scorecardresearch
 
 

আধারের গেরোয় আঁধারে COVID টিকা, পাওয়া নিয়ে সংশয়

করোনা টিকাকরণে আধার বাধ্যতামূলক বলা যেতে পারে। আর এ কারণে সমস্যা তৈরি হয়েছে। এমন অনেকে রয়েছেন যাঁদের আধার কার্ড নেই।

আধার ছাড়া করোনার টিকা পেতে সমস্যায় পড়ছেন মানুষ। এমনই অভিযোগ উঠেছে (প্রতীকী ছবি) আধার ছাড়া করোনার টিকা পেতে সমস্যায় পড়ছেন মানুষ। এমনই অভিযোগ উঠেছে (প্রতীকী ছবি)
হাইলাইটস
  • করোনা টিকাকরণে আধার বাধ্যতামূলক বলা যেতে পারে
  • আর এ কারণে সমস্যা তৈরি হয়েছে
  • এমন অনেকে রয়েছেন যাঁদের আধার কার্ড নেই

করোনা টিকাকরণে আধার বাধ্যতামূলক বলা যেতে পারে। আর এ কারণে সমস্যা তৈরি হয়েছে। এমন অনেকে রয়েছেন যাঁদের আধার কার্ড নেই। কী করে টিকা পাবেন, তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে। বিভিন্ন চিকিৎসক সংগঠন, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এই নিয়ম বদলানোর দাবি তুলেছেন।

এর পাশাপাশি তাঁরা আরও দাবি তুলেছেন, যাঁরা কোউইন-এ নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন না, তাঁদের নাম তোলানোর দায়িত্ব সরকারকে নিতে হবে।

কারণ অনেকেরই স্মার্ট ফোন নেই। অনেক মানুষ প্রযুক্তি, ইন্টারনেট ব্যবহারে সড়গড় নন। তাঁদের যাতে কোনও সমস্যা না হয়, তার দায়িত্ব নিতে হবে সরকারকে।

অনেকে দাবি তুলেছেন, দিন কয়েক আগে এই রাজ্যে চালকদের জন্য করোনার টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। তাঁদের ক্ষেত্রে ড্রাইভিং লাইসেন্স পরিচয়পত্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছিল। টিকা পেতে তাঁদের কোনও সমস্যা হয়নি বলেই খবর।

অনেক সংগঠন নিখরচায় টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে। টিকা পেতে তাদের কাছে বহু মানুষ আবেদন করেছেন। এঁদের মধ্যে অনেকের আধার নেই। আর সার ফলে তাঁদের না করে দিতে হচ্ছে। এঁরা কী করে টিকা পাবেন, তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে। কারণ এঁদের মধ্যে অনেকে সুপার স্প্রেডারও রয়েছে।

বুধবার অ্যাসোসিয়েশন অফ হেল সার্ভিস ডক্টর্সের সাধারণ সম্পাদক মানস গুমটা জানান, একটা মানুষের পরিচয় তো শুধু আধার নয়। তাঁর পরিচয় ভোটার, প্যান কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স। তাই সেগুলির মধ্যে কোনও একটা দিয়ে যাতে কোউইন অ্য়াপ বা ওয়েবসাইটে মানুষ নিজেদের নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন, তার ব্যবস্থা করতে হবে সরকারকে।

তাঁর আরও দাবি, এর পাশাপাশি যাঁরা নিজেদের নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন না, তাঁদের কী ভাবে করিয়ে দেবেন, সেটা সরকারের দায়িত্ব। আধার নেই বলে টিকা থেকে বঞ্চিত হবেন, এটা ঠিক নয়।

তিনি জানাচ্ছে, সরকারকে একটা উপায় বের করতেই হবে। এর আগে যখন কোউইন ওয়েবসাইট কাজ করছিল না, তখন তো অফলাইনেও টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। যাঁরা নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন না, তাঁদের তো আধার কার্ড থাকা সত্ত্বেও টিকা পাবেন না।

তিনি আরও জানান, যাঁরা নিজেরা পারছেন না, তাঁরাও আসুন টিকাগ্রহণ কেন্দ্রে, তাঁদের নাম তোলার দায়িত্ব সরকারের, এটা ঘোষণা করতে হবে। কিছু সংখ্যক মানুষের আধার না-ই থাকতে পারে। তাঁরা তো বঞ্চিত হতে পারেন না। এমন হতেই পারে তাঁরা আধার তৈরি করেননি।

গঙ্গাদেবী চ্য়ারিটেবল ট্রাস্ট বিনা খরচে টিকা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। ওই সংগঠনের চেয়ারম্যান বিজয়শঙ্কর আগরওয়াল জানান, আধার না থাকলে টিকা দিতে সমস্যা রয়েছে। অনেককে না-করে দিতে হচ্ছে। অনেকে বলছেন, দাদা আমার কাছে আধার কার্ড নেই। প্রশাসনকে অনুরোধ করব এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার।