scorecardresearch
 
স্পেশাল

Shiveluch Volcano: বারবার ভূমিকম্প, যে কোনও সময় ফাটতে পারে আগ্নেয়গিরি; আতঙ্কিত বিজ্ঞানীরাও

রাশিয়ার সুদূর উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের আগ্নেয়গিরি, শিবেলুচ
  • 1/8

রাশিয়ার সুদূর উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের আগ্নেয়গিরি, শিবেলুচ। এটি কামচাটকা উপদ্বীপে অবস্থিত। এই উপদ্বীপে ২৯টি সক্রিয় আগ্নেয়গিরি রয়েছে। এলাকাটি রিং অফ ফায়ারের খুব কাছাকাছি। (ছবি: এপি)
 

এই রিং অফ ফায়ারে ঘন ঘন ভূমিকম্প অনুভূত হয়
  • 2/8

এই রিং অফ ফায়ারে ঘন ঘন ভূমিকম্প অনুভূত হয়। চিন ও হিমালয় অঞ্চলেও যেভাবে প্রতিনিয়ত ভূমিকম্প হচ্ছে, এর কারণে এই আগ্নেয়গিরি যেকোনও সময় বিস্ফোরিত হতে পারে। গত ১৫ বছর ধরে এটি শান্ত অবস্থায় আছে। শিবেলুচ আগ্নেয়গিরি এবং এর আশেপাশের এলাকা সম্পূর্ণরূপে বন এবং তুষার দ্বারা আচ্ছাদিত। (ছবি: গেটি)
 

কামচাটকা উপদ্বীপে খুব কম মানুষই বসবাস করে
  • 3/8

কামচাটকা উপদ্বীপে খুব কম মানুষই বসবাস করে। যে কারণে এখানে কোনও আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের কারণে মানুষের বিপদের আশঙ্কা নেই বললেই চলে। শুধু শিবেলুচ আগ্নেয়গিরি নয়, বাকি ২৯টি আগ্নেয়গিরির আশেপাশে কোনো জনসংখ্যা নেই। এসবই প্রত্যন্ত অঞ্চলে। (ছবি: গেটি)
 

বিস্ফোরণ ঘটলে বিপুল পরিমাণ ছাই, কাঁচ ও পাথর আকাশে ধোঁয়া হয়ে ছড়িয়ে পড়বে
  • 4/8

বিস্ফোরণ ঘটলে বিপুল পরিমাণ ছাই, কাঁচ ও পাথর আকাশে ধোঁয়া হয়ে ছড়িয়ে পড়বে। যে কারণে বিমান চলাচলে সমস্যা হতে পারে। বিমান পরিষেবা বন্ধ করে দিতে হতে পারে। ইউএসজিএস-এর মতে, এই ধরনের আগ্নেয়গিরি প্রায়ই কামচাটকা অঞ্চলে অগ্ন্যুৎপাত হয়, যা ভূমিকম্প দ্বারা প্রভাবিত হয়। ফলে এয়ার রুট বদলাতে হয়। (ছবি: গেটি)
 

শিবেলুচ আগ্নেয়গিরির উচ্চতা ১০,৭৭১ ফুট
  • 5/8

শিবেলুচ আগ্নেয়গিরির উচ্চতা ১০,৭৭১ ফুট। কামচাটকা উপদ্বীপের সবচেয়ে সক্রিয় আগ্নেয়গিরি। গত ১০ হাজার বছরে এটি ৬০ বার ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। কামচাটকা ভলক্যানিক ইরাপশন রেসপন্স টিম (কেভিআরটি) জানিয়েছে, সোমবার থেকে খুব সক্রিয় হয়ে উঠেছে এই আগ্নেয়গিরি। (ছবি: গেটি)
 

শিবেলুচ আগ্নেয়গিরির ভিতরে লাভা গম্বুজ দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে
  • 6/8

শিবেলুচ আগ্নেয়গিরির ভিতরে লাভা গম্বুজ দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর মুখ থেকে ক্রমাগত প্রচুর বাষ্প এবং গ্যাস বের হচ্ছে। ছোটখাটো বিস্ফোরণও ঘটছে। যার সংখ্যা বেড়েছে। এছাড়াও ওপর থেকে নীচ পর্যন্ত গরম লাভা বেরোচ্ছে। (ছবি: গেটি)
 

লাভার উত্তপ্ত গম্বুজ থেকে সালফার গ্যাস বের হচ্ছে
  • 7/8

লাভার উত্তপ্ত গম্বুজ থেকে সালফার গ্যাস বের হচ্ছে। কেভিআরটির বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, বর্তমানে এর অরেঞ্জ অ্যালার্ট ঘোষণা করা হয়েছে। অর্থাৎ যে কোনও সময় এটি বিস্ফোরিত হতে পারে। নাসা জানিয়েছে, এর আগে ২০০৭ সালে এই আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত হয়েছিল। রাশিয়ান একাডেমি অফ সায়েন্সেসের ইনস্টিটিউট অফ ভলকানোলজি অ্যান্ড সিসমোলজির পরিচালক আলেক্সি ওজেরভ বলেছেন যে এই মুহূর্তে এর লাভা গম্বুজ অত্যন্ত গরম। (ছবি: গেটি)
 

গরম লাভার কারণে এই এলাকা রাতে কমলা রঙের হয়ে ও
  • 8/8

আলেক্সি আরও বলেন, গরম লাভার কারণে এই এলাকা রাতে কমলা রঙের হয়ে ওঠে। উপর থেকে ১০০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস স্তরে উত্তপ্ত লাভা নেমে আসছে। পাইরোক্লাস্টিক বিস্ফোরণ ঘটছে। যেকোনও বড় আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের আগে এই অবস্থাই হয়। (ছবি: উইকিপিডিয়া)
 

 
; ; ;