scorecardresearch
 

হাতির হামলার আশঙ্কা! বুথ পাহারায় এবার দেখা মিলবে এদের

যে কোনও সময়ে তাণ্ডব চালাতে পারে হাতির দল। রয়েছে অন্য প্রাণীর আক্রমণের ভয়ও।  তাই  ভোটের সময়ে পাহারায় থাকবেন ভোট কর্মীরাও। জানা গিয়েছে, আলিপুরদুয়ার জেলার ৫টি বিধানসভা কেন্দ্রের প্রত্যেকটি কেন্দ্রেই বনাঞ্চল রয়েছে। তাতে রয়েছে হতির করিডর। পাশাপাশি রয়েছে চিনাবাঘ, বাইসন ও অন্য বন্যপ্রাণীও।

পাহারায় থাকবেন বনকর্মীরা পাহারায় থাকবেন বনকর্মীরা
হাইলাইটস
  • হামলা চালাতে পারে হাতি
  • ভোটে এবার পাহারায় বনকর্মীরা
  • আলিপুরদুয়ারে দেখা যাবে এই চিত্র

যে কোনও সময়ে তাণ্ডব চালাতে পারে হাতির দল। রয়েছে অন্য প্রাণীর আক্রমণের ভয়ও।  তাই  ভোটের সময়ে পাহারায় থাকবেন ভোট কর্মীরাও। জানা গিয়েছে, আলিপুরদুয়ার জেলার ৫টি বিধানসভা কেন্দ্রের প্রত্যেকটি কেন্দ্রেই বনাঞ্চল রয়েছে। তাতে রয়েছে হতির করিডর। পাশাপাশি রয়েছে চিনাবাঘ, বাইসন ও অন্য বন্যপ্রাণীও। নির্বাচনী প্রক্রিয়ার মধ্যে যাতে আচমকা এসমস্ত বন্যপ্রাণী গুলি এসে বিঘ্ন না ঘটে তার জন্য বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নির্বাচন কমিশনের তরফে। তাই এই বিধানসভা নির্বাচনে আলিপুরদুয়ার জেলার ৫ টি বিধানসভা কেন্দ্রে কেন্দ্রীয় বাহিনী পুলিশের পাশাপাশি বনদপ্তর কর্মীদের মোতায়েন রাখা হচ্ছে। যাতে আচমকা বিপর্যয় ঘটছে বনকর্মীরা ব্যবস্থা নিতে পারেন।

কড়া নজরদারি

 নির্বাচন কমিশনের হিসেব অনুযায়ী বনাঞ্চলের অন্তর্গত ১১৮ টি পোলিং স্টেশন রয়েছে। বন্যপ্রাণীর হামলা রুখতেও বনাঞ্চলে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বাড়তি দায়িত্ব এবার বনদফতরের। সূত্রের খবর, নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী এ বিষয়ে প্রস্তুতি শুরু করেছে বন দফতর। ভোটের কাজে বুথে যাওয়া নিরাপত্তারক্ষী, ভোটকর্মীদের বন্যপ্রাণীর হামলা থেকে রক্ষা করতে ও বনাঞ্চলের অপ্রীতিকর কোনও ঘটনা এড়াতেই ফরেস্ট গার্ডদের বেশ কিছু পোলিং স্টেশন সহ হাতির করিডর এলাকায় নজরদারির দায়িত্ব দেওয়া হবে। গভীর বনাঞ্চলের মধ্যে থাকা চারটি বুথে মোবাইল নেটওয়ার্ক নেই বলে জানা গিয়েছে। সেই পোলিং স্টেশনগুলিতে বনদপ্তরের ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ককে কাজে লাগানো হবে।

আরও পড়ুন, হাতির ভয়! বুথমুখী ভোটারদের পাহারায় বনকর্মীরা
 
পাহারায় বনকর্মীরা

আলিপুরদুয়ারে ওই বুথগুলিতে নিরাপত্তা ও ভোট প্রক্রিয়ায় যাতে কোনও সমস্যা না হয় তার জন্যই এই পদক্ষেপ নিয়েছে বন দফতর। ভোটের দিন মূলত বুথগুলিতে ও হাতির করিডর গুলিতে নজরদারি চালানো হবে। কোনওরকম অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বাড়তি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। এর আগে প্রথম দফার ভোটের সময়ে পশ্চিম মেদিনীপুরে এই চিত্র দেখা গিয়েছিল। সেখানে মাঝেমধ্যে হাতি লোকালয়ে চলে আসছে। তাই জঙ্গললাগোয় বুথগুলি ও হাতির করিডর গুলিতে নজরদারি চালিয়েছিল বন দফতর।