scorecardresearch
 

West Bengal Election 4th Phase Polling: শনিবার চতুর্থ দফা, বিরোধী হেভিওয়েট প্রার্থী কারা জানেন?

আগামী শনিবার ১০ তারিখ চতুর্থ দফার নির্বাচন (Fourth Phase Polling)। লড়াইয়ের ময়দানে রয়েছেন তৃণমূলের (TMC) বেশকিছু হেভিওয়েট প্রার্থী। তবে পিছিয়ে নেই বিরোধীরাও। বিজেপি (BJP), বাম (Left Front) ও কংগ্রেস (Congress), সব দলেরই বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হবে এই পর্বে। বর্ষীয়ান থেকে ইয়াং ব্রিগেড, অনেকেই রয়েছেন সেই তালিকায়। রয়েছেন তারকারাও।

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • ১০ তারিখ চতুর্থ দফার নির্বাচন
  • উত্তরবঙ্গেও হবে ভোটগ্রহণ
  • বিরোধী হেভিওয়েট প্রার্থীদের দেখুন একনজরে

মাঝে আর মাত্র ১টা দিন। তারপরেই চতুর্থ দফার নির্বাচন (Fourth Phase Polling)। লড়াইয়ের ময়দানে রয়েছেন তৃণমূলের (TMC) বেশকিছু হেভিওয়েট প্রার্থী। তবে পিছিয়ে নেই বিরোধীরাও। বিজেপি (BJP), বাম (Left Front) ও কংগ্রেস (Congress), সব দলেরই বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হবে এই পর্বে। বর্ষীয়ান থেকে ইয়াং ব্রিগেড, অনেকেই রয়েছেন সেই তালিকায়। রয়েছেন তারকারাও। দেখে নেওয়া যাক চতুর্থ দফার নির্বাচনে বিরোধীদের বিশেষ প্রার্থী কারা। 

নিশীথ প্রামাণিক
কোচবিহারের দিনহাটা কেন্দ্রে বিজেপির হয়ে লড়াই করছেন নিশীথ প্রামাণিক। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে কোচবিহারে জয়ী হয়েছিলেন নিশীথ। তাঁকে বিধানসভা নির্বাচনে ফের প্রার্থী করেছে দল। এখন দেখার এবারেও তিনি জয়ের হাসি হাসতে পারেন কি না।  

রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়

হাওড়ার ডোমজুড় কেন্দ্র থেকে বিজেপির টিকিটে লড়ছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। কয়েক মাস আগেই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন রাজীব। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের মন্ত্রীও ছিলেন তিনি। 

রথীন চক্রবর্তী
হাওড়ার শিবপুর আসন থেকে বিজেপির টিকিটে লড়ছেন রথীন চক্রবর্তী। নির্বাচন ঘোষণার আগেই তিনি তৃণমূল ছেড়ে যোগ দেন বিজেপিতে। হাওড়া পুরনিগমের মেয়র পদেও দায়িত্ব সামলেছেন রথীনবাবু। 

বৈশালী ডালমিয়া
হাওড়ার বালিতে বিজেপির প্রার্থী বৈশালী ডালমিয়া। গতবারে ওই কেন্দ্রেই তৃণমূলের টিকিটে জয়ী হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু নির্বাচনের তৃণমূল থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পর বিজেপিতে যোগ দেন বৈশালী। তাঁকে ফের ওই কেন্দ্রেই প্রার্থী করেছে বিজেপি।

প্রবীর ঘোষাল
হুগলির উত্তরপাড়া থেকে লড়ছেন প্রবীর ঘোষাল। গতবারেও ওই কেন্দ্র থেকেই জিতেছিলেন তিনি। তবে তখন তিনি ছিলেন তৃণমূলে। এবারে নির্বাচনের আগেই তৃণমূল ছেড়ে পদ্মশিবিরে যান প্রবীরবাবু। 

রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য
হুগলির সিঙ্গুর কেন্দ্র থেকে এবার বিজেপির প্রার্থী রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। এর আগে অবশ্য ওই কেন্দ্র থেকেই তৃণমূলের টিকিটে জিতেছেন সিঙ্গুর আন্দোলনের অন্যতম এই নেতা। কিন্তু এবার তৃণমূল টিকিট না দেওয়ায় বিজেপিতে যোগ দেন মাস্টারমশাই। 

লকেট চট্টোপাধ্যায়
হুগলির চুঁচুড়া কেন্দ্র থেকে বিজেপির প্রার্থী হয়েছেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। গত লোকসভা ভোটে হুগলি আসন থেকে জিতে সাংসদ হয়েছিলেন লকেট। তবে এবার বিধানসভা নির্বাচনে তাঁকে ফের টিকিট দিয়েছে দল।

যশ দাশগুপ্ত
হুগলির চণ্ডীতলা আসনে বিজেপির হয়ে লড়ছেন অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত। কিছুদিন আগেই পদ্ম শিবিরে যোগ দেন যশ। তারপরেই তাঁকে চণ্ডীতলার প্রার্থী করেন বিজেপি নেতৃত্ব। 

পায়েল সরকার
বেহালা পূর্ব আসনে অভিনেত্রী পায়েল সরকারকে প্রার্থী করেছে বিজেপি। প্রথমে মনে করা হয়েছিল ওই আসনে হয়ত বিজেপির হয়ে লড়তে পারেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু তারপর দেখা যায় ওই কেন্দ্রে পায়েলের ওপরে ভরসা রেখেছেন বিজেপি নেতৃত্ব।

শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়
বেহালা পশ্চিমে আরও এক অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়কে প্রার্থী করেছে বিজেপি। তিনিও কিছুদিন আগেই যোগ দেন পদ্ম শিবিরে। রাজনৈতির ময়দানে পা রেখেই পেয়ে যান নির্বাচনের টিকিট। 

বাবুল সুপ্রিয়
বাবুল সুপ্রিয়কে টালিগঞ্জ আসনে প্রার্থী করেছে বিজেপি। এর আগে পরপর দুবার আসানসোল কেন্দ্র থেকে জিতে সাংসদ হন বাবুল। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও হন তিনি। এবার তাঁকে টালিগঞ্জ কেন্দ্রে প্রার্থী করে পাঠিয়েছে গেরুয়া শিবির। 

দিপ্সিতা ধর
হাওড়ার বালি কেন্দ্রে সংযুক্ত মোর্চার হয়ে সিপিআইএম-এর টিকিটে লড়ছেন দিপ্সিতা ধর। ছাত্র রাজনীতি থেকে উঠে আসা দিপ্সিতার ওপরে এবার ভরসা রেখেছে মোর্চা। নিজের জয় নিয়ে পুরোপুরি আশাবাদী দিপ্সিতা নিজেও। 

মহম্মদ সেলিম
হুগলির চণ্ডীতলা আসনে সংযুক্ত মোর্চার বাম প্রার্থী মহম্মদ সেলিম। প্রতিপক্ষ কঠিন, তবে লড়াইয়ের ময়দানে কড়া টক্কর দিচ্ছেন পলিটব্যুরোর সদস্য তথা দীর্ঘদিনের এই বাম নেতাও। 

শতরূপ ঘোষ
কসবা কেন্দ্র থেকে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থী সিপিআইএম-এর শতরূপ ঘোষ। এর আগেও নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন শতরূপ। তবে অতীতে সফলতা না এলেও এবারে নিজের জয়ের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী সিপিআইএম-এর এই তরুণ তুর্কি নেতা। 

দেবদূত ঘোষ
টালিগঞ্জ কেন্দ্র থেকে সিপিআইএম তথা সংযুক্ত মোর্চার তারকা প্রার্থী দেবদূত ঘোষ। অভিনয়ের পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরেই বামপন্থী আন্দোলনের সঙ্গেও যুক্ত দেবদূত। এবার দেখার ওই কেন্দ্রে প্রতিপক্ষ দুই হেভিওয়েটকে কতটা চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলতে পারেন তিনি। 

সুজন চক্রবর্তী
সিপিআইএম-এর শীর্ষস্থানীয় নেতা তথা রাজ্যের বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী লড়ছেন যাদবপুর কেন্দ্র থেকে। একসময় ওই কেন্দ্র থেকে ভোটে দাঁড়াতেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। ২০১১ সালে আসনটি বামেদের হাতছাড়া হলেও ২০১৬তে সেখানে জয় পান সুজন। এখন দেখার সেই জয়ের ধারা এবারেও অব্যাহত থাকে কি না। 

আবদুল মান্নান
হুগলির চাঁপদানি কেন্দ্রে আবদুল মান্নানের ওপরেই ভরসা রেখেছে সংযুক্ত মোর্চা। এবারেও ওই কেন্দ্র থেকেই লড়ছেন বর্ষীয়ান এই কংগ্রেস নেতা তথা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা। ২০১৬ সালে ওই কেন্দ্র থেকে জিতেই রাজ্যের বিরোধী দলনেতা হন আবদুল মান্নান।