scorecardresearch
 

E-Passport with chip: ভারতে শিগগিরি আসছে চিপ যুক্ত E-Passport, জানুন কী কী সুবিধা

ভারতের পাসপোর্ট (Passport) উপভোক্তাদের জন্য খুশির খবর। যাত্রীরা শীঘ্রই মাইক্রোচিপ লাগানো  E-Passport পেতে চলেছেন। ইতিমধ্যে বিদেশ মন্ত্রকের সচিব ট্যুইটারে এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ভারত শীঘ্রই নিরাপদ বায়োমেট্রিক ডেটা সহ ই-পাসপোর্ট ইস্যু করবে।

ভারতে শিগগিরি আসছে চিপ যুক্ত E-Passport ভারতে শিগগিরি আসছে চিপ যুক্ত E-Passport
হাইলাইটস
  • ভারতের পাসপোর্ট (Passport) উপভোক্তাদের জন্য খুশির খবর
  • যাত্রীরা শীঘ্রই মাইক্রোচিপ লাগানো  E-Passport পেতে চলেছেন
  • ইতিমধ্যে বিদেশ মন্ত্রকের সচিব ট্যুইটারে এ কথা জানিয়েছেন

ভারতের পাসপোর্ট (Passport) উপভোক্তাদের জন্য খুশির খবর। যাত্রীরা শীঘ্রই মাইক্রোচিপ লাগানো  E-Passport পেতে চলেছেন। ইতিমধ্যে বিদেশ মন্ত্রকের সচিব ট্যুইটারে এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ভারত শীঘ্রই নিরাপদ বায়োমেট্রিক ডেটা সহ ই-পাসপোর্ট ইস্যু করবে।

ই-পাসপোর্টে একটি মাইক্রোচিপ (Micro chip) থাকবে যা নিরাপত্তা বজায় রেখে প্রয়োজনীয় তথ্য সংরক্ষণ করবে। বর্তমানে, ভারত পাসপোর্ট ব্যবহারকারীদের শুধুমাত্র প্রিন্ট করা পাসপোর্ট ইস্যু করে। ই-পাসপোর্টে নিরাপদ বায়োমেট্রিক ডেটা থাকবে। এর মাধ্যমে, বিশ্বব্যাপী অভিবাসনের ক্ষেত্রকে মসৃণ করবে। ই-পাসপোর্ট হবে ICAO-র অনুরূপ। এটি  নাসিকের ইন্ডিয়া সিকিউরিটি প্রেসে তৈরি করা হবে। এ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেছেন, এই উন্নত নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য পাসপোর্ট শীঘ্রই আসতে চলেছে।

 E-Passport কী?

E-Passport হল নিয়মিত পাসপোর্টের ডিজিটাল ফর্ম। এতে একটি ইলেকট্রনিক চিপ ব্যবহার করা হয়। এতে উপস্থিত তথ্য সংরক্ষণ করে। পাসপোর্টধারীর নাম, জন্ম তারিখ এবং অন্যান্য তথ্য মাইক্রোচিপে সংরক্ষিত থাকে।

E-Passport অভিবাসনের জন্য দীর্ঘ লাইনের প্রয়োজনীয়তা দূর করবে। ই-পাসপোর্ট ইমিগ্রেশন কাউন্টারে কয়েক মিনিটের মধ্যে স্ক্যান করা যাবে। এমনকি জাল পাসপোর্ট ব্যবসাকেও রোধ করবে কারণ মাইক্রোচিপের ডেটার সঙ্গে কোনও কারসাজি করা যাবে না।

আরও পড়ুন, এবার 6G-র প্রস্তুতি শুরু Jio-র! 5G-র থেকে ১০০ গুণ বেশি স্পিড, রইল বিস্তারিত

E-Passport-এর ধারণা নতুন নয়

ই-পাসপোর্টের ধারণা একেবারেই নতুন নয়। এটি ইতিমধ্যে ১২০ টিরও বেশি দেশে উপস্থিত রয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন এবং জার্মানিতে ইতিমধ্যে বায়োমেট্রিক ই-পাসপোর্ট ব্যবস্থা রয়েছে।

E-Passport কীভাবে কাজ করে? 

ই-পাসপোর্টে একটি চিপ রয়েছে যা পাসপোর্টধারীর সমস্ত তথ্য সংরক্ষণ করে। এটিকে পাসপোর্টের পিছনে রাখা হয়। এটিতে ৬৪ কিলোবাইট স্টোরেজ স্পেস রয়েছে এবং এতে এমবেডেড আয়তক্ষেত্রাকার অ্যান্টেনাও আছে।

প্রাথমিকভাবে, ৩০টি আন্তর্জাতিক ভ্রমণের ডেটা চিপে উপস্থিত থাকবে। খবরে আরও বলা হয়েছে, পাসপোর্টধারীর ছবি এবং বায়োমেট্রিক ডেটার মতো আঙুলের ছাপ পরে চিপে থাকবে। কেউ যদি এটি নিয়ে অনৈতিক কিছু করেন, তবে পাসপোর্টের প্রমাণ করতে ব্যর্থ হবে।