scorecardresearch
 
লাইফস্টাইল

তলপেট বা কোমরে যন্ত্রণা! Kidney Stone-এর সমস্যা এড়াতে জানুন ৭ প্রাকৃতিক উপায়

kidney stone
  • 1/8

কিডনি স্টোনের  যন্ত্রণা শুধু অসহ্যকর নয়, এটি ব্যক্তির জীবনকে  দুর্বিষহ করে তোলে। কিডনিতে পাথর গঠনের অনেক কারণ থাকতে পারে। এর ব্যথা পেট বা পিঠের কোথাও হতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, কম জল খাওয়া কিডনিতে পাথর গঠনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কারণ। এ ছাড়া কিডনিতে স্টোনের জন্য ভুল খাদ্যভাসও দায়ি হতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে চিকিৎসকরা বলছেন, কিডনিতে স্টোন গঠনের বিষয়টি খাবারের কিছু পরিবর্তন  করে কমানো যেতে পারে।

kidney stone
  • 2/8

বেশি জল  পান করুন - একজন ব্যক্তির প্রতিদিন ১২-১৬ গ্লাস জল পান করা উচিত। হার্ট এবং কিডনির সমস্যাযুক্ত ব্যক্তিদের তাদের বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুসরণ করা উচিত। এ ছাড়া প্রস্রাব পরিষ্কার ও ময়লা মুক্ত রাখতে পর্যাপ্ত পরিমাণে জল পান করুন।

kidney stone
  • 3/8

কম সোডিয়াম খাবার খান - বেশি লবণ বা বেশি সোডিয়াম গ্রহণ আপনার শরীরে ক্যালসিয়ামের মাত্রা বাড়ায় এবং প্রস্রাবে সাইট্রেট কমায়। এটি কিডনিতে পাথর হওয়ার ঝুঁকি বাড়ায়।
 

kidney stone
  • 4/8


তাজা ফল খান - প্রতিদিন তাজা ফল খাওয়া কিডনিতে পাথর হওয়ার সম্ভাবনা কমায়।

kidney stone
  • 5/8

মাংসের ব্যবহার সীমিত করুন - মাংসের অতিরিক্ত ব্যবহার প্রস্রাবে ইউরিক অ্যাসিড, ক্যালসিয়াম এবং অক্সালেটের মাত্রা বৃদ্ধি করতে পারে। এটি কিডনিতে পাথর গঠনের ঝুঁকি বাড়িয়ে তুলতে পারে। সেই কারণে প্রতিদিন মাত্র ৬-৮  আউন্স মাংস খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।
 

kidney stone
  • 6/8

ক্যালসিয়াম গ্রহণ সীমিত করুন - আপনি দুগ্ধজাত দ্রব্য সেবনের মাধ্যমে শরীরে ক্যালসিয়ামের পরিমাণ বজায় রাখতে পারেন। সাপ্লিমেন্টের তুলনায়  ফল, শাকসবজি এবং দুগ্ধজাত দ্রব্য থেকে  ক্যালসিয়াম পাওয়া ভালো, কারণ অতিরিক্ত ক্যালসিয়াম কিডনিতে পাথর হওয়ার ঝুঁকি বাড়ায়।
 

kidney stone
  • 7/8

সাইট্রাস ফল এবং রসের পরিমাণ বাড়ান -  সাইট্রাস ফলের মধ্যে পাওয়া সাইট্রেট কিডনিতে পাথর তৈরিতে বাধা দেয়। লেবু এবং চুন সাইট্রেটের সেরা উৎস হিসাবে প্রমাণিত হয়েছে। এ ছাড়াও কমলা এবং আঙ্গুর কিডনিতে পাথর হতে বাধা দেয়।

kidney stone
  • 8/8


অক্সালেটের পরিমাণ সীমিত করুন - অক্সালেট একটি প্রাকৃতিকভাবে সৃষ্ট পদার্থ যা বিভিন্ন খাবারে পাওয়া যায়। উচ্চ পরিমাণে অক্সালেট পাওয়া যায় পালং শাক, বেরি, বিট, চকলেট, ফ্রেঞ্চ ফ্রাই, বাদাম, সয়া পণ্য ইত্যাদিতে। সেগুলি সীমিত পরিমাণে ব্যবহার করুন।

 
; ; ;