scorecardresearch
 

সংক্রমণের নয়া রেকর্ড, দেশে একদিনে আক্রান্ত প্রায় ১ লক্ষ ৩২ হাজার

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ৩১ হাজার মানুষ। করোনাকালে এখনও পর্যন্ত এটাই একদিনে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ। শুক্রবারের রিপোর্ট বলছে ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ৩১ হাজার ৯৬৮ জন। এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৭৮০ জনের। অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ৯ লক্ষ ৭৯ হাজার ৬০৮।

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • সংক্রমণ মারাত্মক আকার ধারণ করছে
  • মহারাষ্ট্র ও দিল্লির অবস্থা সবচেয়ে খারাপ
  • সংক্রমণের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী বাংলাতেও

দিন দিন নিজের মারণ থাবা চওড়া করছে করোনা (Corona)। প্রতিদিনিই বেড়ে চলেছে সংক্রমণ। নিজের রেকর্ড নিজেই ভাঙছে করোনা। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ৩১ হাজার মানুষ। করোনাকালে এখনও পর্যন্ত এটাই একদিনে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ। শুক্রবারের রিপোর্ট বলছে ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ৩১ হাজার ৯৬৮ জন। এই সময়ের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৭৮০ জনের। অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ৯ লক্ষ ৭৯ হাজার ৬০৮। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১ কোটি ৩০ লক্ষ ৬০ হাজার ৫৪২ জন। পাশাপাশি এখনও পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সংখ্যা ১ লক্ষ ৬৭ হাজার ৬৪২। 

যদি চলতি সপ্তাহের সংক্রমণের দিকে নজর দেওয়া যায় তবে দেখা যাবে, শুক্রবার ১.৩১ লক্ষ, বৃহস্পতিবার ১.২৬ লক্ষ, বুধবার ১.১৫ লক্ষ, মঙ্গলবার ৯৬ হাজার এবং সোমবার ১.০৩ লক্ষ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। 

মহারাষ্ট্র ও দিল্লির অবস্থা ভয়াবহ
দেশের মধ্যে বর্তমানে সংক্রমণে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা মহারাষ্ট্রে (Maharashtra)। গত প্রায় ১০ দিনে রোজ ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। গতকাল মহারাষ্ট্রে নতুন করে ৫৬ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হন। তারমধ্যে শুধু মুম্বইতেই আক্রান্তের সংখ্যাটা ছিল প্রায় ৯ হাজার। পাশাপাশি এই একই সময় দিল্লিতে (Delhi) নতুন করে মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে সাত হাজার মানুষ, যা গত ৬ মাসে সমস্ত রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। 

এছাড়া উত্তরপ্রদেশের সংক্রমণেও লাগাম পরানো যাচ্ছে না। গতকালই উত্তরপ্রদেশে ৮ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, যা করোনার শুরুর সময় থেকে এখনও পর্যন্ত একদিনে সবচেয়ে বেশি। পরিসংখ্যান বলছে, গতকাল মুম্বইতে ৫৬,২৮৬, দিল্লিতে ৭,৫৩৭, উত্তরপ্রদেশে ৮,৪৭৪ এবং কর্ণাটকে ৬,৫৭০ জন মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। 

যদি বাংলার দিকে নজর রাখা যায় তবে সর্বশেষ বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ২,৭৮৩। ফলে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৬,০২,৮০৭ জন। রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে আরও ৭ জনের। ফলে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ১০,৩৭০। এই সময়ের মধ্যে রাজ্যে সুস্থ হয়েছেন ৯৫৭ জন। ফলে রাজ্যে মোট সুস্থের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৫,৭৬,৩২৮। সুস্থতার হার ৯৫.৬১ শতংশ। রাজ্যে বর্তমানে অ্যাকটিভ করোনা রোগীর সংখ্যা ১৬,১০৯ জন। 

এদিকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে দেশব্যাপী লকডাউন জারি না করারই ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে টেস্ট বাড়ানোর পরামর্শও দিয়েছেন মোদী।