scorecardresearch
 
লাইফস্টাইল

গরমে নাজেহাল? সস্তায় ঘুরে আসুন এই হিল স্টেশনগুলিতে

মানালি
  • 1/10

মানালি
দেশের অন্যতম সুন্দর হিল স্টেশন মানালি। জনপ্রিয়ও বটে। অপূর্ব সুন্দর সবুজ ভ্যালি, তার সঙ্গে নানা অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টসের সম্ভার আফনাকে আকৃষ্ট করবে। যদি একবারও না গিয়ে থাকেন, তা হলে অবশ্যই যান। এখান থেকে লাদাখেও যাওয়া যায়।

তির্থান ভ্যালি
  • 2/10

তির্থান ভ্যালি
যাঁরা পাহাড় আর প্রকৃতি ভালোবাসেন, তাঁদের জন্য দারুণ একটি জায়গা। হিমালয় ন্যাশনাল পার্ক থেকে মাত্র তিন কিলোমিটার দূরে তির্থান ভ্যালি। এখানকার ট্রাউট মাছ দারুণ বিখ্যাত।

তাওয়াং
  • 3/10

তাওয়াং
অরুণাচল প্রদেশের অসাধারণ সুন্দর পাহাড়ি জায়গা। বছরের অনেকটা সময় বরফ দেখা যায়। গরমের ছুটিতে আপনার পারফেক্ট ডেস্টিনেশন। তবে এখানে যেতে হলে হাতে একটু বেশি সময় নিয়ে যাওয়া ভালো।

লাদাখ
  • 4/10

লাদাখ
বাইকপ্রেমীদের কাছে স্বপ্নের ডেস্টিনেশন। গরমের সময় আরামে ঘুরে আসতে পারেন। তবে পরিবারের সঙ্গে যেতে হলে একটু প্রস্তুতি দরকার। রুখা পাথুরের সৌন্দর্য, আর ঘন নীল আকাশ আপনাকে টানবে। লাদাখের রাস্তায় বাইক চালানোর আলাদা থ্রিল রয়েছে।

শিমলা
  • 5/10

শিমলা
হিমাচলের আর একটি সুন্দর হিল স্টেশন। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঠাসা। মে-জুন মাসের তীব্র গরমে কিছু দিন এখানে কাটিয়ে তরতাজা হয়ে যাবেন।

কাশ্মীর
  • 6/10

কাশ্মীর
'গর ফিরদৌস বর-রুয়ে জমিঁ অস্ত্, হমি অস্তো হমি অস্তো হমি অস্ত্'। মুঘল সম্রাট জাহাঙ্গির কাশ্মীর সম্পর্কে একথা বলেন। যার অর্থ, যদি এই বিশ্বে কোথাও স্বর্গ থাকে, তা এখানেই। কাশ্মীরির সৌন্দর্য দেখলে একথা আপনিও বলবেন। গরম থেকে স্বস্তি, তার সঙ্গে মন ভালো করে প্রাকৃতিক দৃশ্য।

দার্জিলিং
  • 7/10

দার্জিলিং
হিল স্টেশনের রানি বলা হয় দার্জিলিংকে। বাঙালিরদের কাছে অন্যতম ফেভারিট ডেস্টিনেশন। টাইগার হিল থেকে সূর্যোদয় দেখা বা ঝকঝকে কাঞ্চনজঙ্ঘার দৃশ্য কোনও দিন ভুলবেন না।

কুর্গ
  • 8/10

কুর্গ
কর্নাটকের খুব সুন্দর একটি হিল স্টেশন। এখানে পাহাড় এবং জঙ্গল দুইয়েরই দর্শন পাবেন। অপূর্ব ঝরনা, পাহাড় এবং জঙ্গলের সৌন্দর্য আপনাকে আকৃষ্ট করবে।

হর্সলি হিল্স
  • 9/10

হর্সলি হিল্স
স্বর্গের মতো সুন্দর। জীবনের ইঁদুর দৌড়ে হাঁপিয়ে উঠলে একবার এখানে কিছুদিন কাটিয়ে আসতে পারেন। নানা ধরনের গাছ, আর প্রকৃতির মাঝে সময় কাটাতে চাইলে এখানে যেতে পারেন।

অউলি
  • 10/10

অউলি
ভারতের সবচেয়ে ঠান্ডা জায়গাগুলির অন্যতম। সারা বছরই ঠান্ডা এখানে। মিঠে নরম রোদ তার সঙ্গে চোখ জুড়ানো সবুজের বাহার। সেপ্টেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারির মধ্যে যে কোনও সময় তুষারপাত দেখা যেতে পারে। গরমে নিশ্চিন্তে ঘুরে আসতে পারেন।