scorecardresearch
 

সুন্দরবন বাঁচাতে দেড়শ কোটি টাকার প্রকল্প , কাজ পাবেন ৩০ লাখ মানুষ

বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনকে বাঁচাতে ১৫৭ কোটি ৮৭ লাখ টাকার নতুন প্রকল্প নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। খুলনা ও বরিশাল বিভাগের খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পিরোজপুর ও বরগুনা জেলার মোট ৩৯টি উপজেলা ঘিরে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে দেশের ৩০ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান হবে বলেই আশা বাংলাদেশ সরকারের।

Sundarban Sundarban
হাইলাইটস
  • বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনকে বাঁচাতে নয়া উদ্যোগ
  • ১৫৭ কোটি ৮৭ লাখ টাকার নতুন প্রকল্প নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার
  • ২০২৪ সালের ৩০ জুনের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত করা হবে

বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনকে বাঁচাতে ১৫৭ কোটি ৮৭ লাখ টাকার নতুন প্রকল্প নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। খুলনা ও বরিশাল বিভাগের খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পিরোজপুর ও বরগুনা জেলার মোট ৩৯টি উপজেলা ঘিরে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে দেশের ৩০ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান  হবে বলেই আশা বাংলাদেশ সরকারের।

জামিনে মুক্ত ৪৪ শতাংশ সন্দেহভাজন জঙ্গি, বাংলাদেশে বাড়ছে জেহাদিদের সক্রিয়তা?

পৃথিবীর সবচেয়ে অরক্ষিত ভূখণ্ডের নাম সুন্দরবন। ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বিস্তৃত এই দ্বীপ অঞ্চল। সুন্দরবনের ওপর আশপাশের এলাকার লাখ লাখ মানুষের জীবন ও জীবিকা নির্ভরশীল। তবে অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয়রা ইদানিং মাছ, মধু, মোম,ঔষধি গাছ, চিংড়ি, কাঁকড়া বেশিমাত্রায় আহরণ করায় বনভূমির ভারসাম্য হুমকির মুখে পড়েছে। এ কারণেই তাদের দিকে সুন্দরবনের বন্যপ্রাণী জরিপ এবং জলজ সম্পদের পরিমাণ নিরূপণে উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। একইসঙ্গে জলবায়ু পরিবর্তনে মাটি ও জলের লবণাক্ততা পরীক্ষা ও জরিপ করা হবে। এ জন্য ‘সুন্দরবন সুরক্ষা প্রকল্প’ নামে একটি প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। সরকার মনে করছে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে সুন্দরবনে জীববৈচিত্র্য রক্ষা পাবে।

বৌভাতে প্রীতিভোজে কম পড়েছে মাংস! বর ও কনেপক্ষের সংঘর্ষ প্রাণ গেল কাকার

সুন্দরবনের ওপর আশপাশের এলাকার লাখ লাখ মানুষের জীবন ও জীবিকা নির্ভরশীল। তবে অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয়রা ইদানিং এ বন থেকে মাছ, মধু, মোম, গাছ, ঔষধি গাছ, চিংড়ি, কাঁকড়া অতিমাত্রায় আহরণ করছে। ফলে বনটির প্রতিবেশগত ভারসাম্য হুমকির মুখে পড়েছে। এ কারণেই সুন্দরবনের বন্যপ্রাণী জরিপ এবং জলজ সম্পদের পরিমাণ নিরূপণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। একইসঙ্গে জলবায়ু পরিবর্তনে মাটি ও পানির লবণাক্ততা পরীক্ষা ও জরিপ করা হবে। এ জন্য ‘সুন্দরবন সুরক্ষা প্রকল্প’ নামে একটি প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। সরকার মনে করছে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে সুন্দরবনে জীববৈচিত্র্য রক্ষা পাবে।

 প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এপ্রকল্পটি অনুমোদন পায়। বাংলাদেশের পরিকল্পনামন্ত্রী জানিয়েছেন ৯ হাজার ৫৬৯ কোটি ২৩ লাখ টাকা ব্যয়ের মোট ৬টি প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ৩ হাজার ৮৬৭ কোটি ৫৮ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সহায়তা থেকে ৫ হাজার ৭০১ কোটি ৬৫ লাখ টাকার জোগান দেওয়া হবে। সুন্দরবন সুরক্ষা প্রকল্পটি গ্রহণ করেছে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রক। বাংলাদেশ বন দফতর প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে।  সরকার মনে করছে  ‘সুন্দরবন সুরক্ষা’ প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে বনজ সম্পদের সরবরাহ নিশ্চিত হবে। স্থানীয় জনগোষ্ঠী তাদের মৎস্য, পণ্য ও সেবানির্ভর জীবিকা নির্বাহে সঠিক তথ্য পাবে। পাশাপাশি জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলা করাও সম্ভব হবে। ২০২৪ সালের ৩০ জুনের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।