scorecardresearch
 

'যাও ব্লাউজ পরে এসো,' প্রাক্তন মিস ইউনিভার্সকে বিমানে উঠতে বাধা!

প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স অলিভিয়া কলপোর (Olivia Culpo) ক্রপ টপ নিয়ে আপত্তি আমেরিকান এয়ারলাইন্সের কর্মীদের। পোশাক বদল করে অথবা ঢেকে বিমানে ওঠার নির্দেশ।

অলিভিয়া কলপো। অলিভিয়া কলপো।
হাইলাইটস
  • ক্রপ টপ পরেছিলেন প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স অলিভিয়া কলপো।
  • বক্ষ বিভাজিকা ঢেকে বিমানে ওঠার নির্দেশ।
  • প্রেমিকের হুডি পরে শেষপর্যন্ত সওয়ার হন প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স।

আমেরিকান এয়ারলাইন্সে সওয়ার হয়ে সুখের অভিজ্ঞতা হল না প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স অলিভিয়া কলপোর। বৃহস্পতিবার মেক্সিকো যাচ্ছিলেন তিনি। তখন এয়ারলাইন্সের কর্মীরা তাঁর পরনের পোশাক নিয়ে আপত্তি তোলেন। অলিভিয়াকে ব্লাউজ পরতে বলা হয়। নির্দেশ না মানা হলে বিমানে উঠতে দেওয়া হবে না বলেও জানান তাঁরা। প্রেমিকের থেকে গরম পোশাক ধার করে বিমানে ওঠেন অলিভিয়া।  

ডেইলি মেলের খবর অনুযায়ী, পুরো ঘটনাটি নিজের ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছেন অলিভিয়া। তিনি জানান, বোন আরোরার সঙ্গে বিমান ধরতে যাচ্ছিলন। তখন তাঁর পোশাক নিয়ে আপত্তি তুলে আটকে দেন কর্মীরা। কালো ক্রপ টপ ও বাইক শর্টস পরেছিলেন অলিভিয়া। অরোরা ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন,''অলিভিয়া আর আমি কাবো যাচ্ছিলাম। ওঁকে ওই পোশাকে দারুণ লাগছিল। একদম ঠিকঠাক লাগছে তো?''

প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স অলিভিয়া কলপো

শেষপর্যন্ত বিমান কর্মীদের শর্ত মেনে নিয়েছেন অলিভিয়ার। প্রেমিকের থেকে গরম পোশাক বা হুডি ধার করে পরেছেন। তার পর মেলে বিমানে ওঠার ছাড়পত্র।। অরোরার পোস্ট করা আর একটি ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে, অলিভিয়া একটি হুডি পরে রয়েছেন। সেটি তাঁর প্রেমিক ক্রিশ্চিয়ান ম্যাকক্যাফ্রের।

প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স অলিভিয়া কলপো

অরোরা আর একজন মহিলাকেও ক্যামেরাবন্দি করেছেন। তাঁর বক্ষ বিভাজিকাও দেখা যাচ্ছে। তিনিও নীল রঙের একটি ক্রপ টপ পরে রয়েছেন। অরোরা বলেন,'দেখুন কতটা সুন্দর লাগছে। কিন্তু ওরা এসব দেখে না।'

বিমানবন্দরে জনৈক যাত্রী

বিমানের ভিতরের ভিডিয়োয় দেখা যাচ্ছে ক্রিশ্চিয়ান নিজের হাত দুটি ঢুকিয়ে গুটিসুটি হয়ে বসে রয়েছেন। অরোরার দাবি, প্রেমিকা অসংযত পোশাক পরেছে বলে ওদের দাবি। আর তাই ঠান্ডায় বসে থাকতে হচ্ছে। এভাবেই টাইটানিকে জ্যাকের মৃত্যু হয়েছিল।  

প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স অলিভিয়া কলপোর প্রেমিক

ভিডিয়োটি সঙ্গে সঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে। এই ঘটনা নিয়ে মন্তব্য করেছেন নেটিজেরাও। কারও মতে, সমুদ্রতটের পোশাকে সাধারণ্যে যাওয়া যায় না। আমি ২০ বছর বয়সে জানতে চেয়েছিলাম, বাজারে কি বাথিং স্যুটে যাওয়া যায়। তুমিও তেমন জেনে যেতে পারতে। কেউ বলেছেন, আচ্ছা বিমানে কে এমন পোশাক পরে যায়। একটু বড়দের মতো পোশাক পরো অলিভিয়া। কারও বক্তব্য, খুবই অসংযত পোশাক। এত দেখানোর কি আছে! সস্তায় প্রচারে আসার কৌশল বলে কটাক্ষ করেছেন আর এক নেটিজেন। 

 

আরও পড়়ুন- মহিলার রূপে ডেটিংয়ের জন্য পাগল পুরুষরা, বয়স জানতেই ডেট বাতিল, কিন্তু কেন?