scorecardresearch
 

Exclusive: প্রথম ছবিতেই বাজিমাত! IFFI স্ক্রীনিংয়ের পর অকপট আড্ডায় 'ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি'- পরিচালক অরিত্র

বর্ষারম্ভের আগেই উইন্ডোজ প্রোডাকশনে (Windows Productions)-র তরফ থেকে দর্শকদের জন্যে ছিল সুখবর। ভারতের আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে (International Film Festival / IFFI) নবাগত পরিচালক (Debutant Director) বিভাগে মনোনীত 'ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি' (Brahma Janen Gopon Kommoti)। এই মুহূর্তে ছবির টিম রয়েছেন গোয়ায়। ছবির স্ক্রীনিংয়ের পর আজতক বাংলা-র সঙ্গে খোলামেলা আড্ডা দিলেন পরিচালক অরিত্র মুখোপাধ্যায় (Aritra Mukherjee)।  

IFFI- তে অরিত্র মুখোপাধ্যায় IFFI- তে অরিত্র মুখোপাধ্যায়
হাইলাইটস
  • IFFI-তে মনোনীত 'ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি'।
  • স্ক্রীনিংয়ের পর খোলামেলা আড্ডায় পরিচালক অরিত্র মুখোপাধ্যায়।
  • শেয়ার করলেন অনেক অজানা কথা।

২০২০-র গোটা বছরটা করোনা অতিমারীর জেরে বিনোদন জগতে ছন্দপতন ঘটেছিল। তবে বর্ষারম্ভের আগেই উইন্ডোজ প্রোডাকশনে (Windows Productions)-র তরফ থেকে দর্শকদের জন্যে ছিল সুখবর। ভারতের আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে (International Film Festival / IFFI) নবাগত পরিচালক (Debutant Director) বিভাগে মনোনীত 'ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি' (Brahma Janen Gopon Kommoti)। এই মুহূর্তে ছবির টিম রয়েছেন গোয়ায়। ছবির স্ক্রীনিংয়ের পর সৌমিতা চৌধুরীর সঙ্গে খোলামেলা আড্ডা দিলেন পরিচালক অরিত্র মুখোপাধ্যায় (Aritra Mukherjee)।  

* IFFI-তে ইতিমধ্যে আপনাদের ছবি স্ক্রীনিং হয়েছে, কেমন ফিডব্যাক পাচ্ছেন?

অরিত্র: এই বছর কোভিডের জন্যে তুলনামূলক অনেক কম লোক IFFI তে। কিন্তু তা সত্বেও যারা এসেছেন, কি সুন্দর সাব টাইটেল বুঝে রিয়্যাকশন দিচ্ছিলেন। এই ছবিটাতে তো বাংলার মজাগুলো আছে।তাও হাসি, কান্নার সমস্ত সিনগুলোতে সেইরকম অভিব্যক্তি দেখছিলাম তাঁদের চোখে মুখে। 

* কতটা সাফল্য পেলেন? 

অরিত্র: এটা প্রথম ছবি তো, সেটার আবার IFFI তে সুযোগ পাওয়া মানেই একটা বড় সাফল্য। আমার মনে হয় সব নবাগত পরিচালকদেরই একটা স্বপ্ন থাকে এরকম একটা বড় প্যাটফর্মে যদি তাঁর ছবি দেখানো হয়। সেখানে আমরা প্রথম ছবিতেই এখানে আসতে পেরেছি, ছবিটা দেখাতে পারছি, আমাদের সকলের কাছে এটা একটা খুব বড় সাফল্য। 

অরিত্র

* ইন্ডাস্ট্রিতে এতদিন ধরে কাজ করছেন। সেই অভিজ্ঞতা কতটা কাজে লাগলো এখানে? 

অরিত্র: ইন্ডাস্ট্রিতে আমি গত ১৪ বছর কাজ করছি। যেহেতু একটা ছবি কি করে বানাতে হয়, সেটা একদম শুরু থেকে জানি, তাই সেটা অনেকটাই সুবিধা হয়েছে। আর সবচেয়ে যেটা বলার মত বিষয় সেটা হল, যে টিমের সঙ্গে আমি কাজ করেছি, তাঁরা আমার পরিচিত। আমি কী চাইছি, কী ভাবছি সমস্তটা জানে। তাই সকলে একসঙ্গে কাজটা ভাল করে করতে পেরেছি। 

* প্রথম ছবিতেই ছক্কা হাঁকিয়েছেন। দায়িত্ব অনেকটা বেড়ে গেল? 

অরিত্র: সত্যি দায়িত্ব অনেকটাই বেড়ে গেল। শুনেছি বিখ্যাত ক্রিকেটার জাভেদ মিঁয়াদাদ জীবনের প্রথম টেস্টে সেঞ্চুরি করার পর, সবাই যখন খুব লাফালাফি করছিলেন তাঁকে ঘিরে, তিনি তখন চুপ করে বসেছিলেন। তাঁকে জিজ্ঞেস করা হয়, এর কারণ কী? মিঁয়াদাদ তখন বলেছিলেন, আমার দায়িত্ব অনেকটা বেড়ে গেল। এবার জীবনের শেষ টেস্টেও সেঞ্চুরি করতে হবে। আমারও পরিস্থিতি ঠিক সেরকমই হয়ে গেছে। যদিও সত্যিই তিনি তাঁর জীবনের শেষ টেস্ট ম্যাচেও সেঞ্চুরি করেছিলেন।

 ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি

* তাহলে কি আপনিও আশা করছেন এরকমই সাফল্য? 

অরিত্র: (জোড়ে হেসে) হ্যাঁ আমারও এরকমই অবস্থা হয়েছে। এতটা দায়িত্ব বেড়ে গেছে যে, প্রত্যেকে আশা করবেন ভাল ছবির জন্যে। আমি এবং আমার পুরো টিম চেষ্টা করি সবসময় মাথায় রাখতে যে পরের ছবিটা আরও ভাল করে করতে হবে।

* পরের ছবির পোস্টার তো ইতিমধ্যে সামনে এসেছে... 

অরিত্র: হ্যাঁ 'বাবা বেবি ও!' যীশু সেনগুপ্ত রয়েছেন এই ছবিতে। এটি একটি ফ্যামিলি 'রম কম'। রিলিজ ডেট এখনও পর্যন্ত ঠিক হয়নি। যা পরিস্থিতি... তবে আশা করি আমরা ২০ মার্চ থেকে ফ্লোরে যাব এবং সব ঠিক থাকলে এই বছরই মুক্তি পাবে। 

IFFI তে অরিত্র ও টিম

* IFFI -র জন্য এই মুহূর্তে গোয়ায় রয়েছেন। এই জায়গায় দাঁড়িয়ে 'ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি'-র কোন স্মৃতিটা খুব মনে পড়ছে? 

অরিত্র: (একটু ভেবে) আমার একটা জিনিস খুব মনে আছে, প্রথম দিন শুট্যিংয়ের সময়ে... শটে যাওয়ার আগে তো পরিচালক বলেন 'অ্যাকশন'। এতদিন আমি নন্দিতা দি আর শিবু দাকে অ্যাসিস্ট করেছি। দাদাই সব সময় 'অ্যাকশন' বলতেন আর আমি পুরো বিষয়টা রেডি করতাম। এই ছবির ক্ষেত্রে সমস্ত কিছু রেডি করে আমি ওয়েট করছিলাম দাদা অ্যাকশন বলবেন...তখন আমার টিম মেম্বাররা আমাকে মনে করালেন তোমার রোল পাল্টে গেছে, তুমি এবার পরিচালক। ...এই মজাটা প্রথমের বেশ কয়েকদিন হতো। একটা ভালো লাগাও আছে এটার সঙ্গে। 

* এই পুরো ছবিটার জন্যে শ্যুটিংয়ের বাইরে বিনিদ্র রজনী কেটেছে? 

অরিত্র: অনেক! ছবি শুরুর আগে, ছবির শেষ হওয়ার পর, রিলিজের আগে তো ভালো করে ঘুমাতেই পারতাম না। ট্রাইগ্লিসারাইড বেড়ে গেল! 

অরিত্র ও টিম

* ছবিটা নিয়ে যতটা আশা করেছিলেন, অতিমারীর জন্যে তো প্রথমবার মুক্তি পাওয়ার পর নিরাশ হতে হয়েছিল...

অরিত্র: প্রথম ১২ দিনের রেসপন্স খুব ভালো ছিল। ছবিটার গ্রাফ যেভাবে উঠছিল, তা খুবই ভালো। আমার এখনও মনে আছে যেদিন বন্ধ হয়, সেদিনও তিনদিনের হাউসফুলের টাকা ফেরত দিয়েছিল নন্দন। মানে নন্দনের সাড়ে ৯০০ সিট আগামী তিন দিনের জন্যে পুরো ভর্তি ছিল। এমনকি শেষ দুদিনের শো, সপ্তাহের মাঝামাঝি দিনে হওয়া সত্বেও হাউসফুল হয়েছিল। সত্যিই খুব মন খারাপ হয়েছিল...

* এরপর দর্শকেরা কিভাবে ছবিতে দেখতে পাবেন তাহলে? 

অরিত্র: আমাদের খুব শীঘ্রই ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হবে এবং হটস্টার ওটিটি প্ল্যাটফর্মে ছবিটা আসবে আশা করি। 

ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি

* আপনার ছবির অভিনেতা- অভিনেত্রীরা কী বলছেন? কতটা খুশি তাঁরা আপনার সঙ্গে কাজ করতে পেরে? 

অরিত্র: সোহম, ঋতাভরী সকলে আমার খুব ভালো বন্ধু হয়ে গেছে। এছাড়া উইন্ডোজের সকলে আমরা একটা পরিবারের মতো। কলকাতাতে এলেই সকলের সঙ্গে দেখা করি। 

* আপনি কী তাহলে কলকাতার বাইরে থাকেন? 

অরিত্র: আমার বাড়ি শান্তিনিকেতনে। ক্লাস টুয়েলভ অবধি আমি বিশ্বভারতীর ছাত্র ছিলাম। তারপরে কলকাতায় এসে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা করেছি। 

ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি

* 'ব্রহ্মা জানেন গোপন কম্মটি'-র  মতো একটা সামাজিক ছবি দর্শক ও ইন্ডাস্ট্রিকে উপহার দিলেন। এবার তাঁদের থেকে কী রিটার্ন গিফ্ট আশা করেন? 

অরিত্র: ছোট ছোট রিটার্ন গিফ্ট অনেকগুলো পাচ্ছি। ছবিতে যেটা দেখাতে চেয়েছি, যে বার্তাটা পৌঁছাতে চেয়েছি, অনেকের মধ্যে একটা পরিবর্তন এসেছে ছবিটা দেখে। যেমন আমাদের ছবিতে যে মন্দিরটা দেখানো হয়েছে সেখানে আগে শুধু কৃষ্ণের পুজো হতো। ছবিটা দেখার পর তাঁরা নিজেরা আমাকে বলেছেন যে তাঁদের মন্দিরে এখন রাধার পুজোও হয়। এই পরিবর্তনটা কোনও একটা জায়গা থেকে শুরু হওয়া খুব দরকার। এটাই খুব বড় প্রাপ্তি....

 
; ; ;