scorecardresearch
 
উত্তরবঙ্গ

ফূর্তিবাজদের সামলাতে হিমশিম প্রশাসন, মালদায় চলছে পিকনিক, হুল্লোড়

পিকনিকে ভেঙে পড়ল জনতা
  • 1/8

করোনার প্রকোপ বাড়তে শুরু করেছে। যার জেরে রাজ্য সরকার নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। নিষেধাজ্্ঞার কবলে রয়েছে পর্যটন সংক্রান্ত সমাবেশও। কিন্তু মালদায় তার কোনও প্রভাব নেই।

পিকনিকে ভেঙে পড়ল জনতা
  • 2/8

করোনাকে তোয়াক্কা না করে মাস্কহীন ইংরেজি নববর্ষ উপলক্ষ্যে পর্যটক ও পিকনিকের ভিড় উপচে পড়ল মালদার আদিনা মসজিদ ও ডিয়ার পার্কে।

পিকনিকে ভেঙে পড়ল জনতা
  • 3/8

ভ্রুক্ষেপ নেই প্রশাসন থেকে সাধারন মানুষের। মালদা জেলা ছাড়াও ভিন জেলার মানুষও ভিড় করেন এখানে। মাইক ও ডিজে বাজিয়ে পিকনিকের আনন্দে মাতেন বহু মানুষ। জন সমাগম হলেও করোনা বিধি মানেননি কেউই। সংক্রমণের আশঙ্কাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েই চলে দিনভর হইহুল্লোড়।

পিকনিকে ভেঙে পড়ল জনতা
  • 4/8

উল্লেখ্য,নতুন বছর আসার আগে থেকেই দেশ ও রাজ্য বাড়ছে করোনা। আক্রান্ত হয়েছে বহু। মালদা জেলাও তার ব্যাতিক্রম নয়। করোনা মোকাবিলায় ইতিমধ্যে তৎপর হয়েছে রাজ্য সরকার। তবু হুঁশ নিয়ে ফূর্তিবাজদের।

পিকনিকে ভেঙে পড়ল জনতা
  • 5/8

ইতিমধ্যে স্কুল, কলেজ বন্ধের সিদ্ধান্ত নিতে মরিয়া রাজ্য। এরই মধ্যে করোনাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে মালদার আদিনা ফরেস্টে মাস্কহীনভাবে ঘুরে বেড়াচ্ছে মানুষ।

পিকনিকে ভেঙে পড়ল জনতা
  • 6/8

চলছে ডিজে বাজিয়ে নাচ গান। আর এতেই একদিক নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বন্যপ্রাণী হরিণ অন্যদিকে মানুষ। তবে সবটাই কোনও ভ্রুক্ষেপ নয় কারে।

পিকনিকে ভেঙে পড়ল জনতা
  • 7/8

জেলা ফরেস্ট রেঞ্জ অফিসার বি সিদ্ধার্থ জানান, করোনার বিধিনিষেধ আসার পর থেকে আমরা আদিনা ফরেষ্টে পিকিনিক ও প্রবেশ বন্ধ করে দিয়েছি। এরপর রাজ্য সরকারের যা নির্দেশ আসবে সেইমতো কাজ হবে।

 

পিকনিকে ভেঙে পড়ল জনতা
  • 8/8

জেলা শাসক রাজর্ষি মিত্র জানান,রাজ্য সরকারের গাইডলাইন মেনে পার্ক ও পিকিনিক বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যাতে কোনওভাবেই করোনা না ছড়াতে পারে। নজরদারি করা হবে।