scorecardresearch
 
 

Nusrat Jahan: 'নুসরত আমায় চিট করেছে,' বিস্ফোরক নিখিল জৈন

বৃহস্পতিবার ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে একটি বিবৃতি জারি দিলেন নিখিল। বিবৃতিতে নিখিল জানিয়েছেন, বার বার বলা সত্ত্বেও বিয়ের রেডিস্ট্রেশন করাতে রাজি হননি নুসরত। একই সঙ্গে তাঁর ব্যবহারও যে দিন দিন পাল্টে গিয়েছিল সেটাও বিবৃতিতে উল্লেখ করেন নিখিল। বিবৃতিতে নিখিল আরও জানান, নুসরত তাঁকে চিট করেছেন।

নুসরত নিখিল নুসরত নিখিল
হাইলাইটস
  • বৃহস্পতিবার ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে একটি বিবৃতি জারি করলেন নিখিল।
  • নিখিল জানিয়েছেন, বার বার বলা সত্ত্বেও বিয়ের রেডিস্ট্রেশন করাতে রাজি হননি নুসরত।
  • বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে নুসরতের নানা খবর দেখার পর অনুভব করি ও আমায় চিট করেছে।

বিবৃতির জবাব বিবৃতিতেই দিলেন নিখিল জৈন। গত কাল ৯ জুন বুধবার অভিনেত্রী নুসরত জাহান (Nusrat Jahan) বিয়ে সম্পর্ক ইত্যাদি একটি আনুষ্ঠআনিক বিবৃতি জারি করেছিলেন। সেখানে নানা অভিযোগ ছিল নিখিলের (Nikhil Jain) বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে একটি বিবৃতি জারি করলেন নিখিল। বিবৃতিতে নিখিল জানিয়েছেন, বার বার বলা সত্ত্বেও বিয়ের রেডিস্ট্রেশন করাতে রাজি হননি নুসরত। একই সঙ্গে তাঁর ব্যবহারও যে দিন দিন পাল্টে গিয়েছিল সেটাও বিবৃতিতে উল্লেখ করেন নিখিল। বিবৃতিতে নিখিল আরও জানান, নুসরত তাঁকে চিট করেছেন।

বিবৃতিতে নিখিল লিখেছেন, 'নুসরতকে ভালোবেসে আমি বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলাম সেটা ও আনন্দের সঙ্গে গ্রহণ করেছিল। আমরা ২০১৯-এর জুন মাসে তুরস্কের বোদরুমে গিয়েছিলাম ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ের জন্য। তার পর কলকাতায় ফিরে রিসেপশন পার্টি হয়। আমরা স্বামী-স্ত্রী হিসাবে বাস করেছি, সমাজে পরিচিত হয়েছি। স্বামী হিসাবে আমার দায়িত্ব এবং কর্তব্য নিয়ে সন্দেহের কোনও অবকাশ নেই। আমি নুসরতের জন্য কী কী করেছি তা আমার পরিবার এবং বন্ধুরা জানেন। ২০২০ সালের অগস্ট মাসে একটি সিনেমার শুটিংয়ের পর থেকে আমার প্রতি নুসরতের ব্যবহার পাল্টে যায়। কী কারণে তা নুসরতই ভালো বলতে পারবে।'

নিখিলের বিবৃতিতে আরও লেখা ছিল, 'আমি ওকে বহুবার বিয়ের রেজিস্ট্রেশন করানোর জন্য অনুরধ করেছিলাম। কিন্তু ও কিছুতে রাজি হয়নি। ২০২০ সালের ৫ নভেম্বর নিজের সমস্ত জিনিসপত্র এবং মূল্যবান সামগ্রী নিয়ে আমার ফ্ল্যাট ছেড়ে নুসরত চলে যায়। বালিগঞ্জে ওর নিজের ফ্ল্যাটে ওঠে। তার পর থেকে আমরা কখনও স্বামী-স্ত্রী হিসাবে এখ সঙ্গে বসবাস করিনি। বাকি কিছু জিনিস এবং দরকারি কাজপত্র ইত্যাদি ছিল যা পরে ওর ফ্ল্যাটে পাঠানো হয়। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে নুসরতের নানা খবর দেখার পর অনুভব করি ও আমায় চিট করেছে। বাধ্য হয়ে ২০২১ সালের ৮ মার্চ নুসরতের বিরুদ্ধে দেওয়ানি মামলা করি আলিপুর জজ কোর্টে। এটা এখন বিচারাধীন বিষয় তাই আমি কোনও মন্তব্য করতে চাইনি। তবে ওর জারি করা বিবৃতির পর বাধ্য কিছু ঘটনা জানালাম।'

আরও পড়ুন: শুধু নিখিল, যশ নয়! আগেও সম্পর্ক নিয়ে শিরোনামে এসেছেন নুসরত জাহান 

নিখিল আরও জানান, বিয়ের পর বিরাট অঙ্কের গৃহঋণ থেকে মুক্ত করার জন্য তাঁদের পারিবারিক ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে বড় অঙ্কের টাকা ট্রান্সফার করা হয়। সরল বিশ্বাসের ভিত্তিতে সে টাকা দেওযা হয়েছিল নুসরতকে। যে ট্রান্সফার নুসরত দাবি করছে তা ঋণ মেটানোর কিস্তি। এখনও বড় অঙ্কের টাকা বাকি রয়েছে বলে দাবি করেন নিখিল। যে অভিযোগ নুসরত তাঁর বিরুদ্ধে করেছেন তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং অসত্য। বিবৃতিতে এমনটাই জানিয়েছেন নিখিল।

যশ দাশগুপ্ত-র (Yash Dasgupta) সঙ্গে সম্পর্কের জল্পনা। এক দিকে গর্ভবতী হওয়ার খবর, অন্য দিকে স্বামী নিখিল জৈনের (Nikhil Jain) সঙ্গে আলাদা থাকা, সব নিয়েই খবরের শিরোনামে গত কয়েক মাস ধরেই ছিলেন অভিনেত্রী সাংসদ নুসরত জাহান (Nusrat Jahan)। বুধবার ৯ জুন আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিয়ে নিখিল এবং তাঁর বিয়ে যে বৈধ নয়, সে কথা স্পষ্ট করেন নুসরত। একই সঙ্গে একগুচ্ছ অভিযোগ এনেছেন নিখিলের বিরুদ্ধে। যার মধ্যে অবৈধ ভাবে তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তোলা, গয়না সরানো ইত্যাদিও সামিল ছিল।

আরও পড়ুন: বেআইনিভাবে তাঁর ব্যঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলতেন নিখিল! চাঞ্চল্যকর অভিযোগ নুসরতের

গত কাল এ বিষয়ে আজতক বাংলার তরফ থেকে নিখিলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, 'আমি অনেক আগেই এ নিয়ে মামলা করেছি। এটা এখন বিচারাধীন বিষয়। তাই কোনও মন্তব্য করব না। আমি আদালতে অ্যানালমেন্ট অফ ম্যারেজ বিষয়ক মামলা আগেই করেছি। তাই নুসরতের কোনও অভিযোগ বা মন্তব্যের পাল্টা মন্তব্য করব না কারণ এটা এখন আইনগত বিষয়। আদালতে যত ক্ষণ পর্যন্ত এর কোনও মিমাংসা না হচ্ছে মন্তব্য করা ঠিক হবে না।'