scorecardresearch
 

মেয়ের শ্লীলতাহানির প্রতিবাদ করায় বাবাকে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ, হাওড়ায় ধৃত ১

গত রবিবার সন্ধ্যে সাড়ে ৬টা নাগাদ সাইকেলে চেপে টিউশন পড়তে যায় দশম শ্রেণির এক ছাত্রী। রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ বাড়ি ফিরছিল সে। অভিযোগ, সেই সময়ই তার পথ আটকে দাঁড়ায় ৩ দুষ্কৃতী। ছাত্রীর হাত ধরে টানা-হিঁচড়া করতে থাকে তারা। দুষ্কৃতীদের হাত থেকে বাঁচতে চিৎকার শুরু করে ওই ছাত্রী। সেই সময় ওই ছাত্রীর চিৎকার শুনে ছুটে যান তার বাবা এবং তাকে দুষ্কৃতীদের হাত থেকে বাঁচান। 

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • শ্লীলতাহানির প্রতিবাদ করায় খুন
  • হাওড়ার শ্যামপুরের ঘটনা
  • ইতিমধ্যেই গ্রেফতার ১

মেয়ের শ্লীলতাহানির প্রতিবাদ করায় দুষ্কৃতীদের মারধরে মৃত্যু বাবার। ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার উলুবেড়িয়ার (Howrah Uluberia) শ্যামপুরে। ঘটনায় ইতিমধ্যেই থানায় ৩ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। গ্রেফতারও করা হয়েছে একজনকে। ঘটনার জেরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। 

জানা গিয়েছে, গত রবিবার সন্ধ্যে সাড়ে ৬টা নাগাদ সাইকেলে চেপে টিউশন পড়তে যায় দশম শ্রেণির এক ছাত্রী। রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ বাড়ি ফিরছিল সে। অভিযোগ, সেই সময়ই তার পথ আটকে দাঁড়ায় ৩ দুষ্কৃতী। ছাত্রীর হাত ধরে টানা-হিঁচড়া করতে থাকে তারা। দুষ্কৃতীদের হাত থেকে বাঁচতে চিৎকার শুরু করে ওই ছাত্রী। সেই সময় ওই ছাত্রীর চিৎকার শুনে ছুটে যান তার বাবা এবং তাকে দুষ্কৃতীদের হাত থেকে বাঁচান। 

অভিযোগ, এরপর পর সেই ঘটনার 'বদলা' নিতে ওই ছাত্রীর বাবাকে আক্রমণ করে দুষ্কৃতীরা। তাঁকে অন্ধকার ফাঁকা মাঠে নিয়ে গিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। দুষ্কৃতীদের মারধরে অচৈতন্য হয়ে পড়েন ওই ছাত্রীর বাবা। এরপর তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে শ্যামপুরের একটি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উলুবেড়িয়া মহকুমা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয় ওই ব্যক্তিকে। এরপর সোমবার রাতে মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির।

এই ঘটনায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। ঘটনায় ইতিমধ্যেই শ্যামপুর থানায় (Shyampur Police Station) অভিযোগ দায়ের করেছে মৃতের পরিবার। ৩ জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়েছে অভিযোগ। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে খুন, শ্লীলতাহানি-সহ বেশ কয়েকটি ধারায় মামলা করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। তদন্তে নেমে ইতিমধ্যেই একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বাকি দু'জনের খোঁজেও চলছে তল্লাশি। দোষীদের কড়া শাস্তির দাবি জানিয়েছে মৃতের পরিবার। প্রসঙ্গত, রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে প্রায় প্রতিদিনই কোনও না কোনও নারী নিগ্রহের অভিযোগ সামনে আসে। সেই তালিকায় নবতম সংযোজন শ্যামপুরের এই ঘটনা। যার জেরে রাজ্যে মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে ফের একবার প্রশ্ন উঠে গেলে বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞমহল। 

আরও পড়ুন - কলকাতা-বিধাননগরে বন্ধ করা যাবে না হুক্কা বার, নির্দেশ হাইকোর্টের