scorecardresearch
 

Cancer Prevention Tips: ক্যানসারের বাহক, অবিলম্বে রান্নাঘর থেকে সরান এই ৪ জিনিস

ক্যানসার এখন ঘরে ঘরে বাসা বেঁধেছে। বিশ্বে দ্রুত হারে বাড়ছে কর্কট রোগ। যে রোগের কথা শুনলে অনেকেই ভয় পান। কয়েকটি উপায় মানলেই এই রোগের ঝুঁকি থেকে অনেকাংশে মুক্তি মেলে। সেজন্য নিজেকে সতর্ক হতে হবে। রান্নাঘরে ব্যবহৃত জিনিসপত্রই হয়ে উঠতে পারে ক্যানসারের বাহক। রান্নাঘরের এই সব জিনিস থাকলে তাই এখনই সরিয়ে ফেলুন। 

রান্নাঘর থেকে সরান এই ৪ জিনিস। রান্নাঘর থেকে সরান এই ৪ জিনিস।
হাইলাইটস
  • বিশ্বে দ্রুত হারে বাড়ছে কর্কট রোগ।
  • কয়েকটি উপায় মানলেই এই রোগের ঝুঁকি থেকে অনেকাংশে মুক্তি মেলে।

কম বয়সেই ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছিলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। দুবার মারণ রোগকে হারিয়েছেন তিনি। কিন্তু শেষরক্ষা আর হয়নি। রবিবার দুপুর ১২টা ৫৯ মিনিটে থামেন অভিনেত্রী। মাত্র ১৫ বছর বয়সেই ক্যানসার আক্রান্ত হয়েছিলেন। কেমোর পর সুস্থ হয়েছিলেন। শুরু হয়েছিল তাঁর অভিনয়জীবন। ক্যানসার এখন ঘরে ঘরে বাসা বেঁধেছে। বিশ্বে দ্রুত হারে বাড়ছে কর্কট রোগ। যে রোগের কথা শুনলে অনেকেই ভয় পান। কয়েকটি উপায় মানলেই এই রোগের ঝুঁকি থেকে অনেকাংশে মুক্তি মেলে। সেজন্য নিজেকে সতর্ক হতে হবে। রান্নাঘরে ব্যবহৃত জিনিসপত্রই হয়ে উঠতে পারে ক্যানসারের বাহক। রান্নাঘরের এই সব জিনিস থাকলে তাই এখনই সরিয়ে ফেলুন। 

পুরনো মশলা- পুরনো মশলা ঘরে রাখবেন না। অনেকেই ২-৩ মাসের মশলা কিনে রেখে দেন। এটা করবেন না। পুরনো মশলা ব্যবহার করবেন না। মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে মশলা নষ্ট হয়ে যায়। বা বাড়িতে থাকলে তাতে জল-বাতাস লেগে নানা প্রতিক্রিয়াও দেখা দেয়। সেই সঙ্গে মশলার গুণমান দেখে কেনা উচিত। এমন অনেক মশলা রয়েছে যা তরিতরকারিতে ব্যবহার করলে শরীরের ক্ষতি হয়। তাই মশালা খোলা কেনার পরিবর্তে ভাল কোম্পানির কিনুন। সেই সঙ্গে তরকারিতে কম মশলা ব্যবহার করুন।    

নন-স্টিক বাসন- বর্তমানে রান্নাঘরে বেড়েছে নন-স্টিক বাসনের  ব্যবহার। এই বাসনগুলি রাসায়নিক দিয়ে তৈরি করা হয়। এ ধরনের রাসায়নিককে পারফ্লুওকটেন সালফেট বলা হয়। শ্যাম্পু, ওয়াটারপ্রুফ পোশাক, প্রসাধনী, পরিষ্কার করার পণ্যে যা ব্যবহার করা হয়। রোজের রান্না নন-স্টিকে করলে ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ে। 

টি-ব্যাগ - যুগ বদলেছে। চা পাতা ফোটানোর পরিবর্তে এসেছে টি ব্যাগ। অনেকেই সকালে টি-ব্যাগ দিয়ে চা খেতে পছন্দ করেন। অফিসেও টি ব্যাগ ডুবিয়ে চা খান। এটাও ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়। এতে রয়েছে পিসিভি, ফুড গ্রেড নাইলন, ন্যানো প্লাস্টিক। এই টি ব্যাগগুলি গরম জলে ডোবানো মাত্রই তিনটি যৌগ ভেঙে জলের সঙ্গে মিশে যায়। তার ফলে কার্সিনোজেন নামে একটি উপাদান চায়ে মেশে। বাড়ে ক্যানসারের সম্ভাবনা। 

প্লাস্টিকের লাঞ্চবক্স ও বাসনপত্র- গরম রান্না অনেকে প্লাস্টিকের বাটিতে রাখেন। বহু রেস্তরাঁতেও দেওয়া হয় প্লাস্টিকের বাটি। সকালে অফিসে দেওয়া হয় প্লাস্টিকের টিফিনবক্স। প্লাস্টিককে শক্ত করতে বিসফেনল নামক রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়। লাঞ্চবক্সে বা প্লাস্টিকের বাটিতে গরম তরিতরকারি দেওয়ার পর সেই রাসায়নিক দ্রবীভূত হয়ে যায়। শরীরে বাসা বাঁধে কর্কট রোগ। তাই কাঁচের টিফিন বক্স ও স্টিলের বাসনপাত্র ব্যবহার করুন।

আরও পড়ুন- বাদাম বেশি খেলে হতে পারে এই ৪ অসুখ, রোজ কতখানি খাওয়া উচিৎ?

 
; ; ;