scorecardresearch
 

FIFA World Cup 2022: সেনেগালের বিরুদ্ধে ইংল্য়ান্ডকে চিন্তায় ফেলছে 'ঘর শত্রু'রাই, কেন ?

FIFA World Cup 2022: ইংল্যান্ডকে চমকে দিতে প্রস্তুত সেনেগালের ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের খেলোয়াড়রাই। সবাই এখন এক একটা ঘরের শত্রু। আফ্রিকান দেশটির বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই খেলেন প্রিমিয়ার লিগে। তাই তাঁরা জানেন ইংল্য়ান্ডের স্ট্রাটেজির আঁচ। জানুন দু'দলের খেলা।

ইংল্যান্ডকে চমকে দিতে প্রস্তুত সেনেগালের ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের খেলোয়াড়রাই ইংল্যান্ডকে চমকে দিতে প্রস্তুত সেনেগালের ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের খেলোয়াড়রাই
হাইলাইটস
  • ইংল্যান্ডকে চমকে দিতে প্রস্তুত সেনেগাল
  • ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের খেলোয়াড়রাই তাদের অস্ত্র

FIFA World Cup 2022:  সাদিও মানে ছিটকে যাওয়ায় বিশ্বকাপ শুরুর আগেই বড় ধাক্কা খেয়েছিল সেনেগাল (Senegal)। হলুদ কার্ডের খাঁড়ায় পড়ে আজ নেই মাঝমাঠের ভরসা ইদ্রিসা গুয়েও। এমনিতেই কাগজে-কলমে অনেক এগিয়ে ইংল্যান্ড (England)। দুই নির্ভরযোগ্য খেলোয়াড় ছাড়া আফ্রিকান চ্যাম্পিয়নরা কী আজ শেষ আটের লড়াইয়ে ইংল্যান্ডকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারবে? নাকি সহজেই কোয়ার্টার ফাইনালে চলে যাবে গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যরা!

আরও পড়ুনঃ  বিশ্বকাপের মুখে সেনেগালের ধাক্কা, চোটে ছিটকে গেলেন তারকা সাদিও মানে

তৈরি ইংল্যান্ড

ইংল্যান্ডে চোট কিংবা কার্ড-সংক্রান্ত কোনো ঝামেলাও নেই। একমাত্র বেন হোয়াইট ব্যক্তিগত কারণে স্কোয়াড ছেড়ে দেশে ফিরে গেছেন। আজ পূর্ণ শক্তি নিয়েই নামবে সাউথগেটের দল। তাই অপরাজিত হিসেবে গ্রুপ পর্ব উতরানো ইংল্যান্ডই আজ ফেভারিট। তবে তারকা ঠাসা দল ইংল্যান্ডের সমস্যা হলো, হঠাৎ ছন্দ হারিয়ে ফেলা। এই যেমন প্রথম গ্রুপ ম্যাচে ইরানকে ৬-২ গোলের বন্যায় ভাসানোর পর যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে পোস্টেই শট নিতে পারেনি তারা। শেষ গ্রুপ ম্যাচে আবার প্রতিবেশী ওয়েলসকে ৩-০ গোলে হারিয়ে ছন্দে ফেরে তারা। আসলে দলের মূল স্ট্রাইকার হ্যারি কেইন গোল পাচ্ছেন না বলেই এ সমস্যা। তরুণ দুই স্ট্রাইকার মার্কোস রাশফোর্ড ও ফিল ফোডেন অবশ্য ভালো খেলছেন। এ দুই তরুণই এখন ইংলিশদের ভরসা। ইংল্যান্ডের গোল করার অন্যতম কৌশল হচ্ছে, সেট পিস ও প্রতিপক্ষের বক্সে ফেলা ক্রসগুলো। তবে সেনেগালের বিপক্ষে এ কৌশল কাজে নাও আসতে পারে। দীর্ঘদেহী খালিদু কৌলিবালির নেতৃত্বাধীন সেনেগালের রক্ষণভাগ বাতাসে বেশ দক্ষ।

পাশা উলটাতে চায় সেনেগালও

দুই মূল তারকা না থাকার পরও সেনেগাল কিন্তু দাপটের সঙ্গেই গ্রুপ পর্ব পেরিয়ে এসেছে। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ভালো খেলে হেরে গেলেও পরের দুই ম্যাচে কাতার ও ইকুয়েডরকে পরাজিত করেই তারা শেষ ষোলোর টিকিট পেয়েছে। তাই সেনেগালকে সহজ প্রতিপক্ষ মনে করলে ভীষণ ভুল করবে ইংল্যান্ড। আর অধিনায়ক কৌলিবালি, ইসমাইল সার, বেনঞ্জামিন মেন্দিসহ সেনেগালের ক'জন প্রিমিয়ার লিগে খেলেন। ইংলিশ ফুটবলারদের শক্তি-দুর্বলতা ভালো মতোই জানেন তাঁরা। তাই প্রথমবারের মতো দু'দল আন্তর্জাতিক ম্যাচে মুখোমুখি হলেও সেনেগাল এখানে এগিয়ে থাকবে।

পরিসংখ্যানে আক্রান্ত

আরেকটি পরিসংখ্যানে অবশ্য ইংল্যান্ডের একচ্ছত্র আধিপত্য। বিশ্বকাপের মঞ্চে এই নিয়ে ১৩তম বার প্রথম কোনও দেশের মুখোমুখি হচ্ছে ইংল্যান্ড, আগের ১২ বারের মধ্যে তারা কেবল একবার হেরেছে। সেটাও ৭২ বছর আগে ১৯৫০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে। আর বিশ্বকাপে আফ্রিকান কোনও দেশের বিপক্ষে এখনও হারেনি ইংল্যান্ড। চারটি জিতেছে, তিনটি ড্র হয়েছে। একই পরিসংখ্যান ছিল ব্রাজিলেরও। শেষ গ্রুপ ম্যাচে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের সেই গর্ব ভেঙে দিয়েছে ক্যামেরুন। সেনেগাল কী পারবে তেমন কিছু করতে !