scorecardresearch
 

১৪ বছরের মেয়েকে ভাল বয়ফ্রেন্ড খুঁজে দিতে স্বয়ম্বর ডাকলেন খোদ বাবা-মা!

মেয়েকে ভাল বয়ফ্রেন্ড খুঁজে দিতে স্বয়ম্বর ডেকে দিলেন খোদ বাবা-মা। এমন ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই তাজ্জব বিশ্ব। সঙ্গে সঙ্গেই তা ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

প্রিসিলিয়া ও তার বয়ফ্রেন্ড জিমি প্রিসিলিয়া ও তার বয়ফ্রেন্ড জিমি
হাইলাইটস
  • মেয়েকে ভাল বয়ফ্রেন্ড খুঁজে দিতে স্বয়ম্বর
  • আয়োজন করলেন খোদ বাবা-মা
  • ১৪ বছরের মেয়েকে বয়ফ্রেন্ড খুঁজে দিলেন

রামায়ণ মহাভারতের যুগে বা রাজাদের আমলে স্বয়ম্বর এর প্রচলন ছিল বলে আমরা জানি। তাতে সেই রাজা তার মেয়ের জন্য বর খুঁজে দিতে রীতিমত বর্ণাঢ্য আয়োজন করতেন। নিজের পছন্দসই রাজপুত্রকে তার জীবনসঙ্গী হিসেবে বেছে নিতেন সেই রাজকন্যা। সে সব অনেক আগেকার কথা। সেই রেওয়াজ আজ আর নেই। গণতন্ত্রে সে সব এখন আটকে পড়েছে নিয়মের গেরোয়। তবে তার মধ্যেও যে কখনও কখনও কেউ ব্যতিক্রমী ঘটনা ঘটিয়ে ফেলেন। আমাদের বিশ্বাস করা কঠিন হয়ে পড়ে যে সত্যিই এমন কোনও ঘটনা বাস্তবের মাটিতে ঘটতে পারে বলে।

১৪ বছরের বয়সেই স্বয়ম্বরা

এমনই ঘটনা ঘটেছে এবং তা দিনের আলো দেখেছে। এক কিশোরী, ১৪ বছর বয়সের কিশোরী নয়তো কি বলা যাবে? এই কিশোরী তার হবু বেছে নিতে পাঠালেন তার মা-বাবা। ঠিক যেন স্বয়ম্বর। তাকে পার্টিতে পাঠিয়েছিলেন মা-বাবা, যেখানে তিনি নিজের ভবিষ্যতের স্বামীর সঙ্গে দেখা করতে পারেন। এই কিশোরী নিজের বাবা-মার সঙ্গে ভবঘুরের মতো জীবনযাপন করেন। TLC  চ্য়ানেলে আমাদের বিষয়টি খোলাসা করেছেন তাঁরা।

ভবঘুরে জীবনের কাহিনী

দ্য সানের রিপোর্ট অনুযায়ী ওই মেয়েটির নাম প্রিসিলিয়া। তিনি আমেরিকার জর্জিয়ার বাবা প্যাট বেবি এবং মা লোহানের সঙ্গে কারাওয়াতে থাকেন। তিনি আবারও বছর বয়সে স্কুল ছেড়ে দিয়েছেন। টিএলসি চ্যানেলের টিভি শোতে সম্প্রতি তিনি এই গল্প শেয়ার করেছেন। আসলে প্রিসিলিয়ারা জিপসি বা ভবঘুরের জীবনযাপন করেন। এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যান। প্রিসিলিয়ার মা-বাবা জানান যে আমাদের সংস্কৃতিতে মহিলারা ঘরে থাকেন এবং স্বামীর দেখাশোনা করেন। এটি আমাদের কাজ এবং এভাবেই আমরা প্রিসিলিয়াকে থেকে বড় করেছি। তিনি জানান যে তিনি আমাদের সংস্কৃতি পালন করতে চায়। এ কারণে আমরা একটি পার্টিতে তাকে পাঠিয়েছি যাতে তিনি সেখানে তার নিজের পছন্দমতো জীবন সাথী খুঁজে নিতে পারে।

হ্যালোউইন পার্টিতে স্বয়ম্বরা হলেন প্রিসিলিয়া

যদিও লোয়ান জানিয়েছেন যে এখনো প্রিসিলিয়া বড় হবে এবং ২৫ বছর হয়ে যাওয়ার পর বিয়ে হবে। এটা নিয়ে আর কোনও অভিযোগ নেই এবং তিনি একটি হাউসওয়াইফের জীবন-যাপন করতে চান। তাঁরা একটি হ্যালোউইন পার্টি রেখেছিলেন। যাতে তাদের সমস্ত যুবককে ডাকা হয়। এই পার্টিতে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল যে তিনি তাঁর নিজের পছন্দমতো বেছে নিতে পারেন। পার্টিতে বহু ছেলে প্রিসিলিয়ার উপর ফিদা হয়ে যান। যদি পার্টিতে জিমি নামের একটি ছেলেকে পছন্দ করেন। জীবন সাথী হিসেবে পছন্দ করেন। তিনি জানিয়েছেন যে তিনি নিজের ইচ্ছা অনুযায়ী ভালো ছেলে চাইছিলেন।

 

 
; ; ;