scorecardresearch
 

Post Result Violence : "শুধু পশ্চিমবঙ্গেই কেন হিংসা?", প্রশ্ন তুললেন রাজ্যপাল

ফলাফল পরবর্তী হিংসার প্রেক্ষিতে কড়া ট্যুইট রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের (Jagdeep Dhankhar)। ট্যুইটে রাজ্য পুলিশ ও কলকাতার পুলিশ কমিশনারের উদ্দেশ্যে ধনখড় লেখেন, "গণতন্ত্রের পক্ষে লজ্জাজনক এমন অনর্থক হিংসা, খুন, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ বন্ধ হওয়া উচিত। এই অরাজকতা নিয়ে বিশ্বব্যাপী বাঙালিরা উদ্বেগ প্রকাশ করছেন।" ট্যুইটে ধনখড় প্রশ্ন তোলেন, "কেন শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গেই নির্বাচন পরবর্তী হিংসা? কেন গণতন্ত্রের ওপরে এই হামলা?"

জগদীপ ধনখড় জগদীপ ধনখড়
হাইলাইটস
  • ফলাফল পরবর্তী হিংসায় উদ্বিগ্ন রাজ্যপাল
  • "কেন গণতন্ত্রের ওপরে হামলা?"
  • প্রশ্ন জগদীপ ধনখড়ের

নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরে রাজ্যে চলছে লাগাতার হিংসার ঘটনা। এবার সেই হিংসার প্রেক্ষিতে কড়া ট্যুইট রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের (Jagdeep Dhankhar)। ট্যুইটে রাজ্য পুলিশ ও কলকাতার পুলিশ কমিশনারের উদ্দেশ্যে ধনখড় লেখেন, "গণতন্ত্রের পক্ষে লজ্জাজনক এমন অনর্থক হিংসা, খুন, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ বন্ধ হওয়া উচিত। এই অরাজকতা নিয়ে বিশ্বব্যাপী বাঙালিরা উদ্বেগ প্রকাশ করছেন।" ট্যুইটে ধনখড় প্রশ্ন তোলেন, "কেন শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গেই নির্বাচন পরবর্তী হিংসা? কেন গণতন্ত্রের ওপরে এই হামলা? ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির ইঙ্গিত। আতঙ্কিত মানুষ প্রাণ বাঁচাতে পালাচ্ছেন।" একইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীকে রাজ্যে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার কথাও বলেন ধনখড়। 

প্রসঙ্গত নির্বাচনে ফল ঘোষণার পর থেকে এখনও পর্যন্ত হিংসায় বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে বিজেপি - তৃণমূল উভয়পক্ষের লোকই রয়েছেন। শুধুমাত্র পূর্ব বর্ধমানের এখনও পর্যন্ত ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহতও হয়েছেন বেশ কয়েকজন। সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে জেলার রায়না ও জামালপুরে । জামালপুরের নবগ্রামে তৃণমূল (TMC) বিজেপি (BJP) সংঘর্ষে মৃত তিন জন। মৃতরা হলেন কাকলি ক্ষেত্রপাল,শাজাহান শাহ ও বিভাস বাগ। অন্যদিকে রায়নায় মৃত্যু হয়েছে গণেশ মালিক নামে এক ব্যক্তির। এছাড়া তৃণমূলেরও একজন রাজনৈতিক হিংসার বলি হয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে।

এদিকে হুগলির খানাকুলে তৃণমূলের এক নেতাকে পিটিয়ে খুনের অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৪ বিজেপি কর্মীকে আটক করা হয়েছে। অন্যদিকে কলকাতায় বিজেপির এক কর্মীকে পাথর মেরে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ। 

বীরভূমের নানুরে দুই মহিলা বিজেপি কর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। আরও এক মহিলার শ্লীলতাহানি করা হয়েছে বলেও অভিযোগ। পাশাপাশি বাঁকুড়ার কোতুলপুরে বিজেপির এক্স সার্ভিসম্যান সেলের বিষ্ণুপুর আহ্বায়কের বাড়ির সামনে বোমাবাজি ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। যাদবপুর বিধানসভার ১০৯ নম্বর ওয়ার্ডের মুকুন্দপুরে বিজেপি কর্মকর্তা বিদ্যুৎ সাহার বাড়িতে হামলা এবং গাড়িতে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে। 

এদিকে এই পরিস্থিতিতে আজ ফের রাজ্যে বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডা (J P Nadda)। একাধিক জায়গায় নিহত দলীয় কর্মীদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। তবে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বারেবারে অভিযোগ উঠলেও দলীয় নেতা কর্মী সমর্থকদের শান্ত থাকার পরামর্শই দিয়েছেন নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।