scorecardresearch
 

একসঙ্গে তিন সুন্দরী আমলা, নির্ঘাৎ ফিল্মস্টার, খানাকুলে শুটিং দেখতে ভিড়

এডিএম, এসডিও এবং আইপিএস অফিসার, তিনজনই মহিলা। তার উপর এডিএম ও এসডিও বেশ সুন্দরী। রাস্তা খারাপ থাকায় সরকারি গাড়ি থেকে নেমে টোটোতে এলাকায় পৌঁছতেই এলাকাবাসী ধরে নেন এঁরা সকলেই ফিল্ম স্টার। ফলে দলে দলে শুটিং দেখতে ভিড় জমে যায়। বিড়ম্বনায় পড়েন আমলারা।

সুন্দরী আমলাদের দেখে অভিনেত্রী ভ্রম সুন্দরী আমলাদের দেখে অভিনেত্রী ভ্রম
হাইলাইটস
  • সুন্দরী আমলাদের অভিনেত্রী ভ্রম
  • শুটিং দেখতে উপচে পড়ল ভিড়
  • সামাল দিতে পুলিশ হিমশিম খেল

এডিএম, এসডিও দুজনই মহিলা। সঙ্গে আইপিএস অফিসার, তিনিও মহিলা। তাও আবার সুশ্রী এবং সুন্দরী। দুর্গম এলাকায় গিয়েছিলেন এলাকার হাল-হকিকত খোঁজ নিতে। কিন্তু এমন বিড়ম্বনায় পড়বেন তা মোটেও ভাবেননি। এলাকাবাসী তাদের ফিল্মস্টার মনে করে কাতারে কাতারে ভিড় জমিয়েছেন এলাকায়। ফলে কাজ করবেন কি, নিজেদের সামলাতেই ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েন ওই দুই সরকারি আমলা। 

ভুল বুঝে শুটিং দেখতে ভিড়

ঘটনাটি হিল্লি-দিল্লি বা কোনও বাইরে কোন দেশে নয় খোদ পশ্চিমবাংলার। হুগলির খানাকুলে এদিন সকাল থেকে ভুল বুঝেই আনন্দ উদযাপন করেছেন খানাকুলের বাসিন্দারা। 

বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে গিয়েছিলেন আমলারা

হুগলির খানাকুল দু'নম্বর ব্লক এর ধর্মগাড়ি গ্রাম এর দুর্গম এলাকায় রাস্তাঘাট অবস্থা খুবই বেহাল। গাড়ি-ঘোড়া চলতে অত্যন্ত সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। এলাকায় বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে গিয়েছিলেন তাঁরা। অভিযোগ জমা পড়েছিল জেলাশাসকের দপ্তরে। খবর পেয়ে ল্যান্ড রিফর্ম এডিএমকে ডিএম রিপ্রেজেন্টেটিভ করে এলাকায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

টোটোতে চড়ে এলাকায় প্রবেশ করেন তাঁরা

এডিএম বন্দনা পোখরিওয়াল এবং আরামবাগের এসডিও হাসিন জোহরা রিজভি এবং আইপিএস অফিসার ঐশ্বরিয়া সাগর তাই নিজেদের গাড়ি থেকে নেমে টোটোতে চড়ে এলাকায় প্রবেশ করেন। তাদের সাথে কেন্দ্র সরকারের তিন সদস্যের একটি দল ছিল। হুগলির খানাকুল যে এলাকায় বন্যা সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করেছে সেই সমস্ত এলাকার সার্ভে করতে যান তাঁরা।

সরকারি গাড়ি ছেড়ে আসাতেই বিপত্তি বাড়ে

একে তো ঐ সমস্ত এলাকায় সরকারি আধিকারিকদের পা খুব একটা পড়ে না, তার ওপর একসঙ্গে তিন মহিলা অফিসার হাজির হওয়াতে তারা ধরে নিয়েছেন তারা কোন সিনেমার শুটিং করতে গিয়ে হবেন। খবর মুখে মুখে ঝড়ের গতিতে ছড়িয়ে পড়ে। এলাকার ছেলে-বুড়ো মহিলা-বাচ্চা কাতারে কাতারে ভিড় করেন শুটিং দেখতে। টোটোতে করে আসার কারণে বিভ্রান্তি আরও বাড়ে। সরকারি গাড়ি হলে তবুও কিছুটা বোঝা যেত।

বিড়ম্বনা কাটিয়ে কাজ অবশ্য হয়েছে

ভিনদেশি তিন মহিলা টোটোতে করে এলাকায় আসছেন, কোনও সিনেমার শুটিং না হয়ে যায় না। সঙ্গে লোকজন দেখে তারা নিশ্চয়ই কাস্ট এবং ক্রু বলে মনে করেছেন। পরে অবশ্য তাদের ভুল ভাঙে যখন তারা জানতে পারেন কোনও শুটিং নয়, তিনজনই প্রশাসনের উচ্চ পদের কর্মকর্তা যা দেখে শুনে কাজকর্ম প্রায় লাটে ওঠার জোগাড় হলেও কোনও রকমে তারা সার্ভে সেরে নিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। সব মিলিয়ে বিড়ম্বনায় পড়েন অফিসাররা সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিনিধিরা।

 

 
; ; ;