ পর্যন্ত সরকারি কেনা-কাটা কম হয়ে গিয়েছে। এখন পরবর্তীতে পরিমাণ কমে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ব্রেড, বিস্কুট এর উপর এই মূল্যবৃদ্ধির মারের আশঙ্কার কালো মেঘ রয়েছে। গমের এই খেলায় সমস্যা এবং চিন্তা সবচেয়ে বেড়ে গিয়েছে গোটা বিশ্বের জন্যই।