scorecardresearch
 

Two-Headed Black Rat Snake: একই সাপের দুই মাথা, খাওয়ানোর সময়ে বেজায় বিপদ! Viral

Two-Headed Black Rat Snake: দু'মুখো এই সাপকে খুবই বিরল মনে করা হয়। এই সাপটি আমেরিকার মিসৌরির ডেল্টা শহরের স্থানীয় এক যুবক প্রথমে দেখতে পায়। ২০০৫ সালে ওই যুবক নিজের বাড়ির উঠোনে বিরল সাপটির হদিশ পায়। খবর দেওয়া হয় স্থানীয় বন দফতরে। এরপরে সাপটিকে নিয়ে আসা হয় কেপ গিরাডেউ কনজারভেশন নেচার সেন্টারে।

বিরল সেই সাপ। প্রতীকী ছবি বিরল সেই সাপ। প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • একই সাপের দুই মাথা
  • খাওয়ানোর সময়ে বেজায় বিপদ
  • জানুন বিস্তারিত তথ্য

Two-Headed Black Rat Snake: একই সাপ, মাথা দুই। বয়স ১৭ বছর। দুই মুখের এই সাপ (two-headed black rat snake) এর সবাইকে অবাক করেছে। বিজ্ঞানীরা এই সাপটির অকাল মৃত্যু নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। কিন্তু এখন সাপটির বয়স ১৭ বছর হতে চলেছে। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এই সাপ কোটিতে একটি, খুবই বিরল। এই সাপটি ৫ ফুট লম্বা।  বনে বসবাসকারী এই সাপটি তার প্রজাতির নির্দিষ্ট আয়ুও অতিক্রম করেছে। দু'মুখো এই সাপকে খুবই বিরল মনে করা হয়। এই সাপটি আমেরিকার মিসৌরির ডেল্টা শহরের স্থানীয় এক যুবক প্রথমে দেখতে পায়। ২০০৫ সালে ওই যুবক নিজের বাড়ির উঠোনে বিরল সাপটির হদিশ পায়। খবর দেওয়া হয় স্থানীয় বন দফতরে। এরপরে সাপটিকে নিয়ে আসা হয় কেপ গিরাডেউ কনজারভেশন নেচার সেন্টারে।

কী জানচ্ছেন সর্প বিশেষজ্ঞ

ডেইলি মেইলের সঙ্গে কথোপকথনে ব্রিটিশ হারপেটোলজিক্যাল সোসাইটির কাউন্সিল সদস্য এবং সর্প বিশেষজ্ঞ স্টিভ অ্যালেন জানান, এই জাতীয় দু মুখো সাপ কোটিতে  একটি হয়। তবে খুব বেশি বছর বাঁচে না। কিন্তু এই সাপটি বহু বছর ধরে বেঁচে রয়েছে। সর্প বিশেষজ্ঞ স্টিভ অ্যালেন আরও বলেন, আমি একটি দু মুখো সাপের কথা জানি। সেই সাপটি ২০ বছর ধরে বেঁচে ছিল। তিনি বলেন- এই আকারের একটি সাধারণ সাপ আস্ত ইঁদুরকে গিলে ফেলতে পারে। কিন্তু এই দুই মুখের সাপটি তা করতে পারছে না।

খাবার খেতে সমস্যা

এই সাপের খাবার খাওয়া খুব কষ্টের। খাবার খাওয়ানোর সময় এক মুখ ঢেকে অন্য মুখে খাবার দেওয়া হয়। তারপর আরেকটি মুখকে দিতে হয়। কারণ দুটি সাপের একটিইপেট আছে। কিন্তু উভয় মুখের তৃপ্তির জন্য সাপটিকে বিভিন্ন খাবার খাওয়ানো হয়। বনাঞ্চলে এটা হতে পারে না। হয়তো এই কারণেই এমন ধরনে সাপ খুব বেশিদিন টিকে থাকতে পারে না। বিশেষজ্ঞদের মতে, একটি সাপ কেবল তখনই দুইমুখী হতে পারে, যখন একটি পৃথক ডিম্বাণু নিষিক্ত হয় এবং যমজ সন্তান গঠনের জন্য পৃথক হতে শুরু করে। কিন্তু পুরোপুরি আলাদা করতে পারে না। এই সাপ আক্রমণাত্মক হয় না। তবে কোনও কারণ আঘাতে পেলে পাল্টা প্রতিক্রিয়া দেয়। কিন্তু এই সাপ বিষাক্ত নয়।